artk
সোমবার, মে ২০, ২০১৯ ৬:৩০   |  ৬,জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

বৃহস্পতিবার, মে ১৬, ২০১৯ ৮:৪৫

খুবই দুঃশ্চিন্তার মধ্যে আছি: কৃষিমন্ত্রী

media

কৃষক ধানের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে ক্ষেতে আগুন দিচ্ছে। এ ব্যাপারে সরকারের উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চাইলে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘ধান ভালো হলে আমরা খুশি হই, বাম্পার ফলন হয়েছে। কেন ভালো হয়েছে? ধানে আমরা ঘাটতি ছিলাম। সারা পৃথিবীতে আমরা খাদ্যের ঝুলি নিয়ে ঘুরে বেড়াতাম। সেই বাংলাদেশে ধান এত উৎপাদন হয়েছে যে চাষিরা এখন এটাকে বার্ডেন মনে করছে।’

বোরোতে কৃষক ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় খুবই দুঃশ্চিন্তার মধ্যে আছেন বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক। কৃষকের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতে সরকার গভীরভাবে চিন্তা-ভাবনা করছে বলেও জানান মন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত ঝাং জুর সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

কৃষক ধানের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে ক্ষেতে আগুন দিচ্ছে। এ ব্যাপারে সরকারের উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চাইলে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘ধান ভালো হলে আমরা খুশি হই, বাম্পার ফলন হয়েছে। কেন ভালো হয়েছে? ধানে আমরা ঘাটতি ছিলাম। সারা পৃথিবীতে আমরা খাদ্যের ঝুলি নিয়ে ঘুরে বেড়াতাম। সেই বাংলাদেশে ধান এত উৎপাদন হয়েছে যে চাষিরা এখন এটাকে বার্ডেন মনে করছে।’

তিনি বলেন, ‘ইমিডিয়েটলি এ সমস্যার সমাধান করা কঠিন। আমরা বলি যে বাংলাদেশে মায়ের মুখের হাসি সোনালী ধানের শীষে। সোনালী ধান দেখে মানুষের মুখে হাসি ফোটে। কিন্তু এটা যে আমাদের জন্য এমন বিড়ম্বনা হবে আমরা ভাবিনি।’

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন সহযোগিতা দিয়েছি, আমরা সারের দাম কমিয়েছি, বিভিন্ন উপকরণের দাম কমিয়েছি। ঋণ দিয়েছি, ভালো বীজ দিয়েছি, গবেষণার ক্ষেত্রে অনেক বিনিয়োগ করেছি। ধানের ভালো জাত এসেছে।’

‘আমাদের এখন এগ্রো প্রসেসিং ইন্ডাস্ট্রি করতে হবে। খাদ্যকে কীভাবে প্রক্রিয়াজাত করা যায়, ভ্যালু অ্যাড করা যায়,’যোগ করেন কৃষিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘এ মুহূর্তে উৎপাদন যা দেখছি, আমরা কিছু চাল রফতানির বিষয়টি গভীরভাবে চিন্তা করছি। দ্বিতীয়ত উপকরণ যেমন সেচের খরচ কীভাবে আরও কমানো যায়। সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে শ্রমিকের খরচ। ধান লাগানো থেকে শুরু করে মাড়াই পর্যন্ত অনেক খরচ হচ্ছে, পোষাতে পারছে না কৃষক। এটাও জাতির জন্য অর্থনীতির জন্য একটি খুশির খবর যে, আজ শ্রমিকদের ঘাটতি। এর চেয়ে খুশির খবর আর কী হতে পারে।’

‘কিন্তু অন্যদিকে চাষির জন্য এটা একটা দুঃসংবাদ, সে এত কষ্ট করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে সে ধান আবাদ করছে। তার রক্তকে সোনালী ফসলে রূপান্তর হচ্ছে, কিন্তু সে ন্যায্য দাম পাচ্ছে না’ বলেন আব্দুর রাজ্জাক।

তিনি বলেন, ‘এটার জন্য সরকারের একদম সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে আমরা আলাপ করেছি, খুবই দুঃশ্চিন্তায় রয়েছি। এবং এটা নিয়ে আমরা গভীরভাবে চিন্তা-ভাবনা করছি, কী কী পদক্ষেপ নিলে এ পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পারি এবং চাষির মুখে হাসি ফোটাতে পারি।’

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘চাল রফতানি, উপকরণের দাম কমানো ও আরও উন্নত জাত আবিষ্কার করে উৎপাদনশীলতা বাড়ানো- এই পদক্ষেপ আমাদের নিতে হবে। এগুলো খুব দীর্ঘেমেয়াদী প্রক্রিয়া নয়। তাৎক্ষণিকভাবে আমরা ১০ থেকে ১৫ লাখ টন রফতানিতে যেতে পারি।’

সরকার যাতে আরও বেশি চাল কিনতে পারে, সেই সক্ষমতাও অর্জন করতে হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি ধান কিনে কৃষককে লাভবান করার ক্ষেত্রে স্থানীয় রাজনীতি প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘সেই এরশাদের আমল থেকে কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি কিনে কৃষককে লাভবান করার বিষয়ে গভীরভাবে চিন্তা হচ্ছে। আমরা ৩৬টাকা কেজি দরে কিনছি, কিন্তু চাষি পাচ্ছে না। এ বাস্তবতা এক কঠিন যে, কোনো পদ্ধতি বের করতে পারছি না, কীভাবে কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি কেনা যায়।’

ইতালিতে ঝড় তুলেছে বাংলাদেশি বংশদ্ভূত ফাইমের মুভি ‘বাংলা’ আদালতের আদেশ না মানায় ‘বাঘাবাড়ী ঘি’কে ২২ লাখ টাকা জরিমানা ছেলের জন্য চিকিৎসা চেয়ে চিকিৎসকের হাতে মার খেলেন বাবা! ছেলেশিশুকে রেখে পালিয়ে গেলেন মা মুক্তিযোদ্ধা-এতিমদের সঙ্গে ইফতার করলেন প্রধানমন্ত্রী ১৫ টাকার ওষুধের দাম ৬০০ টাকা, জরিমানা ২০ হাজার প্রধানমন্ত্রীর কাছে ছাত্রলীগ নেতার খোলা চিঠি বগুড়া-৬ উপনির্বাচনে আ.লীগের প্রার্থী টি জামান নিকেতা ‘ইয়েমেনে সহস্রাধিক মসজিদ ধ্বংস করেছে সৌদি জোট’ ভোটগ্রহণ শেষ, জরিপে এগিয়ে মোদি বাড়ানো হয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেনের সীমা বিড়ি শিল্প টিকিয়ে রাখতে যৌক্তিক আন্দোলনের সঙ্গে আছি: রসিক মেয়র মোস্তফা ‘দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন না করা অপরাধ’ ভর্তুকি দিয়ে হলেও চাল রপ্তানি করা হবে: অর্থমন্ত্রী রূপপুরে হরিলুট: ঠিকাদারি বিল বন্ধের নির্দেশ হরিণের মাংসের অবৈধ ব্যবসা যেভাবে চলে কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়: দুদক চেয়ারম্যান নিজেকে সমকামী ঘোষণা করলেন ভারতের দ্রুততম নারী ছাত্রলীগ নেত্রী দিশাকে অপহরণের চেষ্টা ক্লাসিফাইড লোন কমিয়ে আনবে পূবালী ব্যাংক তিন মোবাইল কোম্পানিকে ১৫ কোটি টাকা জরিমানা মন্ত্রিসভায় রদবদল, ডা. মুরাদ স্বাস্থ্য থেকে তথ্যে রিপোর্টিং আর মতামত আলাদা করতে হবে: আইনমন্ত্রী এটি পুরোটাই দলীয় অর্জন: মাশরাফি মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতির ন্যূনতম বয়সের পরিপত্র হাই কোর্টে বাতিল বিশ্বকাপে ক্যারিবীয়দের রিজার্ভ স্কোয়াডে ব্রাভো-পোলার্ড সিডনিতে কুরআন ক্লাসের ইফতার অনুষ্ঠিত ওবায়দুল কাদেরের ‘দ্বিতীয় ইনিংস’ শুরু উড়ন্ত লাথির শিকার টার্মিনেটর তারকা আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ