artk
মঙ্গলবার, নভেম্বার ১২, ২০১৯ ৭:১৪   |  ২৮,কার্তিক ১৪২৬

রাঙামাটি সংবাদদাতা

মঙ্গলবার, আগষ্ট ২৭, ২০১৯ ৯:৫১

ঝরণা অপরূপ, অভাব নিরাপত্তা ও ভালো যোগাযোগ ব্যবস্থার

media

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরূপ লীলাভূমি রাঙ্গামাটি। পুরো জেলা জুড়ে রয়েছে পর্যটকদের জন্য পর্যটন স্পট ও মিঠা পানির কৃত্রিম কাপ্তাই হ্রদ। হ্রদের পাশে ঠায় দাঁড়িয়ে আছে সুউচ্চ পাহাড়। হ্রদ-পাহাড়ের মিতালী শহরে সবুজ অরণ্যর গহীন পাহাড়ে কয়েকটি ঝরণার সন্ধান মিলে। তার মধ্যে রাঙ্গামাটির কাউখালী উপজেলার ঘাগড়া ইউনিয়নের কলাবাগান ঝরণাটি অন্যতম। স্থানীয়দের কাছে এটি ‘কলাবাগান’ ঝরণা নামে বেশ পরিচিতি। প্রতিদিন গড়ে ৩০০ জনের মতো পর্যটকের সমাগম ঘটে এখানে।

দিন দিন ঝরণাটি এখন স্থানীয় পর্যটকদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বর্তমানে জেলার বাইরে বিভিন্ন দূর দূরান্ত থেকে পর্যটকরা ছুটে আসছেন দুর্গম এলাকায় অবস্থিত ঝরণাটিতে অবগাহন করতে।

তবে ঝরণাটি দেখতে বেশ বেগ পেতে হয়। মূল সড়ক থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার পায়ে হেঁটে কঠিন পথ মাড়িয়ে তবেই কাঙ্খিত ঝরণার কাছে পৌঁছাতে হবে।

ঝরণার কাছে পৌঁছানোর আগে পাহাড়ি ঝিরি (ছড়া) মাড়ানোর সময় সবুজ গাছপালা, দুর্গম পাহাড়, পাখির কিচিরমিচির এবং ঝিরির মাঝে সাদা নুড়ি পাথর আপনার মনকে মাতিয়ে তুলবে। তবে হাঁটার সময় সাবধান থাকতে হবে। কেন না পাথরের মধ্যে শেওলা জমে থাকে। তাই যে কোনো সময় শেওলার আস্তরে পিছলে পড়ে বড় ধরনের দুর্ঘটনার শিকার হতে পারেন। এজন্য অভিজ্ঞদের সাথে নিয়ে পথ চলা বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

হাঁটার সময় পথিমধ্যে ছোট দুটি ঝরণা চোখে পড়বে। ক্লান্তি দূর করতে প্রশান্তির ছোঁয়া পেতে কিছুক্ষণ গা ভিজিয়ে নিতে পারেন। এরপর লক্ষ্য সুউচ্চ স্থানে অবস্থিত বড় ঝরণাটির দিকে। শত বাধা বিপত্তি পেরিয়ে বড় ঝরণাটি দেখার পর আপনার সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যাবে। এইবার মেতে উঠুন তারুণ্যের জোয়ারে।

ঝরণার শো শো শব্দের গানের সাথে হারিয়ে যান স্বপ্ন বিলাসী মন নিয়ে। হ্যা বলে রাখা ভালো, বিকেলের মধ্যে ঝরণার স্থল ত্যাগ করতে হবে। কেন না এখানে পর্যটকদের নিরাপত্তার কোনো ব্যবস্থা নেই।

আনন্দের সাথে মুখরোচক কিছু খেতে চাইলে নিজের সঙ্গে নিয়ে যাবেন। সেখানে পর্যটকদের রুচির স্বাদ নিতে কোনো স্টল বসেনি। তবে দুয়েকজন ব্যক্তি উদ্যোগে স্বল্প পরিসরে ঝালমুড়ি এবং পেয়ারা বিক্রি করে। চাইলে কিনে খেতে পারেন সেইসব খাবার।

সরেজমিনে গেলে পর্যটকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, একদিকে ঝুঁকিপূর্ণ দুর্গম পথ অন্যদিকে পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের ভয়, আনন্দ আবার বেদনা হয়ে যেতে পারে। তাই যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি, নিরাপত্তা জোরদার ব্যবস্থা গ্রহণ, সৌন্দর্যবর্ধন, বিশ্রামাগার এবং খাবারের জন্য কয়েকটি রেস্টুরেন্ট তৈরি করা গেলে এ এলাকাটি হবে পর্যটন সমৃদ্ধ। সরকার পাবে রাজস্ব। বেকার যুবদের জন্য সৃষ্টি হবে কর্মসংস্থানের।

চট্টগ্রাম থেকে বেড়াতে আসা রহমত উল্লাহ খান বলেন, “আমরা একঝাঁক বন্ধু সিএনজি নিয়ে অপরূপা ঝরণাটি দেখতে এসেছি। পাহাড়ি পথ মারানোর কোনো অভ্যাস আমাদের নেই। তবুও মনের প্রশান্তি নিতে ঝুঁকি নিয়ে এখানে ছুটে এসেছি।” এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও জানান, সবকিছু ভালো লাগলেও এখানে মূল সমস্যা হলো নিরাপত্তার অভাব। নিরাপত্তা জোরদার করা গেলে পর্যটকদের ঢল নামবে বলে মনে করেন তিনি।

চট্টগ্রামের রাণিরহাট এলাকা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটক আহসান শামীম বলেন, “আসার সময় যত কষ্ট পেয়েছি। এখানে আসার পর সব ভুলে গেছি। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি, বিশ্রামাগার এবং কয়েকটি খাবারের দোকান থাকলে এ এলাকাটি নতুন পর্যটন স্পট হিসেবে আলাদা সুখ্যাতি অর্জন করবে।”

কিভাবে যাবেন:

রাঙ্গামাটি শহরে থেকে অটোরিকশা (সিএনজি) ভাড়া করে সোজা চলে যাবেন কলাবাগান নামক এলাকায়। যেকোনো অটোরিকশা চালককে বললে নিয়ে যাবে। এজন্য পুরো অটো ভাড়া গুণতে হবে ২৫০ টাকা। এরপর ছোট্ট গ্রামের মেঠো পথ পাড়ি দিয়ে পাহাড়ি ঝিরি মাড়িয়ে চলে যাবেন অপরূপা ঝরণার কাছে।

রাজনীতি গাড়ি-বাড়ি করার পেশা নয়: রাষ্ট্রপতি রাঁঙ্গার বিচারের ভার জনগণের কাছে দিলেন নূর হোসেনের মা পুত্র সন্তানের বাবা হলেন আল আমিন আইসিসি র‍্যাংকিং থেকে মুছে ফেলা হলো সাকিবের নাম রোহিঙ্গা গণহত্যা: মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা গাম্বিয়ার ৩-৪ বছরের মধ্যে সারা দেশে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ নিশ্চিত হবে: প্রতিমন্ত্রী লতা মুঙ্গেশকর আইসিইউয়ে সূচকে উত্থান লেনদেন মন্দা অবৈধ সম্পদ: দম্পতির বিরুদ্ধে মামলা ভারতে বাংলাদেশের নতুন হাইকমিশনার মুহম্মদ ইমরান ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৪ শাহ আমানতে চার্জার লাইটের ভেতর ৭০টি সোনার বার আটকে গেল লতিফ সিদ্দিকীর জামিন সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশ নিষেধ অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় তুরিন আফরোজকে অপসারণ: আইনমন্ত্রী রোহিঙ্গা শুধু বাংলাদেশের জন্য নয়, এ অঞ্চলে নিরাপত্তা হুমকি: প্রধানমন্ত্রী খোঁজ নেয়া হবে কার আঙুল ফুলে কলা গাছ: কাদের তুরিন আফরোজকে অপসারণ স্পেনে যৌন মিলনে ডেঙ্গুর ভাইরাস ছড়ানোর প্রমাণ শওকত আজিজের গাড়ি ঢাকা থেকেই জব্দ করেন এসপি হারুন ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে পশ্চিমবঙ্গে প্রাণ হারালেন ৭ জন ইমার্জিং এশিয়া কাপের জন্য বাংলাদেশের দল ঘোষণা, নেতৃত্বে শান্ত শনিরআখড়ায় ৩ হাজার পিস ইয়াবা জব্দ, আটক ৩ বিতর্কিতদের দিয়ে দল ভারির দরকার নেই: ওবায়দুল কাদের ঘূর্ণিঝড় বুলবুল কেড়ে নিল ৭ তাজা প্রাণ ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: ১২ নভেম্বরের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষাও পেছাল ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডব: সাতক্ষীরায় ৫০ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত এবারও বুক পেতে দিল সুন্দরবন বাবরি মসজিদ: নতুন মসজিদ নির্মাণে আলাদা জমি বরাদ্দ দিতে নির্দেশ বাংলাদেশ একটি বন্দিশালায় পরিণত হয়েছে: আনু মুহাম্মদ