artk

কক্সবাজার প্রতিনিধি

রোববার, আগষ্ট ২৫, ২০১৯ ২:৩০

পাঁচ দফা না মানলে ফিরবো না, সমাবেশে রোহিঙ্গারা

media

নিজেদের নাগরিক অধিকার ও হারানো ভিটে-মাটি ফিরে পাওয়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ থেকে আলোচনা করা হবে। ৫ দফা দাবি না মানা পর্যন্ত একজন রোহিঙ্গাও মিয়ানমার ফিরবে না। কারণ, মিয়ানমার সরকারের উপর আস্থা রাখা বোকামি।

নিজেদের নাগরিক অধিকার ও হারানো ভিটে-মাটি ফিরে পাওয়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ থেকে আলোচনা করা হবে। ৫ দফা দাবি না মানা পর্যন্ত একজন রোহিঙ্গাও মিয়ানমার ফিরবে না। কারণ, মিয়ানমার সরকারের উপর আস্থা রাখা বোকামি।

রোববার সকালে উখিয়ার ক্যাম্প এক্স:-৪ এ দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত মহাসমাবেশে এসব কথা বলেন রোহিঙ্গা নেতারা। এ সময় উপস্থিত লাখো রোহিঙ্গা তাদের অধিকার ফিরে পেলে মিয়ানমার ফিরবেন বলে মত দেন।

সমাবেশে ঘোষণাকৃত দাবি হলো, মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিক হিসেবে মেনে নিতে হবে। নিরাপত্তা ও অবাধে চলাচলের স্বাধীনতা। নিজেদের হারানো ভিটে-মাটি ফেরত দিতে হবে। ২৫ আগস্টের নির্যাতনের বিচার করতে হবে।

আরকান রোহিঙ্গা সোসাইটির নেতা মাস্টার মুহিব উল্লাহ বলেন, “মিয়ানমার সেনা ও মগদের নির্যাতনে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়ার দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে মহাসমাবেশ করেছে রোহিঙ্গারা। রোহিঙ্গারা এখন ঐক্যবদ্ধ হয়েছে শুধু অধিকার ফিরে পেতে। আমরা নিজেদের দেশে ফিরতে চাই। কিন্তু অধিকার ও নিরাপত্তার নিশ্চয়তা ছাড়া কখনো ফিরবো না। মিয়ানমার সরকারের উপর আস্থা রাখা বোকামি।”

আরেক রোহিঙ্গা নেতা আব্দুর রহিম বলেন, “বাংলাদেশে থাকার ইচ্ছে আমাদের নেই। তবে বিপদে পড়ে আমরা শরণার্থী। আশ্রয় দেয়ায় বাংলাদেশের সরকার, নাগরিকের প্রতিকৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তবে দাবি না মানা পর্যন্ত আমরা ফিরে গেলে আবারও নির্যাতন হতে পারে।”

মিয়ানমার সরকার আলোচনার কথা বলে আমাদের সাথে ছলনা করছে উল্লেখ্য করে রোহিঙ্গা নেতা মোহাম্মদ ইলিয়াছ বলেন, “যেখানে গত বৈঠকে আরো আলোচনার সিদ্ধান্ত হয় সেখানে হঠাৎ প্রত্যাবাসনের ঘোষণা দেয় মিয়ানমির সরকার। কিন্তু বৈঠকে দাবি মানার বিষয়ে আরও আলোচনার কথা বলাহয়েছিল, সেখানে প্রত্যাবাসনের ঘোষণা অবান্তর ও হাস্যকর।”

সমাবেশে আসা রোহিঙ্গা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, “যে দাবিগুলো দেয়া হয়েছে তা আমাদের অধিকার। মিয়ানমার সরকার আমাদের অধিকার দিতে রাজি নয়। তাই এত চলনা করছে। দাবি না মানা পর্যন্ত মিয়ানমারে ফিরে যাবো না।”

এদিকে, সমাবেশে মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা নুরুল ইসলাম। মোনাজাতে নিজেদের নাগরিক অধিকার ও আশ্রয় দেয়ায় বাংলাদেশের জন্য দোয়া কামনা করা হয়।

এছাড়া মধুছড়া ক্যাম্প ও ২৪ নং ক্যাম্পসহ বিভিন্ন ক্যাম্পে সমাবেশ করছে রোহিঙ্গারা।

উল্লেখ্য, রোববার রোহিঙ্গা সংকটের দুই বছর পূর্ণ হয়েছে। ২০১৭ সালের এ দিনে ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞের ঘটনা ঘটে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য। এরপর থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে রোহিঙ্গারা। বর্তমানে বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গার সংখ্যা প্রায় ১১ লাখ।

সংসদে ৮২৩৮ জন ঋণখেলাপির তালিকা প্রকাশ কুকুর হত্যার দায়ে আট মাসের কারাদণ্ড একুশ ফার্স্ট প্রসপেক্টাস অনুমোদন ধনী-গরিব নির্বিশেষে সুবিচার নিশ্চিতে সরকার বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী ডিএসই-সিএসইর নতুন এমডি নিয়োগের অনুমোদন বিএসইসির এশিয়া ও বিশ্ব একাদশের ম্যাচ আয়োজন করছে না ভারত অনিয়মের বিরুদ্ধে দুদকের অভিযান মানিকগঞ্জে বাসায় ঢুকে মেয়ের চোখের সামনে মাকে হত্যা নির্বাচনী গণসংযোগে হামলা: ইসির পদক্ষেপের অপেক্ষায় তাবিথ এসকে সিনহাকে হাজিরে গেজেট প্রকাশের নির্দেশ ই-পাসপোর্ট পেতে আবেদন করবেন যেভাবে চাটার্ড বিমানে রাতে পাকিস্তানে উড়াল দিচ্ছে টাইগাররা দুর্নীতি করে জনগণের হক নষ্ট করবেন না: দুদক কমিশনার চাই না, নির্বাচনে কোনো অভিযোগ ইসি পর্যন্ত গড়াক: সিইসি টাইগারদের নতুন পেস বোলিং কোচ গিবসন সব ধরনের সূচকে উত্থান নিউজিল্যান্ড সফরে ভারতের দল ঘোষণা পাকিস্তান-বাংলাদেশ ম্যাচ দিয়ে অভিষেক হচ্ছে মাদুগালের গণতন্ত্র সূচকে বাংলাদেশের ৮ ধাপ অগ্রগতি ঢাবির ৪ শিক্ষার্থীকে রাতভর পিটিয়েছে ছাত্রলীগ ফারমার্স ব্যাংকের তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চার্জশিট কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারতকে সাহায্য করতে চান ট্রাম্প বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজ শুরু পর্তুগালে সংঘর্ষে মৃত্যুর খবর সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও গুজব হাতীবান্ধা সীমান্তে দুই বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা বিএসএফের নেতাজি ও বঙ্গবন্ধুর দেশপ্রেম তরুণদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে হবে: খাদ্যমন্ত্রী সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এপিএসকে তলব বনানীতে রাস্তা পারাপারের সময় বাসের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত রাজধানীর হাজারীবাগে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ৩ শ্রমিকের মৃত্যু পলিথিনে মোড়ানো পোস্টার লাগানো কেন বেআইনী নয়