artk
শুক্রবার, সেপ্টেম্বার ২০, ২০১৯ ৮:০২   |  ৫,আশ্বিন ১৪২৬

পাবনা সংবাদদাতা

শনিবার, আগষ্ট ১৭, ২০১৯ ১০:৪৭

পুলিশি অভিযানের মধ্যেই গণপিটুনিতে নিহত ২

media

ছবি প্রতীকী

পাবনার সাঁথিয়ায় গণপিটুনিতে দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। 

শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার জোড়গাছা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার জোড়গাছা গ্রামের শাহীন ওরফে হলকা শাহীন (৪৫) এবং অজ্ঞাত ঠিকানার মাছির উদ্দিন (৩৫)।

পুলিশের ভাষ্য, তাদের মধ্যে একজন তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। আরেকজন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত।

পুলিশ বলছে, শাহীনের বিরুদ্ধে থানায় দুটি হত্যা মামলাসহ অন্তত ছয়টি মামলা রয়েছে। মাছিরের ঠিকানা জানা যায়নি। তাই তার বিরুদ্ধে মামলার সংখ্যা সম্পর্কে পুলিশ জানতে পারেনি।

পুলিশের ভাষ্য, শুক্রবার রাত ১২টার দিকে জোড়গাছা গ্রামে পুলিশের তালিকাভুক্ত কয়েকজন সন্ত্রাসী অবস্থান করছে বলে পুলিশ জানতে পারে। এসময় পুলিশের একটি দল সন্ত্রাসীদের ধরতে ঘটনাস্থলে গেলে টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালানোর চেষ্টা করে। সন্ত্রাসীদের ধরতে এলাকাবাসীও পুলিশের সঙ্গে যোগ দেয়। শত শত এলাকাবাসী এ সময় মাছির উদ্দিনকে ধরে গণপিটুনি দেয়। মাছিরের সঙ্গে থাকা তিন-চারজন কচুরিপানায় ভরা সেচখালে ঝাঁপ দেয়। সেখান থেকে এলাকাবাসী শাহীনকে ধরে গণপিটুনি দেয়। বাকিরা পালিয়ে যায়। এ সময় এলাকাবাসী ঘটনাস্থল থেকে একটি শাটারগান উদ্ধার করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।”

পুলিশ এলাকাবাসীর হাত থেকে উদ্ধার করে মাছির ও শাহীনকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে তাদের অ্যাম্বুলেন্সে করে পাবনা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ সময় তারা মারা যান।

বেড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ জিল্লুর রহমান গণপিটুনিতে দুজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, “তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী শাহীনকে দীর্ঘদিন ধরে খোঁজা হচ্ছিল। শাহীনের সঙ্গে থাকা মাছিরও সন্ত্রাসী বলে আমরা ধারণা করছি। তবে তার ঠিকানা এখনো পাইনি। তাই তার সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি। এলাকাবাসীর সহায়তায় আমরা সন্ত্রাসীদের কাছ থেকে একটি শাটারগান পেয়েছি। তবে ধারণা করছি, তাদের কাছে আরও কয়েকটি অস্ত্র ছিল। সেচখালে ঝাঁপ দেয়ার সময় তারা হয়তো সেগুলো ফেলে দিয়েছেন। আজ সেগুলো উদ্ধারের চেষ্টা চালানো হবে।”

কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতি শফিকুল র‌্যাবের হেফাজতে তারা নিজেরাই নিজেদের দুর্নীতি প্রমাণ করেছেন: মির্জা ফখরুল মাদকাসক্ত চালকদের ধরতে পরীক্ষা করা হবে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাই নজরদারিতে যাকে ধরবে তাকেই বহিষ্কার করা হবে: যুবলীগ সভাপতি খেলাঘরের জাতীয় সম্মেলন শুরু টস জিতে ব্যাটিংয়ে আফগানিস্তান ফাইনালের আগেই আফগানদের হারাতে চায় টাইগাররা ছাটাই হওয়ার আগেই ধোনির চলে যাওয়া উচিৎ: গাভাস্কার কলাবাগান ক্রীড়াচক্র ঘিরে রেখেছে র‌্যাব যুবলীগ নেতা শামীমের অফিস থেকে টাকা, মদ ও অস্ত্র জব্দ টাঙ্গাইলে ট্রাকচাপায় ভ্যানচালক নিহত দুই লাখ ইয়াবাসহ মিয়ানমারের ৮ নাগরিক আটক নোয়াখালীতে অজ্ঞাত ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার নারী অঙ্গের ভ্রান্তি দূর করতে 'যোনি জাদুঘর' প্রেমপত্র পোড়াতে গিয়ে পুড়লো বাড়ি বিএনপি ক্যাসিনোর শহর বানিয়েছিল: কাদের ঠাকুরগাঁও সীমান্তে বাংলাদেশিকে পিটিয়ে মারলো বিএসএফ রাজশাহীর বড়াল নদী থেকে নারীসহ ৪ লাশ উদ্ধার বাংলা ভালো থাকলে গোটা ভারত ভালো থাকবে, এনআরসি প্রসঙ্গে মমতা বাবা হয়েছেন ভিপি নুর নিজ অঞ্চল থেকে ৭শ কিলোমিটার দূরের কারাগারে রাখা হয়েছে কাশ্মীরি বন্দিদের ওয়াশিংটনে বন্দুক হামলায় নিহত ১ ‘গরিবের ছেলের এমন অসুখ হলে বাঁচবে কীভাবে’ ডিজিটাল বাংলাদেশের দ্বিতীয় পর্যায় কক্সবাজারে সিএনজি-লেগুনা সংঘর্ষে মা-ছেলে নিহত কক্সবাজারে ব্র্যাক কর্মী খুন খুলনায় ডেঙ্গু জ্বরে গৃহবধূর মৃত্যু গোপন কুঠুরিতে ৩৩ লাখ টাকা রেখে মারা গেছেন বিআরটিএর কর্মকর্তা বিপর্যয়ের মুখে জাতিসংঘ সফর বাতিল করেছেন নেতানিয়াহু