artk

নিউজ ডেস্ক

সোমবার, জুলাই ১৫, ২০১৯ ১০:১৯

বিদিশাও বললেন, তাই যেন হয়

media

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মরদেহ রংপুরে দাফনের সব প্রস্তুতি নিয়েছেন সেখানকার নেতাকর্মীরা। তারা যে কোনো মূল্যে এরশাদকে রংপুরের মাটিতেই রাখতে চান।

এরশাদের জানাজা সম্পন্ন করতে কালেক্টর ঈদগাহ ময়দানে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। আর তার দাফন কার্য সম্পন্ন করতে পল্লী নিবাস বাসভবনের পার্শ্বে তার নিজ হাতে গড়া লিচু বাগানে কবরও খোঁড়া হয়েছে।  তার মরদেহ ঢাকায় ফিরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করা হলে শক্ত হাতে প্রতিহত করার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন তারা। 

এরশাদের দাফন নিয়ে মুখ খুলেছেন তার সাবেক স্ত্রী বিদিশা। তিনিও চান এরশাদের কবর যেন রংপুরের মাটিতেই হয়। বর্তমানে দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে তিনি নিজের এ ইচ্ছার কথা প্রকাশ করেছেন। 

বিদিশিার স্ট্যাটাস:

“তাই যেনো হয়,

আমিও তাই চাই লক্ষ লক্ষ নেতা কর্মীদের মতো রংপুরের মাটি যেনো হয় এরশাদের শেষ ঠিকানা। সহধর্মীনী থাকতে বহুবার পল্লী নিবাসে বারান্দায় ছেলে এরিককে কোলে বসিয়ে উনি আমাকে বলেছিলেন, তুমি আমার ছোট, দেখ আমার মৃত্যুও যেন আমার ছেলের কাছে থেকে দূরে না রাখে। আমার কবর আমি এই পল্লী নিবাসে চাই। রংপুরের মানুষের ভালোবাসা প্রতিদান আমি দিতে পারিনি আজও। রংপুরের মানুষ আমার কবরে এসে দোয়া করবে এটাই আমার চাওয়া। প্রতিবার এই কথাটি বলতেন তিনি এরিকের দিকে তাকিয়ে, ভিজে চোখে।

আজ সদ্য বাবা হারা ছেলে আমার মায়ের আশ্রয়েও নেই। এরিকের চোখের পানিতে পাথরও গলে যায় কিন্তু গলে না রাজনীতিবিদদের মন।

আমার ছেলে এরিককে আটকিয়ে রাজনীতির কোন ফায়দা লুটবেন এনারা?”

দেড় দশক আগে বিদিশার সঙ্গে এরশাদের বিয়ে হয়। তাদের একমাত্র ছেলে শাহতা জারাব (এরিক এরশাদ)। বিয়ের কয়েক বছরের মধ্যে এরশাদ ও বিদিশার বিচ্ছেদ ঘটে।

রোববার সকাল পৌনে ৮টায় ঢাকার সিএমএইচ হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। গত ১০ দিন ধরে এই হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন তিনি। 

গত ৪ জুলাই থেকে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন এরশাদ। তিনি রক্তের রোগ মাইলোডিসপ্লাস্টিক সিনড্রোমে ভুগছিলেন। তার আগে গত ২২ জুন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে সিএমএইচে নেওয়া হয়।

চীনের ভাইরাস ঠেকাতে শাহজালালে সর্বোচ্চ সতর্কতা শ্রীলংকায় গৃহযুদ্ধে নিখোঁজ সবাই নিহত: প্রেসিডেন্ট অভিশংসনের মামলায় ট্রাম্পের খালাস দাবি রাজধানীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত সমুদ্র পথে মালয়েশিয়াগামী ২৩ রোহিঙ্গা উদ্ধার বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসের কাছে ৩ দফা রকেট হামলা রাজধানীতে পুলিশের মারধরের শিকার দুই সাংবাদিক মেয়েকে হত্যার দায়ে বাবা গ্রেপ্তার রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আমরা সহায়তা দিতে প্রস্তুত: জাপানের রাষ্ট্রদূত চাঁদপুরে ৪ টি ইটভাটা গুড়িয়ে ৪৪ লাখ টাকা জরিমানা আদনান সামির নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন রাজা মুরাদের স্কাউটরাই জাতির পিতার স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে নেতৃত্ব দেবে: রাষ্ট্রপতি চীনে ভাইরাস: শাহজালাল বিমানবন্দরে বিশেষ সতর্কতা বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম মানব ‘নিওন’ খান টোবকোর সত্বাধিকারী সহ ২ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট বাবার সাথে অভিমান কিশোরীর আত্মহত্যা ওয়েট অ্যান্ড সি: সাঈদ খোকনের ব্যাপারে দুদক চেয়ারম্যান আগামীতে আইসিসির সব আয়োজনে বিড করবে বাংলাদেশ: পাপন যশোরে ৯৪টি সোনার বারসহ ৩ যুবক আটক ১৯ সদস্যের প্রাথমিক টেস্ট দল ঘোষণা পাকিস্তানের পুঁজিবাজারে সূচক উত্থান ৯ মাসে যানজট নিরসন করতে দেখিনি, ৩ মাসে কি করবেন: আতিকুলকে তাবিথ নির্বাচনকে বিএনপি তাদের নেত্রীকে মুক্ত করার আন্দোলন মনে করছে: তাপস ইনিংস ব্যবধানে হারের আগে মহারাজের লড়াই দলের প্রয়োজনে জ্বলে উঠতে প্রস্তুত শান্ত সিঙ্গেল ডিজিটে সুদের ঋণ হলে বিনিয়োগ বাড়বে: ডিসিসিআই সভাপতি যুব বিশ্বকাপ: অচেনা স্কটল্যান্ডকেও হারাতে মরিয়া যুবটাইগাররা ব্রিজে ছবি তুলতে গিয়ে ধসে পড়ে নিহত ৯ আচরণবিধি বিধি লঙ্ঘন ঠেকানো না হলে জনগণের আস্থার সঙ্কট হবে: মাহবুব ইনজামাম-ধোনিকে টপকে গেলেন কোহলি