artk
সোমবার, অক্টোবার ২১, ২০১৯ ১১:১০   |  ৬,কার্তিক ১৪২৬

নাইম আবদুল্লাহ

বৃহস্পতিবার, আগষ্ট ১, ২০১৯ ৮:৩৫

সিডনিতে দেশীয় সাংবাদিকতা: একটি সামাজিক আন্দোলন

media

পূর্ব প্রকাশের পর

সিডনিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের বসবাস পঞ্চাশ বছরেরও বেশি সময় ধরে। তার মধ্যে বিগত ২০ বছরে আমাদের জনসংখ্যা বেড়েছে বেশি। নুতন প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা বড় হয়েছে, লেখাপড়া শেষ করে সম্মানজনক অবস্থানে রয়েছে।  বাবা-মায়েরা কেউ কেউ ছোটাছুটি করে তাদের বিয়েসাদি দেশে দিচ্ছেন কিংবা এখানেই ব্যবস্থা করছেন। আবার কেউ কেউ পছন্দমত দেশীয় অথবা বিদেশি বিয়ে করছে।

কিন্তু সত্যিকার অর্থে অনেক বিয়েই টিকছে না। সেটা দেশেই হোক কিংবা এখানে হোক, নিজেদের পছন্দ মতো কিংবা বাবা-মায়ের পছন্দেই হোক। তাদের বাবা-মায়েরা চরম হতাশায় দিন কাটাচ্ছেন। সামাজিক সচেতনতা, নিজেদের মধ্যে মানিয়ে নেয়া, পরস্পরকে বুঝতে না পারা ইত্যাদি কারণগুলিই দায়ী হতে পারে।

এখানে আমরা সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় সচেতনতায় অনেক কিছুই করছি। কিন্তু নুতন প্রজন্মের সংসার টিকিয়ে রাখার জন্য সামাজিকভাবে কোন পদক্ষেপের কথা চিন্তা করা যায় কিনা?

সিডনিতে আমাদের অনেক অর্জন আছে। আছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষার স্মৃতিসৌধ, আছে জাতির জনকের আবক্ষ মূর্তি, আছে মসজিদ ও কবরখানা। কিন্তু কমিউনিটি একটি সেন্টারের এখন বড় প্রয়োজন। একটি নাটকের পাঠশালা যদি করা যেত? বাচ্চাদের নাচ ও গানের ছোট ছোট স্কুল বিভিন্ন বাসায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। এগুলো যদি একই সুতোই গাঁথা যেত? বাংলা ভাষার স্কুলগুলো শিক্ষার্থীর অভাবে বন্ধ হতে বসেছে। এগুলোকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য সামাজিক আন্দোলন কি অত্যাবশ্যক না?

এখানে দেশীয় শিল্প সাংস্কৃতির চর্চার বিকাশে স্থানীয়ভাবে কিছু গানের দল গড়ে উঠেছে আবার কেউ কেউ এককভাবে গাইছেন। তাদের নিয়ে সাংস্কৃতিক আয়োজন করলে দর্শক শ্রোতাদের কমতি হবে না। বড় লাভ যেটা হবে তা হলো, নুতন প্রজন্ম উৎসাহিত হবে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, যদি কারো বাবা-মা এখানে গান গেয়ে মঞ্চে হাততালি পায় তাহলে তাদের ছেলেমেয়েরা বাংলা গান কিংবা নাচ করতে বেশি উৎসাহিত হবে।

দেশীয় রাজনীতি আমাদের মজ্জার সাথে মিশে আছে। আমরা সবাই কর্মী, সমর্থক এবং আদর্শে বিশ্বাসী। কিন্তু এদেশীও মুলধারার রাজনীতিতে আরও বেশি সম্পৃক্ততা দরকার। দরকার নুতন প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধ করা।

স্থানীয় অনেক পত্রিকার মুদ্রণ অনিয়মিত কিংবা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। পত্রিকাগুলোর পুনর্বাসনের জন্য কিছু করা যায় কিনা? সিডনি জুড়ে সাড়া বছর অনেক আয়োজন চলছে। এগুলোর খবর অনলাইন, সোশ্যাল মিডিয়া ও প্রিন্ট মাধ্যমে গেলেও টেলিভিশনে প্রচারিত হওয়ার তেমন সুযোগ নেই। পৃথিবীর অন্যান্য দেশগুলোর মতো যদি এখানেও স্যাটেলাইট টেলিভিশন চালু করা যায়?

প্রত্যাশা তো আমাদেরই থাকবে, স্বপ্ন তো আমাদের চোখে রঙ ছড়াবে। সামাজিক আন্দোলন বোধকরি বাস্তবের পথ চলা শেখাবে। (চলবে)

লেখক: সিডনি প্রবাসী সাংবাদিক।

‘দেবী চৌধুরাণী’র পর ‘কপালকুণ্ডলা’ পাকিস্তানে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৯ জনের মৃত্যু মানুষের কঙ্কালে সাজানো এক গির্জা! অবশেষে মা পেল হাসপাতালের সেই শিশুটি বোমা সন্দেহে ঘিরে রাখা লাগেজে পাওয়া গেলো খণ্ডিত লাশ রাজধানীতে সক্রিয় ৪ জঙ্গি সদস্য আটক সিরিয়ার বড় ঘাঁটি ছাড়লো যুক্তরাষ্ট্র সারাদিন কম্পিউটারে কাজ করেন? চোখের যত্ন নেবেন কী ভাবে? জুয়ার বোর্ডে একদিনেই সম্রাট খুইয়েছেন ৪৫ কোটি টাকা! বিকেলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা খুলনাগামী ট্রেন চলে গেল রাজশাহীর পথে ভোলায় মুসলিম ঐক্য পরিষদের সমাবেশ স্থগিত মালদ্বীপকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের পক্ষে কথা বলায় মোদির তুরস্ক সফর বাতিল স্কুল ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি, শিক্ষক গ্রেপ্তার বেয়াইয়ের মুখে প্রস্রাবের হুমকি বেয়াইনের! লক্ষ্মীপুরে ছাত্রলীগে নেতার ওপর হামলা কাউন্সিলর রাজীব ১৪ দিনের রিমান্ডে মেনন প্রমাণ করেছেন বর্তমান সরকার ‘অবৈধ’: রিজভী ভোলায় ফেসবুক আইডি হ্যাক করে গুজব ছড়ানো হয়েছে: শেখ হাসিনা যুবলীগের নেতৃত্বে ৫৫ বছরের বেশি নয় ভোলায় সহিংসতার জের: চট্টগ্রাম হাটহাজারী থানায় মাদরাসাছাত্রদের হামলা যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী বহিষ্কার চেয়ারম্যান ফারুকসহ শীর্ষ পাঁচ নেতা ছাড়াই বৈঠকে যুবলীগ কাশ্মীর সীমান্তে ভারত-পাকিস্তান গোলাগুলি: নিহত ৯ সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে হাই কোর্টে তলব ২৩৮ কোটি টাকা সংগ্রহে ওমেরা পেট্রোলিয়ামের রোড শো প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাচ্ছে গাল্লিবয় রানা-তবীব পরীক্ষায় জালিয়াতি: সাংসদ বুবলির রেজিস্ট্রেশন বাতিল ভোলায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিজিবি