artk
মঙ্গলবার, অক্টোবার ১৫, ২০১৯ ৩:২৪   |  ৩০,আশ্বিন ১৪২৬

নিজস্ব প্রতিবেদক

শনিবার, আগষ্ট ৩১, ২০১৯ ১:৫৪
উপহারও পেয়েছে ৪৫ লাখ টাকার

রোহিঙ্গা কন্যার কান ফোঁড়ানো অনুষ্ঠানে এক কেজি স্বর্ণ

media

শুনলে বিস্ময়ে অবাক মানতে হয়। কিন্তু ঘটনা সত্য। কাহিনীটি এক রোহিঙ্গা ডাকাতের। টেকনাফের দুর্ধর্ষ রোহিঙ্গা ডাকাত নুর মোহাম্মদের কিশোরী কন্যার কান ফোঁড়ানোর অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের কাছ থেকে উপহার হিসেবে পাওয়া গেছে এক কেজি স্বর্ণালংকার ও নগদ ৪৫ লাখ টাকা।

শুনলে বিস্ময়ে অবাক মানতে হয়। কিন্তু ঘটনা সত্য। কাহিনীটি এক রোহিঙ্গা ডাকাতের। টেকনাফের দুর্ধর্ষ রোহিঙ্গা ডাকাত নুর মোহাম্মদের কিশোরী কন্যার কান ফোঁড়ানোর অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের কাছ থেকে উপহার হিসেবে পাওয়া গেছে এক কেজি স্বর্ণালংকার ও নগদ ৪৫ লাখ টাকা।

টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ গতকাল শুক্রবার রাতে চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি জানিয়ে নিশ্চিত করেছেন—এ ঘটনার পর কয়েক দফা অভিযান চালানো হয় রোহিঙ্গা ডাকাত নুর মোহাম্মদকে ধরতে। কিন্তু তিনি তাঁর বাহিনী নিয়ে টেকনাফের গহিন পাহাড়ে লুকিয়ে আছেন। ফলে ধরা যায়নি।

ওসি বলেন, ‘কান ফোঁড়ানোর অনুষ্ঠানে এ রকম উপহারসামগ্রী পাওয়ার বিষয়টি এলাকাবাসীও জানে।’

হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী জানান, গত ২২ আগস্ট রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের দিন নুর মোহাম্মদ তাঁর কন্যার কান ফোঁড়ানোর অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। গরু-ছাগল জবাই করে আয়োজন করা হয় ভোজ অনুষ্ঠানের। আমন্ত্রিতদের সবাই রোহিঙ্গা ডাকাত, সন্ত্রাসী এবং ইয়াবা কারবারি।

তিনি আরো জানান, ১৯৯২ সালে মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা নুর মোহাম্মদ হ্নীলা ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের জাদিমুরা এলাকায় প্রথমে বাসা ভাড়া নিয়েছিলেন। ধীরে ধীরে সেখানে জমি কিনে ঘরবাড়ির মালিক হয়ে যান। এপারে আশ্রয় নেওয়ার পর ওপারের রোহিঙ্গাদের নিয়ে সীমান্তে গড়ে তোলে বিশাল ডাকাত বাহিনী।

এই ডাকাত বাহিনী অপহরণ, ডাকাতি, ছিনতাই, মানবপাচারসহ সীমান্তে ইয়াবা কারবারে জড়িয়ে পড়ে। আর দুই বছর আগে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গা ঢলের পর নুর মোহাম্মদ ডাকাতের প্রতাপ কয়েক গুণ বেড়ে যায়। এলাকার পাঁচ-ছয়টি রোহিঙ্গা শিবির, টেকনাফের বিস্তৃত পাহাড়, সীমান্তের নাফনদ ও নাফনদের ওপারে রাখাইনের অভ্যন্তরে থাকা ইয়াবা কারখানা ও গবাদি পশুর বাজার নিয়ন্ত্রণে নেয় তারা। এসব অপকর্ম করে বাহিনীর সদস্যরা কোটি কোটি টাকার মালিক বনে যায়।

ওসি প্রদীপ কুমার দাশ আরো জানান, নুর মোহাম্মদ ডাকাত সর্দার হওয়ার কারণে ভোজের দাওয়াতে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী, ডাকাত ও ইয়াবা কারবারিরা অংশ নেয়। তার ভোজ অনুষ্ঠান গিয়েই ওই দিন রাতে তুচ্ছ ঘটনার জেরে সন্ত্রাসী রোহিঙ্গারা খুন করে স্থানীয় যুবলীগ নেতা ওমর ফারুককে।

তিনি আরো জানান, রোহিঙ্গা নুর মোহাম্মদ ডাকাতের চারটি বাড়ি রয়েছে। এর মধ্যে একটি পাকা ভবন, একটি দোতলা টাওয়ার, একটি টিনের ঘর, অন্যটি বাগানবাড়ি।

ডাকাত নুর মোহাম্মদের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা, ডাকাতি, অপহরণসহ অনেক মামলা রয়েছে। তিনি একজন মোস্ট ওয়ানটেড আসামি।

গরিবের হাতে বেশি করে টাকা তুলে দিতে হবে: নোবেল জয়ী অভিজিৎ আমাদের মধ্যেও দালাল শ্রেণি আছে: গয়েশ্বর বিকেলে পরবর্তী অবস্থান জানাবেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা কবি হাফিজের স্মরণে সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আবরার হত্যার আসামি সাদাত গ্রেপ্তার মিরসরাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুলশিক্ষক নিহত রাত জাগা মানুষের অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি বেশি সম্রাট ১০ দিনের রিমান্ডে, আরমানের ৫ দিন মানবতাবিরোধী অপরাধ: গাইবান্ধার ৫ রাজাকারের মৃত্যুদণ্ড ভেঙে যাচ্ছে সিদ্দিক-মিমের সংসার ওসি-ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৪৫০ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ পাকিস্তানের ‘গাঢ় ধূসর’ তালিকায় পড়ার সম্ভাবনা গুলশানে এবি ব্যাংকের কার্যালয়ে আগুন কাছাকাছি অফিস নিয়ে ফেসবুকের কর্মী ভাগিয়ে নিচ্ছে টিকটক চীনে রক্ত ‘চোরাচালান’ বিজেপির সভাপতির পদ ছাড়ছেন অমিত শাহ মেক্সিকোতে বন্দুকধারীদের হামলায় ১৪ পুলিশ নিহত জেল খেটেছিলেন নোবেল জয়ী অভিজিৎ ভারত বনাম বাংলাদেশের খেলা রাত ৮টায় চুল রক্ষায় গাছ লাগান এবার পেঁয়াজ আমদানি করবে বড় কোম্পানিগুলো চার তলা ভবন থেকে শিশুকে ফেলে দিলেন মা লক্ষ্মীপুরে গুলিতে যুবক নিহত সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৪ জলদস্যু নিহত ভালো লেখক হওয়ার টিপস ইবিতে মধ্যরাতে প্রভোস্টের পদত্যাগ চেয়ে আন্দোলন তুরস্ক সরকারের মন্ত্রী ও কর্মকর্তাদের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে চীনা প্রকৌশলীর মৃত্যু হবিগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সর্দার নিহত কোটচাঁদপুরে ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী তৃতীয় লিঙ্গের পিংকি