artk
সোমবার, আগষ্ট ২৬, ২০১৯ ১০:৩২   |  ১১,ভাদ্র ১৪২৬
সোমবার, জুন ১৭, ২০১৯ ১১:০৮

ওসি মোয়াজ্জেমের পলাতক জীবনের ২০ দিন

নিউজ ডেস্ক
media
মোয়াজ্জেম শনিবার রাতে ঢাকায় তার বাসায় ছিলেন। জামিনের জন্য তিনি ঢাকায় ঘুরছিলেন।

ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে অবশেষে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সাইবার ট্রাইব্যুনাল গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করার পর থেকে ২০ দিন ধরে পালিয়ে ছিলেন তিনি। আদালতের পরোয়ানা পৌঁছানো এবং অবস্থান নিয়ে অনেক লুকোচুরির পর গত এক সপ্তাহ অভিযান চালিয়েও পুলিশ মোয়াজ্জেমকে খুঁজে পাচ্ছিল না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা যেকোনো সময় মোয়াজ্জেম ধরা পড়বেন বলে আসছিলেন। এর মধ্যেই গতকাল রোববার সকালে উচ্চ আদালতে উপস্থিত হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে তিনি জামিন আবেদন করেন। এরপর আদালত চত্বর থেকে বের হলে কদম ফোয়ারা এলাকা থেকে শাহবাগ থানার পুলিশের হাতে মোয়াজ্জেম গ্রেপ্তার হন।

পুলিশ সূত্র জানায়, গত ২০ দিন মোয়াজ্জেম ঢাকার আত্মীয়ের বাসায় আবার কখনো গ্রামের বাড়ির আশপাশের প্রতিবেশীর বাসায় এবং কখনো ঢাকার বাইরের অন্য জেলায় ছিলেন। গত শনিবার রাত থেকেই ওসি মোয়াজ্জেমের অবস্থান ঢাকায় বলে নিশ্চিত হয় পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। তিনি তার এক আত্মীয়ের বাসায় ছিলেন। সকালে আদালতে আইনজীবীর চেম্বারে গেলে সেটিও টের পায় ডিবি।

শাহবাগ থানার পুলিশের একটি সূত্র গত রাতে জানায়, থানার কর্মকর্তাদের সঙ্গে ‘আলাপচারিতায়’ ওসি মোয়াজ্জেম কিভাবে পালিয়ে ছিলেন সেটা জানান। তিনি প্রথমে ঢাকার কল্যাণপুরে তার এক খালার বাসায় ছিলেন। তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু হয়েছে টের পেয়ে গত ১০ জুন তিনি সেখান থেকে সটকে পড়েন। এরপর যান কুমিল্লায়, যেখানে তার নিজের বাড়ি আছে। তিনি নিজের বাড়িতে না উঠে চান্দিনায় খালাতো ভাই আসাদুজ্জামানের বাড়িতে আত্মগোপন করেন। এই আসাদুজ্জামান চান্দিনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত)।

এ তথ্য পুলিশ পেয়ে চান্দিনায়ও অভিযানে যায়। টের পেয়ে গত শুক্রবার রাতে ওই বাসা থেকে ঢাকায় চলে আসেন মোয়াজ্জেম। এরপর দূর সম্পর্কের আত্মীয় ও বন্ধু খায়রুল ইসলামের বাসায় ওঠেন। সেখান থেকেই গতকাল আদালতে যান।

খায়রুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, মোয়াজ্জেম শনিবার রাতে ঢাকায় তার বাসায় ছিলেন। জামিনের জন্য তিনি ঢাকায় ঘুরছিলেন।

মোয়াজ্জেমকে গ্রেপ্তার অভিযানে অংশ নেওয়া শাহবাগ থানার এক উপপরিদর্শক (এসআই) নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, যেহেতু তিনি জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা তাই গ্রেপ্তারের সময় তাকে সম্মান দেখানো হয়েছে। তিনি মোয়াজ্জেমকে বলেন, ‘স্যার, আপনি গ্রেপ্তার। ইউ আর আন্ডার অ্যারেস্ট।’ এটা শুনে তাৎক্ষণিক মোয়াজ্জেমের মুখ কালো হয়ে যায়। তিনি কিছুটা আতঙ্কিতও ছিলেন। তবে তিনি মুখে কোনো কথা না বলে শুধু মাথা ঝাঁকিয়ে সম্মতি দিয়ে ধরা দেন। এর পর শাহবাগ থানার পুলিশের গাড়িতে (পিকআপ) করে তাকে নেওয়া হয় শাহবাগ থানায়। সেখানে পরিদর্শকের (তদন্ত) কক্ষে নেওয়া হয় তাকে। একটি চেয়ারে বসতে দেওয়া হয় মোয়াজ্জেমকে। তখন তিনি ঘামছিলেন। কিছুটা অসুস্থ লাগছিল তাকে। তবে কথা বলছিলেন না। কেউ তাকে তখন কোনো বিষয়ে প্রশ্নও করেনি।

সরেজমিনে শাহবাগ থানায় গিয়ে পরিদর্শকের (তদন্ত) কক্ষে দরজা বন্ধ দেখা যায়। একপর্যায়ে দরজার ফাঁক দিয়ে মোয়াজ্জেমকে বিমর্ষ অবস্থায় চেয়ারে বসে থাকতে দেখা যায়। তাকে গ্রেপ্তারের খবরে সেখানে গণমাধ্যমকর্মীরা ভিড় করেন। তবে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তারা ওসি মোয়াজ্জেমের ছবি তুলতে দেননি। তারা অনুরোধ করে বলেন, থানায় আসামির ছবি তোলা যায় না। আদালতে নেওয়ার সময় যেন সাংবাদিকরা ছবি তোলেন।

ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, সবার চোখ ফাঁকি দিতে মোয়াজ্জেম দাড়ি ও গোঁফ বড় করেন। তার উদ্দেশ্য ছিল আদালত থেকে জামিন নেওয়া।
মোয়াজ্জেমের সাবেক গাড়িচালক (ব্যক্তিগত) মো. জাফর শাহবাগ থানার সামনে বলেন, জামিনের জন্য তিনি (মোয়াজ্জেম) এসেছিলেন হাইকোর্টে। সঙ্গে জাফরও ছিলেন। সকাল ১০টার দিকে তিনি অ্যাডভোকেট সালমা ইসলামের চেম্বারে যান। সেখান থেকে জামিনের জন্য আবেদন করা হয়। আবেদনটির নম্বর পড়ে ৪২৭৭০। দুপুর ১টার দিকে আদালত থেকে শুনানির তারিখ পিছিয়ে কাল সোমবার দিলে তিনি চলে আসেন। বিকেল ৩টার পর আদালত থেকে বের হন মোয়াজ্জেম। এরপর সাড়ে ৩টার দিকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

ক্যাটরিনা পেঁয়াজের মতো বহু স্তর : রণবীর ডিসির পিয়ন প্রেমিকা সাধনা সম্পর্কে যা জানা গেল অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে যুব মহিলালীগ নেত্রীসহ আটক ১৯ ‘আবুল মালের অনৈতিক সুবিধা চাপা দেয়ার জন্য আমার চিঠি ভাইরাল’ বাসচাপায় পোশাক শ্রমিক নিহত, বাসে আগুন সত্যকে এড়ানোর উপায় নেই: কাদের শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য বন্ধে কমিটি হচ্ছে বিদ্যালয়ে বিশ্বের সবচেয়ে দামি অভিনেত্রী স্কারলেট বিএনপি নেতা-কর্মীদের খুন করেছে আ.লীগ: ফখরুল যেভাবে চিনবেন ভালো সিমেন্ট ডেঙ্গুর যাতনা ভুলতেই পারছি না: অর্থমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করার অভিযোগে সোনাইমুড়ির মেয়র বরখাস্ত কানে এয়ারফোন, ট্রেনের ধাক্কায় প্রাণ গেলো তরুণের সোনার বাংলা বিনির্মাণে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে: অর্থমন্ত্রী কাবিননামায় ‘কুমারী’ শব্দ বাদ দেয়ার নির্দেশ খেলাপি ঋণ কমার সুযোগ নেই স্টোকসের হেলমেট ভাঙলেন হ্যাজলউড শতকোটি টাকা আত্মসাতে ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী রশিদ খানের হুঙ্কার! দক্ষ জনশক্তির প্রয়োজনে ২ প্রতিষ্ঠান রাতের আঁধারে জামালপুর ছাড়লেন সেই ডিসি শ্রীলঙ্কাকে ৭-১ গোলে গুড়িয়ে দিলো বাংলাদেশের কিশোররা রোগীর ওপর খসে পড়ল হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা রাজাকারদের তালিকা সংগ্রহ করছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিজেদেরই এগিয়ে রাখছেন মিরাজ দুদকের কাছে ৩ মাসের সময় চেয়েছেন নূর আলী পৃথিবী ধ্বংসে মেতেছেন ট্রাম্প আর বোলসোনারো আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য সেবা কার্ড নিয়ে এলো ‘মেডিএইডার’ পদ্মায় ১৬০ টন সিমেন্টসহ কার্গো ডুবি