artk
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বার ১৭, ২০১৯ ১০:৫৬   |  ২,আশ্বিন ১৪২৬

ফিচার ডেস্ক

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বার ৫, ২০১৯ ৬:৪১

যে পাখির ওজন মাত্র ২ গ্রাম!

media

হামিং শব্দের অর্থ গুঞ্জন। হামিংবার্ড যখন ডানা ঝাপটায় তখন অনেক হাই ফ্রিকোয়েন্সির গুঞ্জন শব্দ শোনা যায়। এই শব্দের কারণেই তাদের এরুপ নামকরণ। একটি হামিংবার্ড ওড়ার সময় বাতাসে সেকেন্ডে ১২ থেকে ৮০ বার পর্যন্ত ডানা ঝাপটায়। এরা ঘণ্টায় প্রায় ৫৪ কিলোমিটার বেগে উড়তে পারে।

পৃথিবীতে প্রায় ১০ হাজার প্রজাতির পাখি রয়েছে। তারমধ্যে সবচেয়ে ছোট প্রজাতিটি হচ্ছে ট্রকিলিডি গোত্রের হামিংবার্ড। ইন্টারন্যাশনাল অরনিথলজিক্যাল কংগ্রেসের মতে, হামিংবার্ডের মোট ৩৫৯টি প্রজাতি রয়েছে যারা দুই আমেরিকা মহাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বিচরণ করে বেড়ায়। এদের বেশিরভাগ সদস্যের দৈর্ঘ্যই ৭.৫-১৩ সে.মি. (৩-৫ ইঞ্চি) এর মধ্যে হয়ে থাকে। রুবি থ্রোটেড হামিংবার্ডের ওজন ৩ গ্রাম যা একটি পয়সার (৪.৫ গ্রাম) চেয়েও হালকা। বিশ্বের সবচেয়ে ছোট পাখি মৌমাছি হামিংবার্ডের দৈর্ঘ্য ৫ সে.মি. বা ২ ইঞ্চি যার ওজন ২ গ্রামেরও কম। এদের শুধুমাত্র কিউবাতে পাওয়া যায়।

হামিং শব্দের অর্থ গুঞ্জন। হামিংবার্ড যখন ডানা ঝাপটায় তখন অনেক হাই ফ্রিকোয়েন্সির গুঞ্জন শব্দ শোনা যায়। এই শব্দের কারণেই তাদের এরুপ নামকরণ। একটি হামিংবার্ড ওড়ার সময় বাতাসে সেকেন্ডে ১২ থেকে ৮০ বার পর্যন্ত ডানা ঝাপটায়। এরা ঘণ্টায় প্রায় ৫৪ কিলোমিটার বেগে উড়তে পারে।

হামিংবার্ড মাত্র ২২ মিলিয়ন বছরে একই পূর্বপুরুষ থেকে আস্তে আস্তে এতগুলো প্রজাতিতে বিভক্ত হয়েছে। প্রায় ৪২ মিলিয়ন বছর আগে তারা সুইফট পাখি থেকে বিবর্তিত হয়ে হামিংবার্ডের পূর্বপুরুষে পরিণত হয়। ফসিল রেকর্ড থেকে জানা যায়, এই বিবর্তনের ঘটনা ঘটে ইউরেশিয়া অঞ্চলে। কিন্তু হামিংবার্ডের বর্তমান বাসস্থান এই অঞ্চল থেকে অনেক দূরে। দুই অঞ্চলের মাঝে রয়েছে বিশাল আটলান্টিক মহাসাগর। হামিংবার্ড সমুদ্রের উপর দিয়ে উড়তে পারে না। তবে এই ছোট্ট পাখিটি এতদূরে কি করে গেল?

ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবর্তন জীববিজ্ঞানী জিম ম্যাকগয়ার ও তার দল হামিংবার্ডের বিবর্তন নিয়ে সবচেয়ে বড় গবেষণাটি করেছেন। তাদের ধারণা মতে, হামিংবার্ড প্রথমে বেরিং প্রণালীর ভূমি সেতুর উপর দিয়ে উত্তর আমেরিকায় যায়। তারপরে সেখান থেকে দক্ষিণে যায়। দক্ষিণ আমেরিকায় তাদের বিস্তার বাড়তে থাকে বিশেষ করে আন্দিজ পর্বতমালা অঞ্চলে। আন্দিজ পর্বতমালা আমেরিকার মোট ভূমির মাত্র ৭% অংশ কিন্তু প্রায় ৪০ শতাংশ হামিংবার্ড এখানে বাস করে।

এই প্রজাতির পাখির ঠোঁট তার সম্পূর্ণ দেহের চেয়েও লম্বা। ফুলের দেহ এবং পাখির ঠোঁট প্রায় একই সমান লম্বা থাকে। হামিংবার্ডের শরীরে মোট ১০০০-১৫০০ পালক থাকে যা পাখিদের মধ্যে সবচেয়ে কম সংখ্যক। তাদের ছোট্ট শরীরের কারণেই যে শুধু এত কম পালক তা নয়, পালক কম থাকায় তাদের শরীর অনেক হালকা হয়ে যায়। এই পালকের মত হালকা শরীর তাদের প্রবলবেগে উড়তে সাহায্য করে। ওদের চোখের দৃষ্টি অনেক তীক্ষ্ণ যার ফলে উড়ন্ত অবস্থায় ও অনেক ক্ষুদ্র জিনিস তাদের চোখ এড়িয়ে যেতে পারে না।

হামিংবার্ডের প্রধান খাদ্য ফুলের মধু এবং রেণু। এর মাধ্যমে অসংখ্য ফুলের পরাগায়ন ঘটে। কাজেই বিভিন্ন ফুলের সাথে হামিংবার্ডের যে সম্পর্ক তাতে উভয়েই লাভবান হয়।

হামিংবার্ড উড়ন্ত অবস্থায় অন্য যেকোন প্রাণীর তুলনায় অতিদ্রুত বিপাকীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে। তাদের বারবার ডানা ঝাপটানোর এবং দ্রুতবেগে উড়ার জন্য খাবার দ্রুত হজম করে শক্তি উৎপাদন করা প্রয়োজন। আবার যখন খাদ্যের স্বল্পতা দেখা দেয় তখন শক্তি সংরক্ষণের জন্য তারা শরীরের তাপমাত্রা এবং বিপাক ক্রিয়ার হার কমিয়ে আধো ঘুমন্ত অবস্থায় চলে যায় যা অনেকটা উভচর ও সরীসৃপ প্রাণীর শীতনিদ্রার মত।

প্রজননের সময় পুরুষ হামিংবার্ড বাসা বানানোর কাজে সাহায্য করে না। স্ত্রী হামিংবার্ড কাপের মত একটি বাসা তৈরি করে এবং ছোট্ট সাদা দুটো ডিম পাড়ে যা তার শরীরের মোট ওজনের দশ ভাগের এক ভাগ। ডিম ফুটে বাচ্চা বের হওয়া থেকে শুরু করে বড় হয়ে বাসা ছেড়ে যাওয়া পর্যন্ত বাচ্চাদের মা লালন পালন করে থাকে।

প্রজাতি, বাসস্থান, শিকারী এবং অন্যান্য হুমকির উপরে নির্ভর করে একটি হামিংবার্ড গড়ে প্রায় ৩-১২ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে।

সাইবার ক্রাইম বিভাগে দ্বারস্থ মেহজাবিন নকল বিদেশি ওষুধ বিক্রি করায় ২ প্রতিষ্ঠানকে ৪০ লাখ টাকা জরিমানা গণহত্যার ঝুঁকিতে এখনো ৬ লাখ রোহিঙ্গা: জাতিসংঘ গাজীপুরে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে অবৈধ গ্যাস লাইনে অগ্নিকাণ্ড ফেসবুক স্ট্যাটাস দেখেই শিক্ষার্থীদের বহিষ্কার করেন উপাচার্য পাবনায় ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে ট্রেন চালকের আত্মহত্যা সৌদি আরবে ফের হামলা চালিয়েছে ইয়েমেন ঢাকার শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়েছে চাঁদাবাজির অভিযোগে ঢাকা উত্তর ছাত্রলীগ নেতা বহিস্কার ‘ডাক্তার বলার আগেই আয়া রোগীর পোশাক খুলে নেয়’ দুর্নীতি নির্মূলে টাস্কফোর্স গঠনের দাবি সম্পাদক পদে প্রার্থী হবেন না ওবায়দুল কাদের রিজার্ভ চুরির ব্যাপারে কিছুই বলা যাবে না: অর্থমন্ত্রী আলিয়ার সঙ্গে চুমুর দৃশ্যে আপত্তি সালমান খানের? মামলাকে কর ফাঁকির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে মেঘনা গ্রুপ! খালেদা জিয়া আলেমদের কিছু দেন নাই: আল্লামা শফী অন্য প্রতিষ্ঠানেও ‘ভাগাভাগি’ হচ্ছে: আরেফিন সিদ্দিক প্রেস কাউন্সিলের বিবৃতি প্রত্যাহার চায় এলআরএফ বাংলাদেশকে হারাতে মরিয়া জিম্বাবুয়ে বুধবার শ্রীলঙ্কায় যাচ্ছে মিরাজ-মুমিনুল-সৌম্যরা মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে ট্রাকের নিচে এনজিওকর্মী কোহলিদের নিরাপত্তা দিতে আপত্তি ভারতীয় পুলিশের হাজিরা খাতায় সই করেই বেতন-ভাতা নেন আ.লীগ নেতার স্ত্রী মধ্য রাতে বৃদ্ধার গরু লুট করলো যুবলীগ-কৃষক লীগ নেতারা পুঁজিবাজারে সূচকের পতন, লেনদেনে উত্থান ছাত্রলীগে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব কোন আইনে: রিজভী রাব্বানীকে একহাত নিলেন সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী পেঁয়াজের দাম শিগগিরই কমবে: বাণিজ্য সচিব বিমানের ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বিভাগীয় শহরে ক্যান্সার হাসপাতালসহ ৮ প্রকল্প অনুমোদন