artk

ভোলা সংবাদদাতা

শনিবার, আগষ্ট ২৪, ২০১৯ ১:৪০

ধর্ষণের ঘটনা মীমাংসার নামে টাকা আত্মসাত, ধর্ষিতাকে চর থাপ্পর

media

ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে একটি ধর্ষণের বিচার করবে বলে বিশ হাজার টাকা ঘুষ নিয়ে দর্ষিতাকে চর থাপ্পরমারে এমন অভিযোগ উঠেছে ঐ ওয়ার্ডের দালাল গ্রুপের বিরুদ্ধে।

ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে একটি ধর্ষণের ঘটনা মীমাংসা করার কথা বলে ধর্ষকের কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা নিয়ে ধর্ষিতাকে চর থাপ্পর মারার অভিযোগ উঠেছে। 

অভিযুক্ত দালালরা হলেন মো. নাছির হাওলাদার মো. নাছির ফকির মো. মালেক মিদ্দা মো. নুরু মিদ্দা ও মো. নাহিদ মিদ্দা।

জানা যায়, পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের জাফর খাঁ বাড়ির এক কিশোরীর (১৪) সঙ্গে রাজাপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মো. হানিফ হাওলাদারের ছেলে মো. শাকিলের (২২) দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল।

ফোনে দুইজনের কথোপকথনের এক পর্যায়ে মেয়ের সাথে ২০ আগস্ট রাত ৩টার দিকে দেখা করতে আসেন প্রেমিক শাকিল ও তার এক বন্ধু।

মেয়ের নিজ বাড়ির আঙ্গিনায় একটি নির্জন বাগানে দেখা করেন দুজনে। আগে থেকে তাদের প্রেমের সম্পর্ক জানা নসু মাতব্বর নামে এক প্রতিবেশী তাদের ধরার জন্য রাত জেগে ওঁৎ পেতে ছিলেন। দুজনকে দেখতে পেয়ে তিনি ঘর থেকে দা নিয়ে দুজনকে হাতেনাতে ধরেন। এসময় নসু মাতব্বরকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন প্রেমিক শাকিল। নসু মাতব্বর ও শাকিলের ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে শাকিল ছুটে দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করলে নসু মাতব্বর তাকে দা দিয়ে কোপ দেন। পরে প্রেমিক তার মোবাইল ও লুঙ্গি ফেলে পালিয়ে যান।

সকালে ঘটনাটি জানাজানি হলে স্থানীয় দালাল নাছির হাওলাদার, নাছির ফকির, মো. মালেক মিদ্দা, মো. নুরু মিদ্দা ও মো. নাহিদ মিদ্দা ঘটনাটি মিটমাট করা কথা বলে ছেলে পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা মেয়ের পরিবারকে দেবেন বলে হাতিয়ে নিয়ে মেয়ের বাড়িতে গিয়ে তাকে চর থাপ্পর মারেন।

এক পর্যায়ে মেয়ের পরিবার সঠিক বিচারের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে গিয়েও সঠিক বিচার না পেয়ে ভোলা সদর থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন।

মেয়ের মা মোসা. মিনারা বেগম বলেন, “আমরা সঠিক বিচার না পেয়ে ভোলা সদর থানায় ধর্ষণ মামলা করেছি।”

তিনি অভিযোগ করে বলেন, “আমার মেয়ে প্রেমে রাজি ছিল না। শাকিল জোরপূর্বক আমার মেয়ের কাছ থেকে ফোন নম্বর নিয়ে রাতে তাকে ধর্ষণ করার জন্য ভালোভালো কথা বলে তাকে বাগানে নেয়।”

তিনি বলেন, “শুনেছি টাকা ২০ হাজার ছেলে পক্ষ দিয়েছে আমাদের দিতে। কিন্তু সেই টাকা আমাদের না দিয়ে নাছির হাওলাদার ও নাছির ফকির মো. মালেক মিদ্দা, মো. নুরু মিদ্দা ও মো. নাহিদ মিদ্দা নিয়ে গেছে।”

মেয়েটি বলেন, “শাকিল আমাকে বিয়ে করবে বলে এই পর্যন্ত তিনবার শারীরিক সম্পর্ক করেছে। সর্বশেষ মঙ্গলবার সে ফোন করে আমাকে ঘর থেকে বের হয়ে বাগানে আসতে বলে। তখন আমি বাগানে আসলে নসু মাতব্বর আমাদের দুজনকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন।”

ছেলের বড় ভাই মো. শাহীন বলেন, “নাছির ফকির ও নাছির হাওলাদার, মো. মালেক মিদ্দা মো. নুরু মিদ্দা ও মো. নাহিদ মিদ্দা এই বিষয়টা কেউ না জানতে মিটমাট করে দিবে বলে আমার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা নিয়েছে। ক্লোজার বাজারে আমি তাদের ওই টাকা দিয়েছি। কিন্তু টাকা নেয়ার পর তাদের কোনো খোঁজ খবর নেই।

দালাল নাছির ফকির, নাছির হাওলাদার, মো. মালেক মিদ্দা, মো. নুরু মিদ্দা ও মো, নাহিদ মিদ্দা এই প্রতিনিধিদেরকে দেখে পালিয়ে যান। মুঠোফোনে এই দালাল গ্রুপের সাথে কথা হলে তারা ২০ হাজার টাকা ঘুষ নেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, “ভাই টাকা তো নিয়েছি, তাতে কি হইছে? তবে আপনাকে এই কথা বললো কে? আমরা দল করি কিছু তো খাবোই। এটা কোনো বিষয় না।”

এই বিষয়ে ইলিশা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ রতন দাস ও ভোলা সদর থানার ওসি মো. ছগির মিঞা বলেন, “ধর্ষক শাকিল পলাতক আছে। আমরা তাকে এখনো আটক করতে পারিনি। তবে আটকের চেষ্টা চলছে। অতি শিগগিরই ধর্ষককে আটক করা হবে।”

সংসদে ৮২৩৮ জন ঋণখেলাপির তালিকা প্রকাশ কুকুর হত্যার দায়ে আট মাসের কারাদণ্ড একুশ ফার্স্ট প্রসপেক্টাস অনুমোদন ধনী-গরিব নির্বিশেষে সুবিচার নিশ্চিতে সরকার বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী ডিএসই-সিএসইর নতুন এমডি নিয়োগের অনুমোদন বিএসইসির এশিয়া ও বিশ্ব একাদশের ম্যাচ আয়োজন করছে না ভারত অনিয়মের বিরুদ্ধে দুদকের অভিযান মানিকগঞ্জে বাসায় ঢুকে মেয়ের চোখের সামনে মাকে হত্যা নির্বাচনী গণসংযোগে হামলা: ইসির পদক্ষেপের অপেক্ষায় তাবিথ এসকে সিনহাকে হাজিরে গেজেট প্রকাশের নির্দেশ ই-পাসপোর্ট পেতে আবেদন করবেন যেভাবে চাটার্ড বিমানে রাতে পাকিস্তানে উড়াল দিচ্ছে টাইগাররা দুর্নীতি করে জনগণের হক নষ্ট করবেন না: দুদক কমিশনার চাই না, নির্বাচনে কোনো অভিযোগ ইসি পর্যন্ত গড়াক: সিইসি টাইগারদের নতুন পেস বোলিং কোচ গিবসন সব ধরনের সূচকে উত্থান নিউজিল্যান্ড সফরে ভারতের দল ঘোষণা পাকিস্তান-বাংলাদেশ ম্যাচ দিয়ে অভিষেক হচ্ছে মাদুগালের গণতন্ত্র সূচকে বাংলাদেশের ৮ ধাপ অগ্রগতি ঢাবির ৪ শিক্ষার্থীকে রাতভর পিটিয়েছে ছাত্রলীগ ফারমার্স ব্যাংকের তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চার্জশিট কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারতকে সাহায্য করতে চান ট্রাম্প বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজ শুরু পর্তুগালে সংঘর্ষে মৃত্যুর খবর সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও গুজব হাতীবান্ধা সীমান্তে দুই বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা বিএসএফের নেতাজি ও বঙ্গবন্ধুর দেশপ্রেম তরুণদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে হবে: খাদ্যমন্ত্রী সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এপিএসকে তলব বনানীতে রাস্তা পারাপারের সময় বাসের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত রাজধানীর হাজারীবাগে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ৩ শ্রমিকের মৃত্যু পলিথিনে মোড়ানো পোস্টার লাগানো কেন বেআইনী নয়