artk
শনিবার, ডিসেম্বার ৭, ২০১৯ ৩:৩২   |  ২২,অগ্রহায়ণ ১৪২৬
রোববার, জুলাই ৭, ২০১৯ ১১:০৩

সিডনিতে দেশীয় সাংবাদিকতা: একটি সামাজিক আন্দোলন

নাইম আবদুল্লাহ
media
সমস্যা বোধ করি নতুন লেখকদের নিরুৎসাহিত করা। তাহলে তো আর পুরনো লেখকদের খদ্দরের পাঞ্জাবি আর কাপড়ের ব্যাগের কোন চল থাকবে না।

পূর্ব প্রকাশের পর: সিডনিতে এখন প্রায় সবাই পড়াশুনা করে। আমি বুঝাতে চাইছি পাঠক সংখ্যা বেড়ে চলেছে। অনেক পাঠক পড়তে পড়তে লিখতে শুরু করেছে। তারা লজ্জা বা পাছে লোকে কিছু বলে কিংবা সমালোচনার বেড়াজাল ডিঙ্গিয়ে বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। এটা সামাজিক আন্দোলনের একটি অন্যতম সুফল।

কেউ কেউ বলছেন, লেখকদের চেয়ে পাঠকরাই বেশি কলাম লিখছেন। তাই নামী দামি লেখকরা লিখতে বিব্রত বোধ করছেন। নামী দামি লেখকদের বরং পাঠক কিংবা নবীন লেখকদের জন্য বেশি বেশি লিখে উৎসাহিত করা উচিত। লেখক প্লাটফর্মের এই দাম্ভিকতার কারণেই গত একযুগ সিডনিতে লেখালেখির চর্চা মুখ থুবড়ে পড়েছিল। যখন আবার পালে বাতাস পেলো তখন আবারো নবীনদের থামিয়ে দেওয়ার পাঁয়তারা চলছে।

আমি মনে করি লেখালেখি কিংবা মনের ভাব প্রকাশ করা কোন ব্যাকরণ বই নয় যে ণত্ব বিধান সত্ত্ব বিধান কিংবা পাগুটাদীপতি মেনে চলতে হবে। আর যারা পুরানো লেখক বলে দাবি করছেন তাদের লেখায়ও কোন ব্যাকরণ কপচা নেই। তাহলে সমস্যা কোথায়?

সমস্যা বোধ করি নতুন লেখকদের নিরুৎসাহিত করা। তাহলে তো আর পুরনো লেখকদের খদ্দরের পাঞ্জাবি আর কাপড়ের ব্যাগের কোন চল থাকবে না।

লেখক কবিরা লিখবেন, দেশে গিয়ে বইমেলায় বই প্রকাশ করবেন অটোগ্রাফ দিয়ে সেই ছবি ফেজবুকে পোস্ট করবেন তারপর সিডনিতে এসে বইমেলায় বই বিক্রি করে প্রতিষ্ঠিত লেখক হিসেবে জাহির করবেন। তাতে কারও কোন আপত্তি নাই। কিন্তু তাতে সিডনিতে নতুন প্রজন্ম কতটুকু উপকৃত হবে? সাহিত্য চর্চা নতুন পাঠক কিংবা লেখক তৈরিতে কতটুকু অবদান রাখবে?

আমি কোন লেখক কিংবা কবি নই। আমি সিডনিতে দেশীয় সাংবাদিকতা ও সামাজিক আন্দোলনে আরও অনেকের মতো একজন সাধারণ কর্মী মাত্র। আমাকে যদি কেউ জিজ্ঞেস করে আচ্ছা ভাই আপনি নতুন পাঠক কিংবা লেখক তৈরিতে কিভাবে কাজ করছেন? আমি গর্ব করে নাম ঠিকানাসহ তাদের কথা বলতে পারবো।

কিছুদিন আগে আমার এক পরিচিত শুভাকাঙ্ক্ষি একটি প্লাটফর্মে লেখা দেবার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। আমি তাকে ছোট্ট একটি আবদার করে বলেছিলাম, যে প্লাটফর্মের আপনি একজন অন্যতম উদ্যোক্তা সেখানে আপনি লেখা দিলেই আমিও লেখা দিবো। উনি আজ সকালে লেখা পোস্ট করে আমাকে জানিয়েছেন। একজন অনিয়মিত লেখক এখন থেকে নিয়মিত লিখবেন।

অন্য একজন অনিয়মিত লেখক আমাকে তার একটি কলাম পাঠিয়ে একটি অনলাইন পোর্টালে প্রকাশের অনুরোধ করেছিলেন। আমি পত্রিকা অফিসে তার নামে পাঠালাম। তারা প্রকাশে গররাজি থাকলেও পরিশেষে প্রকাশ করলেন। পরবর্তীতে তার কলাম পাঠক প্রিয় হয়েছে। পোর্টাল থেকে তিনি এখন নিয়মিত লেখার অনুরোধ পাচ্ছেন।

একজন নতুন কিংবা অনিয়মিত লেখকের লেখা প্রকাশিত হলে তাদের উজ্জ্বল কিংবা উদ্ভাসিত মুখের দিকে কেউ তাকিয়ে দেখেছেন? আমি আমার নিজের মুখ আয়নায় দেখেছি।

আগামী একযুগ পরে সিডনিতে দেশীয় সাংস্কৃতির সামাজিক আন্দোলন কতটা জারি থাকবে তা কি আমরা ভেবে দেখেছি? আর কতটুকুই বা নতুন প্রজন্মের অন্তরে রেখে যেতে পারবো? আমি সেখানে খুব বেশি আলো দেখি না।

সিডনিতে নাট্য আন্দোলন চলছে। অনেকেই দেশে স্কুল কলেজ ভার্সিটিতে অভিনয় করেছেন। তারাও ছেলেমেয়েদের নিয়ে এগিয়ে আসতে চান। কিন্তু সেই পরিবেশ কি আমরা এখনও তৈরি করতে পেরেছি?

এখানকার প্রিন্ট ভার্সন পত্রিকা অর্থনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে মাসিক থেকে ত্রৈমাসিকে প্রকাশের পাঁয়তারা করছে। যেখানে অন্যান্য বাংলা ভাষাভাষি দেশগুলিতে মাসিক থেকে পাক্ষিক কিংবা এখন প্রতি সপ্তাহে প্রকাশিত হচ্ছে। এই পিছু হটার দায়ভার আমাদের। এই দুরাবস্থার গ্লানি সবার। (চলবে)

লেখক: সাংবাদিক ও সিডনি প্রবাসী।

বাংলাদেশের ১৭ জেলেকে ফেরত দিয়েছে মিয়ানমার বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে গণস্বাক্ষর শনিবার বাঁশখালীতে জেলের জালে বিশাল হোয়েল শার্ক! সিলেট আ.লীগের নেতৃত্ব হারালেন কামরান পৃথিবীর অনেক দেশের তুলনায় আমরা মেধাবী: তথ্যমন্ত্রী ধর্মঘটে অচল অবস্থা বিরাজ করছে ফ্রান্সে চট্টগ্রামে এবার থানায় বিক্রি হবে পেঁয়াজ ভারতের অবদান ছাড়া মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস অসম্পূর্ণ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী শিকাগোর অফিস-আদালতে বাংলা ভাষা! খালেদার স্বাস্থ্য বিষয়ে নিরপেক্ষ প্রতিবেদন নিয়ে ফখরুলের সংশয় ১৭ জেলেকে আটক করেছে মিয়ানমার উল্টোপথের বাসের চাকায় পিষ্ট পথচারী অবশেষে বিয়ের পিঁড়িতে মিথিলা-সৃজিত রুম্পার মৃত্যুর ধোঁয়াশা কাটেনি ১ জন ছাড়া অন্য যেকোনো পদে পরিবর্তন: কাদের আপিল বিভাগে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার: মন্ত্রী বীরত্বে পদক পাচ্ছেন ডিজিসহ বিজিবির ৬০ সদস্য আইএস এর সেই টুপি খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ নামাজ পড়লে সুস্থ থাকা যায়: মার্কিন গবেষণা মৌলভীবাজারে ৪শ একর জমিতে কমলার চাষ ২০১৯ সালের সেরা অ্যাপ কল অফ ডিউটি আ.লীগে এখন কর্মীর চেয়ে নেতার সংখ্যা বেশি: কাদের প্রকৌশল শিক্ষায়ও সৃজনশীলতার প্রচুর সুযোগ রয়েছে: রাষ্ট্রপতি ‘সুদের হার কমেনি, ১১ মাস কী করলেন অর্থমন্ত্রী’ ৬ রানে অলআউট মালদ্বীপ পিরোজপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ২ জনের মৃত্যু পুঁজিবাজারে সূচকের পতন, লেনদেনও মন্দা রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়দের কর্মসংস্থানের সুযোগ কমছে: টিআইবি বিএনপির আইনজীবীদের বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করা উচিত: নাসিম আপিল বিভাগে এমন অবস্থা আগে কখনো দেখিনি: প্রধান বিচারপতি