artk
শুক্রবার, সেপ্টেম্বার ২০, ২০১৯ ৮:১৯   |  ৫,আশ্বিন ১৪২৬
মঙ্গলবার, জুলাই ৩০, ২০১৯ ৬:৫৪

ইবনে সিনার মামলা তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার
media

ডেঙ্গু জ্বরের পরীক্ষা নিয়ে রাজধানীর ধানমন্ডিতে অবস্থিত ইবনে সিনা হাসপাতালে প্রতারণার অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলা তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

ডেঙ্গু জ্বরের পরীক্ষা নিয়ে রাজধানীর ধানমন্ডিতে অবস্থিত ইবনে সিনা হাসপাতালে প্রতারণার অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলা তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম দিদার হোসেন এ নির্দেশ দিয়েছেন।

আজ সকালেই ঢাকা মহানগর হাকিম দিদার হোসেনের আদালতে ঢাকা বারের আইনজীবী রমজান আলী সরদার মামলাটি করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

মামলায় আসামি করা হয়েছে- ইবনে সিনা হাসপাতালের (ধানমন্ডি শাখা) চেয়ারম্যান, ইবনে সিনা গ্রুপের চেয়ারম্যান, ইবনে সিনা ডায়াগনোস্টিক অ্যান্ড ইমেজিং সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং কনসালট্যান্ট (হেমাটোলজিস্ট) প্রফেসর কর্নেল (অব.) মো. মনিরুজ্জামানকে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, গত ২৫ জুলাই কোর্টের কাজ শেষে চেম্বারে অবস্থানকালীন শরীরে জ্বর অনুভব করেন বাদী। পরে সহকর্মী অ্যাডভোকেট জাফর আহমেদ সুমনকে নিয়ে জ্বর পরীক্ষা করতে ধানমন্ডি ইবনে সিনা হাসপাতালে যান। আউটডোরে পরামর্শ করা হলে তারা ডেঙ্গু জ্বরের ভয়াবহতা বিবেচনা করে ডেঙ্গু এনএসআই এজ এবং সিবিসি পরীক্ষা করার পরামর্শ দেন। নির্ধারিত ফি দিয়ে রক্তের নমুনা প্রদান করা হলে তারা পরের দিন রিপোর্ট সংগ্রহ করতে বলেন।

তিনি বলেন, পরের দিন সন্ধ্যা ৬টার দিকে রিপোর্ট সংগ্রহ করে দেখতে পাই রক্তের প্লাটিলেট লেভেল সাত লাখ ৮৪ হাজার সিএমএম। রিপোর্ট দেখে আমি আতঙ্কিত ও বিমর্ষ হয়ে পড়লে সহকর্মী জাফর আমাকে সান্ত্বনা দেন এবং অন্য আরেকটি ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে একই পরীক্ষা করার প্রস্তাব দেন। সন্ধ্যা ৭টার দিকে পার্শ্ববর্তী বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রক্তের প্লাটিলেট লেভেল পরীক্ষার ফি জমা দিয়ে রক্তের নমুনা দেই। রাত সাড়ে ৯টার দিকে রিপোর্ট দিলে দেখা যায় রক্তের প্লাটিলেট লেভেল দুই লাখ। যা সুস্থ এবং স্বাভাবিক মানুষের শরীরে বিদ্যমান।

আইনজীবী আরও বলেন, একজন সুস্থ মানুষের রক্তের প্লাটিলেট লেভেল দেড় থেকে সাড়ে চার লাখ। কিন্তু তাদের রিপোর্টে রক্তের প্লাটিলেট লেভেল সাত লাখ ৮৪ হাজার দেখায়। যা কোনো সুস্থ মানুষের ক্ষেত্রে হতে পারে না। ওই হাসপাতাল আমার সরলতা এবং অসুস্থতাকে পুঁজি করে শারীরিক, মানসিক, আর্থিক এবং সামাজিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে।

আইনজীবী রমজান আলী সরদার বলেন, ইবনে সিনা ডায়াগনোস্টিক অ্যান্ড ইমেজিং সেন্টার ও প্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত দায়িত্বশীল ব্যক্তিবর্গ অবৈধভাবে লাভবান হওয়ার জন্য ভুল রিপোর্ট প্রদান করে বাংলাদেশ দণ্ডবিধির ২৬৯/২৭০/৪০৬ ধারায় অপরাধ করেছে। তাই তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করার আবেদন করছি।

গেন্ডারিয়া থেকে আটক ৩ মাদক ব্যবসায়ী কারাগারে কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতি শফিকুল র‌্যাবের হেফাজতে তারা নিজেরাই নিজেদের দুর্নীতি প্রমাণ করেছেন: মির্জা ফখরুল মাদকাসক্ত চালকদের ধরতে পরীক্ষা করা হবে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাই নজরদারিতে যাকে ধরবে তাকেই বহিষ্কার করা হবে: যুবলীগ সভাপতি খেলাঘরের জাতীয় সম্মেলন শুরু টস জিতে ব্যাটিংয়ে আফগানিস্তান ফাইনালের আগেই আফগানদের হারাতে চায় টাইগাররা ছাটাই হওয়ার আগেই ধোনির চলে যাওয়া উচিৎ: গাভাস্কার কলাবাগান ক্রীড়াচক্র ঘিরে রেখেছে র‌্যাব যুবলীগ নেতা শামীমের অফিস থেকে টাকা, মদ ও অস্ত্র জব্দ টাঙ্গাইলে ট্রাকচাপায় ভ্যানচালক নিহত দুই লাখ ইয়াবাসহ মিয়ানমারের ৮ নাগরিক আটক নোয়াখালীতে অজ্ঞাত ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার নারী অঙ্গের ভ্রান্তি দূর করতে 'যোনি জাদুঘর' প্রেমপত্র পোড়াতে গিয়ে পুড়লো বাড়ি বিএনপি ক্যাসিনোর শহর বানিয়েছিল: কাদের ঠাকুরগাঁও সীমান্তে বাংলাদেশিকে পিটিয়ে মারলো বিএসএফ রাজশাহীর বড়াল নদী থেকে নারীসহ ৪ লাশ উদ্ধার বাংলা ভালো থাকলে গোটা ভারত ভালো থাকবে, এনআরসি প্রসঙ্গে মমতা বাবা হয়েছেন ভিপি নুর নিজ অঞ্চল থেকে ৭শ কিলোমিটার দূরের কারাগারে রাখা হয়েছে কাশ্মীরি বন্দিদের ওয়াশিংটনে বন্দুক হামলায় নিহত ১ ‘গরিবের ছেলের এমন অসুখ হলে বাঁচবে কীভাবে’ ডিজিটাল বাংলাদেশের দ্বিতীয় পর্যায় কক্সবাজারে সিএনজি-লেগুনা সংঘর্ষে মা-ছেলে নিহত কক্সবাজারে ব্র্যাক কর্মী খুন খুলনায় ডেঙ্গু জ্বরে গৃহবধূর মৃত্যু গোপন কুঠুরিতে ৩৩ লাখ টাকা রেখে মারা গেছেন বিআরটিএর কর্মকর্তা