artk
সোমবার, আগষ্ট ২৬, ২০১৯ ১০:৩৩   |  ১১,ভাদ্র ১৪২৬
শনিবার, জুলাই ২০, ২০১৯ ১০:৩৩

যমুনা সার কারখানার বর্জ্যে বিলের মাছ মরে ভেসে উঠেছে

জামালপুর সংবাদদাতা
media
‘যমুনা সার কারখানার সার যেখানে-সেখানে ফেলে রাখায় সেগুলো পচে ও কারখানার অন্যান্য বিষাক্ত বর্জ্য বিলের পানিতে মিশে সব মাছ মরে গেছে।’

তারাকান্দির যমুনা সার কারখানার সার পচে ও বিষাক্ত বর্জ্য পানিতে মিশে একটি বিলের প্রায় ৫০ থেকে ৬০ লাখ টাকার মাছ মরে ভেসে উঠেছে।

সরিষাবাড়ী উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের চরপাড়া খুটামারা বিলে এ ক্ষতি হয় বলে ভুক্তভোগীরা জানান।

এলাকাবাসী জানান, চরপাড়া গ্রামের ৩০ জন্য সদস্য মিলে চরপাড়া মৎস্য প্রকল্প নামে একটি সমিতি গঠন করেন। ২০১৭ সালের ১ জানুয়ারি ১০ লাখ টাকা বিনিয়োগ করে খুটামারা বিলের ৬০ একর জমিতে তারা বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ শুরু করেন।

প্রকল্পের সদস্য ময়নাল হোসেন জানান, ‘মাছগুলোর বর্তমান বাজারমূল্য ছিল প্রায় ৫০ থেকে ৬০ লাখ টাকা। কিন্তু ১৪ জুলাই থেকে বিলের সব মাছ মরতে শুরু করেছে। বিলে রুই, কাতলা, চিতল, বোয়াল, কই, মাগুর, সিলভার ও কার্প জাতীয় মাছসহ প্রায় ৩০ প্রজাতির মাছ ছিল। সব মাছ মরে ভেসে উঠায় বিনিয়োগকারীরা এখন পথে বসেছেন।’

মাছচাষী আব্দুল আজিজ ও মোজাফ্ফর হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ‘যমুনা সার কারখানার সার যেখানে-সেখানে ফেলে রাখায় সেগুলো পচে ও কারখানার অন্যান্য বিষাক্ত বর্জ্য বিলের পানিতে মিশে সব মাছ মরে গেছে।’

জানা গেছে, দৈনিক এক হাজার ৮০০ মেট্রিকটন ইউরিয়া উৎপাদনে সক্ষম যমুনা সার কারখানা ১৯৯১ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকেই কারখানার বিষাক্ত বর্জ্য ও অ্যামোনিয়া গ্যাস সরাসরি বাতাস, মাটি ও পানিতে ছাড়া হয়। এতে কারখানার পাশের বিল ও পুকুরগুলোর মাছ প্রায়ই মরে যায়। এছাড়া জমির ফসল ও গাছপালার ক্ষতিসহ অন্তত দশটি গ্রামের অনেক মানুষ ফুসফুসের সমস্যায় ভুগছেন।

এদিকে সম্প্রতি কারখানা ও বাফার গুদামে হাজার হাজার মেট্রিকটন সার নির্ধারিত গুদামে সংরক্ষণ না করে খোলা আকাশের নিচে জমা করে ফেলে রাখা হয়েছে। সেই সারগুলো বৃষ্টিতে ভিজে নষ্ট হচ্ছে এবং তা খুটামারা বিলের পানিতে মিশে মাছ মরে ভেসে উঠেছে। এতে সাধারণ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হলেও কারখানা কর্তৃপক্ষ কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

এ ব্যাপারে যমুনা সার কারখানার উপ-মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) মঈনুল হক বলেন, ‘যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তারা আবেদন করলে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে।’

ক্যাটরিনা পেঁয়াজের মতো বহু স্তর : রণবীর ডিসির পিয়ন প্রেমিকা সাধনা সম্পর্কে যা জানা গেল অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে যুব মহিলালীগ নেত্রীসহ আটক ১৯ ‘আবুল মালের অনৈতিক সুবিধা চাপা দেয়ার জন্য আমার চিঠি ভাইরাল’ বাসচাপায় পোশাক শ্রমিক নিহত, বাসে আগুন সত্যকে এড়ানোর উপায় নেই: কাদের শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য বন্ধে কমিটি হচ্ছে বিদ্যালয়ে বিশ্বের সবচেয়ে দামি অভিনেত্রী স্কারলেট বিএনপি নেতা-কর্মীদের খুন করেছে আ.লীগ: ফখরুল যেভাবে চিনবেন ভালো সিমেন্ট ডেঙ্গুর যাতনা ভুলতেই পারছি না: অর্থমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করার অভিযোগে সোনাইমুড়ির মেয়র বরখাস্ত কানে এয়ারফোন, ট্রেনের ধাক্কায় প্রাণ গেলো তরুণের সোনার বাংলা বিনির্মাণে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে: অর্থমন্ত্রী কাবিননামায় ‘কুমারী’ শব্দ বাদ দেয়ার নির্দেশ খেলাপি ঋণ কমার সুযোগ নেই স্টোকসের হেলমেট ভাঙলেন হ্যাজলউড শতকোটি টাকা আত্মসাতে ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী রশিদ খানের হুঙ্কার! দক্ষ জনশক্তির প্রয়োজনে ২ প্রতিষ্ঠান রাতের আঁধারে জামালপুর ছাড়লেন সেই ডিসি শ্রীলঙ্কাকে ৭-১ গোলে গুড়িয়ে দিলো বাংলাদেশের কিশোররা রোগীর ওপর খসে পড়ল হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা রাজাকারদের তালিকা সংগ্রহ করছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিজেদেরই এগিয়ে রাখছেন মিরাজ দুদকের কাছে ৩ মাসের সময় চেয়েছেন নূর আলী পৃথিবী ধ্বংসে মেতেছেন ট্রাম্প আর বোলসোনারো আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য সেবা কার্ড নিয়ে এলো ‘মেডিএইডার’ পদ্মায় ১৬০ টন সিমেন্টসহ কার্গো ডুবি