artk
বুধবার, অক্টোবার ১৬, ২০১৯ ১:২৯   |  ৩০,আশ্বিন ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

শনিবার, জুন ২৯, ২০১৯ ৫:৪৩

নেত্রী বন্দনার সংসদ: মান্না

media

মান্না বলেন, “আমাদের সংসদ মানে একেবারে প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী এক একাকার। সংসদের মধ্যে একেকজন সদস্য দাঁড়িয়ে কেবল নেত্রীর বন্দনা করেন। সমস্ত প্রশংসা তোমার, আর কারও প্রাপ্য নয়। যাকে প্রশংসা করে বলেন, উনিও (প্রধানমন্ত্রী) মিটিমিটি হাসেন। এরকম সার্কাস, এরকম কেরিক্যাচার দেখেছেন?”

একাদশ জাতীয় সংসদকে ‘নেত্রী বন্দনার সংসদ’ আখ্যায়িত করে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, এই সংসদে যোগ দিয়ে বিএনপি তাদের দাবি আদায় করতে পারবে না।

জাতীয় প্রেস ক্লাবে শনিবার শহীদ জিয়া স্মৃতি পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় একথা বলেন বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জোট শরিক দলের এই নেতা।

মান্না বলেন, “আমাদের সংসদ মানে একেবারে প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী এক একাকার। সংসদের মধ্যে একেকজন সদস্য দাঁড়িয়ে কেবল নেত্রীর বন্দনা করেন। সমস্ত প্রশংসা তোমার, আর কারও প্রাপ্য নয়। যাকে প্রশংসা করে বলেন, উনিও (প্রধানমন্ত্রী) মিটিমিটি হাসেন। এরকম সার্কাস, এরকম কেরিক্যাচার দেখেছেন?”

সংসদে যোগ দেওয়া বিএনপি ও গণফোরামের সদস্যদের দিকে ইঙ্গিত করে মান্না বলেন, “এরপরেও যদি মনে করেন, সেই জায়গায় গিয়ে লড়াই করতে না পারলে বোধহয় এই লড়াইয়ে কখনও জিতব না। আমি তাদেরকে বলি, রাজপথের লড়াইয়ের কথা বাদ দিয়ে যারা সংসদের কথা ভাবেন, তারা মূলত কোনো লড়াই করতে পারবেন না।

“আমাদের রাজপথ ছাড়া অন্য কোথাও লড়াই করার জায়গা আছে? সংসদে লড়াই করে জিততে পারবেন? একজন সংসদ সদস্যকে দুই মিনিট কথা বলবার সময় দেওয়া হয়, এক মিনিট পরে মাইক বন্ধ করে দেওয়া হয়।”

স্পিকারের ভূমিকার সমালোচনা করে তিনি বলেন, “স্পিকার আগেই বলেন, ‘মাননীয় সংসদ সদস্য, আপনি যেসব বলবেন, তার মধ্যে যদি অসংসদীয় কোনো কথা-বার্তা থাকে, তাহলে কিন্তু বাদ দিয়ে দেব’।

“কীরকম করে উনি (স্পিকার) জানেন যে সংসদ সদস্য কী বলবেন। উনি কি আগেই কিছু বাদ দেওয়ার ক্ষমতা রাখেন?”

রাজপথের আন্দআলনে জোর দিয়ে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, “আপনারা যে যে দল করেন, নিজের দল গোছান। যখন উপযুক্ত সময়, তখন প্রতিবাদের জন্য রাজপথে নামব। নিশ্চয়ই রাজপথে গণতন্ত্রের শক্তি লাগবে।

“আজ হোক, কাল হোক, এই বছর হোক, সামনের বছর হোক, বড় জোর দুই বছর, এর মধ্যে আপনাকে নামতে হবে। সেই রকম প্রস্তুতি নিন, সামনের দিকে যান।”

‘জাতীয় রাজনীতি: গণতন্ত্রের মুক্তি’ শীর্ষক এই আলোচনা সভায় শহীদ জিয়া স্মৃতি পরিষদের সভাপতি জাহাঙ্গীর চৌধুরী, ইশতিয়াক আহমেদ বাবুল, ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ বক্তব্য দেন।

পাকিস্তানকে আর পানি দেয়া হবে না: মোদি বিশ্ব মানবাধিকারের সংজ্ঞা ভারতের জন্য নয়: অমিত শাহ নৌকার তিনগুণ বেশি ভোট পেল ধানের শীষ পাশ্চাত্যের হুমকিতে কোনো কাজ হবে না: এরদোয়ান দুর্দান্ত খেলেও ভারতের সঙ্গে ড্র করলো বাংলাদেশ সম্পদের পাহাড় গড়েছেন পাগলা মিজান ভারতের বিপক্ষে ১-০ গোলে এগিয়ে বাংলাদেশ বিদেশি প্রভুরা আপনাদের পতন ঠেকাতে পারবে না: মির্জা ফখরুল আর সময় নেই, জনগণ জেগেছে: খন্দকার মাহবুব আর কটা দিন সবুর কর... আবারার হত্যাকারীদের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত: কাদের আমি সব বললে সিদ্দিক গ্রেফতার হবে: মিম ঘুমন্ত তুহিনকে কোলে করে বাইরে যান বাবা, খুন করেন চাচা ডিএসই’র মামলার ভয় ভেঙে রাস্তায় বিনিয়োগকারীরা জিম্বাবুয়ের নিষেধাজ্ঞা উঠল, ফিরে পেল সদস্যপদ ব্যবহারকারীর অসর্তকতায় সাইবার হামলা হচ্ছে মাঠের আন্দোলনে ইতি টানলেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা ৯৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ঢাকায় আরও দুই মেট্রোরেল ২০২১ সালে নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ হবে বাংলাদেশে ৮৬ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার দর বেড়েছে তুরস্কের তিন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা ভারতের অনুমতি ছাড়াই নতুন টুর্নামেন্টের ঘোষণা আইসিসির ‘যুক্তরাষ্ট্রে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তো বিবৃতি দেন না কূটনীতিকরা’ মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ভারত সফরের আগে কঠিন পরীক্ষায় মোস্তাফিজ সুনামগঞ্জে শিশু তুহিন হত্যা: বাবা ও দুই চাচা ৩ দিনের রিমান্ডে ঢাকা-কুড়িগ্রাম ট্রেন চালু বুধবার ছাত্ররাজনীতি নয় ছাত্রলীগের রাজনীতি বন্ধ করতে হবে : গয়েশ্বর ঢাকা কলেজ থেকে টিসি নিল আবরারের ছোট ভাই ফায়াজ গরিবের হাতে বেশি করে টাকা তুলে দিতে হবে: নোবেল জয়ী অভিজিৎ