artk
শুক্রবার, আগষ্ট ২৩, ২০১৯ ৬:২৯   |  ৮,ভাদ্র ১৪২৬

নাইম আবদুল্লাহ

বৃহস্পতিবার, আগষ্ট ১, ২০১৯ ৮:৩৫

সিডনিতে দেশীয় সাংবাদিকতা: একটি সামাজিক আন্দোলন

media

পূর্ব প্রকাশের পর

সিডনিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের বসবাস পঞ্চাশ বছরেরও বেশি সময় ধরে। তার মধ্যে বিগত ২০ বছরে আমাদের জনসংখ্যা বেড়েছে বেশি। নুতন প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা বড় হয়েছে, লেখাপড়া শেষ করে সম্মানজনক অবস্থানে রয়েছে।  বাবা-মায়েরা কেউ কেউ ছোটাছুটি করে তাদের বিয়েসাদি দেশে দিচ্ছেন কিংবা এখানেই ব্যবস্থা করছেন। আবার কেউ কেউ পছন্দমত দেশীয় অথবা বিদেশি বিয়ে করছে।

কিন্তু সত্যিকার অর্থে অনেক বিয়েই টিকছে না। সেটা দেশেই হোক কিংবা এখানে হোক, নিজেদের পছন্দ মতো কিংবা বাবা-মায়ের পছন্দেই হোক। তাদের বাবা-মায়েরা চরম হতাশায় দিন কাটাচ্ছেন। সামাজিক সচেতনতা, নিজেদের মধ্যে মানিয়ে নেয়া, পরস্পরকে বুঝতে না পারা ইত্যাদি কারণগুলিই দায়ী হতে পারে।

এখানে আমরা সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় সচেতনতায় অনেক কিছুই করছি। কিন্তু নুতন প্রজন্মের সংসার টিকিয়ে রাখার জন্য সামাজিকভাবে কোন পদক্ষেপের কথা চিন্তা করা যায় কিনা?

সিডনিতে আমাদের অনেক অর্জন আছে। আছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষার স্মৃতিসৌধ, আছে জাতির জনকের আবক্ষ মূর্তি, আছে মসজিদ ও কবরখানা। কিন্তু কমিউনিটি একটি সেন্টারের এখন বড় প্রয়োজন। একটি নাটকের পাঠশালা যদি করা যেত? বাচ্চাদের নাচ ও গানের ছোট ছোট স্কুল বিভিন্ন বাসায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। এগুলো যদি একই সুতোই গাঁথা যেত? বাংলা ভাষার স্কুলগুলো শিক্ষার্থীর অভাবে বন্ধ হতে বসেছে। এগুলোকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য সামাজিক আন্দোলন কি অত্যাবশ্যক না?

এখানে দেশীয় শিল্প সাংস্কৃতির চর্চার বিকাশে স্থানীয়ভাবে কিছু গানের দল গড়ে উঠেছে আবার কেউ কেউ এককভাবে গাইছেন। তাদের নিয়ে সাংস্কৃতিক আয়োজন করলে দর্শক শ্রোতাদের কমতি হবে না। বড় লাভ যেটা হবে তা হলো, নুতন প্রজন্ম উৎসাহিত হবে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, যদি কারো বাবা-মা এখানে গান গেয়ে মঞ্চে হাততালি পায় তাহলে তাদের ছেলেমেয়েরা বাংলা গান কিংবা নাচ করতে বেশি উৎসাহিত হবে।

দেশীয় রাজনীতি আমাদের মজ্জার সাথে মিশে আছে। আমরা সবাই কর্মী, সমর্থক এবং আদর্শে বিশ্বাসী। কিন্তু এদেশীও মুলধারার রাজনীতিতে আরও বেশি সম্পৃক্ততা দরকার। দরকার নুতন প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধ করা।

স্থানীয় অনেক পত্রিকার মুদ্রণ অনিয়মিত কিংবা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। পত্রিকাগুলোর পুনর্বাসনের জন্য কিছু করা যায় কিনা? সিডনি জুড়ে সাড়া বছর অনেক আয়োজন চলছে। এগুলোর খবর অনলাইন, সোশ্যাল মিডিয়া ও প্রিন্ট মাধ্যমে গেলেও টেলিভিশনে প্রচারিত হওয়ার তেমন সুযোগ নেই। পৃথিবীর অন্যান্য দেশগুলোর মতো যদি এখানেও স্যাটেলাইট টেলিভিশন চালু করা যায়?

প্রত্যাশা তো আমাদেরই থাকবে, স্বপ্ন তো আমাদের চোখে রঙ ছড়াবে। সামাজিক আন্দোলন বোধকরি বাস্তবের পথ চলা শেখাবে। (চলবে)

লেখক: সিডনি প্রবাসী সাংবাদিক।

বিয়ের গেটেই বরের মাথা ফাটালো কনেপক্ষ রাখাইনে প্রবেশাধিকার চায় ইউএনএইচসিআর-ইউএনডিপি ১৫ ও ২১ আগস্ট নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য: মাউশি পরিচালক ওএসডি থানা থেকে পুলিশের জব্দ করা মোটরসাইকেল চুরি ৫ দিনের রিমান্ডে ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী কাশ্মিরে জুমার নামাজের পর কারফিউ ভাঙার ডাক বাজারের ব্যাগে ৫ কোটি টাকার হেরোইন! প্রাথমিকে আরো ২০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ সাব-রেজিস্ট্রার অফিসকে ভূমি মন্ত্রণালয়ের অধীনে আনার সুপারিশ দেড় বছর ধরে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসেন না ডাক্তার জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে রেড অ্যালার্ট জারির উদ্যোগ পরমাণু বোমা আমরা এমনি এমনি রাখিনি: জাভেদ মিয়াঁদাদ কলকাতায় বাংলাদেশির মৃত্যু: আরসালান নয় চালক ছিলেন বড় ভাই রাগিব রাজধানীসহ দেশের ৬ স্থানে দুদকের অভিযান ভারতের সবচেয়ে ধনী অভিনেতা অক্ষয় কুমার! শুরুতেই ফিটনেসে মনোযোগী বাংলাদেশি কোচ কেমন আছেন মিয়ানমারের মুসলমান নাগরিকেরা? বেশি নম্বর দেয়ার কথা বলে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, শিক্ষক বরখাস্ত উপহাসকারী রিজভীদেরও বিচার হওয়া উচিত: তথ্যমন্ত্রী ডা. জাফরুল্লাহসহ ৭৬ জনের বিরুদ্ধে আ.লীগ নেতার মামলা ওজনে কারচুপি: ২ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বিএসটিআইয়ের মামলা বজ্রপাতে ৫ জেলায় ৯ জনের মৃত্যু যাত্রাবাড়ীতে বাসের ধাক্কায় বাবা নিহত, ছেলে আহত তিন বিচারপতির বিষয়ে অনুসন্ধান অন্যদের জন্য বার্তা রোহিঙ্গাদের থাকতে প্ররোচনা দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী পুঁজিবাজারে সূচকের উত্থান বিচার বিভাগের অনেকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আছে: খোকন ভুল চিকিৎসা: ঢাবি শিক্ষার্থীকে ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ নয় কেন অনুসন্ধানে ব্যর্থরা অন্য প্রতিষ্ঠানে কাজ করুন: দুদক চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ফরমায়েশি সাজা দেয়া হয়েছে: রিজভী