artk
সোমবার, মে ২০, ২০১৯ ৭:১৯   |  ৬,জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
শনিবার, এপ্রিল ২০, ২০১৯ ১২:৩৬

ক্যাপসিক্যাম চাষে সফল জয়পুরহাটের জাহিদুল

জয়পুরহাট সংবাদদাতা
media
নেট দিয়ে ঘেরা ক্যাপসিক্যাম চাষে কোন প্রকার কীটনাশক ব্যবহার করা হয়নি বলেও জানান তিনি।

অত্যধিক খাদ্য গুণাগুনসমৃদ্ধ ক্যাপসিক্যাম চাষ করে সফলতা অর্জন করেছেন সদর উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল ধলাহার ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামের কৃষক জাহিদুল ইসলাম।

সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, স্থানিয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ’জাকস ফাউন্ডেশন’ কৃষি ইউনিটের আওতায় বাস্তবায়িত উচ্চ ফলনশীল নতুন জাতের ওই ক্যাপসিক্যাম চাষে সহযোগিতা করছে পল্লীকর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ)।

শরীরে আয়রনের অভাব পূরণ, চর্বি নিঃস্বরণে ও এজমা নিরাময়ে সাহায্য করা, হার্টকে সুস্থ রাখা, চোখের স্বাস্থ্য সুরক্ষা, ক্যান্সার প্রতিরোধী, পটাশিয়াম সরবরাহ, ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণ ও চুলের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ক্যাপসিক্যাম অত্যন্ত কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে।

কৃষক জাহিদুল ইসলাম জানান, জাকস ফাউন্ডেশনের কৃষি ইউনিটের পরামর্শে স্বল্প সময়ের ফসল হিসাবে এ প্রথম ৮ শতাংশ জমিতে ক্যাপসিক্যাম চাষ করেছেন। ১৫ ফেব্রুয়ারি’১৯ চারা রোপণ করলেও দুই মাসের মধ্যেই ফসল তোলা সম্ভব হচ্ছে। এতে খরচ পড়েছে ৩ হাজার ৪ শ টাকার মতো। এ পর্যন্ত ক্যাপসিক্যাম বিক্রি হয়েছে ৭ হাজার টাকা।

এ ছাড়াও বর্তমানে জমিতে থাকা ক্যাপসিক্যাম আরও ৪ থেকে ৫ হাজার টাকা বিক্রি হবে বলে জানান জাহিদুল। নেট দিয়ে ঘেরা ক্যাপসিক্যাম চাষে কোন প্রকার কীটনাশক ব্যবহার করা হয়নি বলেও জানান তিনি।

সাধারণ মরিচের মতো এক থেকে দেড় হাত পর পর ক্যাপসিক্যামের একেকটি চারা রোপণ করতে হয়। রোগবালাই তেমন নেই বললেই চলে। ক্যাপসিক্যামের গুণাগুণ সম্পর্কে সাধারণ মানুষের ধারণা কম থাকায় বাজারে এর চাহিদা তুলনামূলক কম। তবে অনেকেই অত্যধিক খাদ্য গুণাগুন সমৃদ্ধ ওই ক্যাপসিক্যাম জমি থেকেই কিনে নিয়ে যান বলে জানান কৃষক জাহিদুল ইসলাম।

জাকস ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক খোরশেদ আলম জানান, নতুন ফসল হিসাবে ক্যাপিক্যাম চাষে সফলতায় এলাকার অনেক কৃষক এখন ক্যাপসিক্যাম চাষে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। জাকস ফাউন্ডেশন ওই ক্যাপসিক্যাম চাষে উদ্বুদ্ধ করাসহ অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতা করছে। বিএসএস

ইতালিতে ঝড় তুলেছে বাংলাদেশি বংশদ্ভূত ফাইমের মুভি ‘বাংলা’ আদালতের আদেশ না মানায় ‘বাঘাবাড়ী ঘি’কে ২২ লাখ টাকা জরিমানা ছেলের জন্য চিকিৎসা চেয়ে চিকিৎসকের হাতে মার খেলেন বাবা! ছেলেশিশুকে রেখে পালিয়ে গেলেন মা মুক্তিযোদ্ধা-এতিমদের সঙ্গে ইফতার করলেন প্রধানমন্ত্রী ১৫ টাকার ওষুধের দাম ৬০০ টাকা, জরিমানা ২০ হাজার প্রধানমন্ত্রীর কাছে ছাত্রলীগ নেতার খোলা চিঠি বগুড়া-৬ উপনির্বাচনে আ.লীগের প্রার্থী টি জামান নিকেতা ‘ইয়েমেনে সহস্রাধিক মসজিদ ধ্বংস করেছে সৌদি জোট’ ভোটগ্রহণ শেষ, জরিপে এগিয়ে মোদি বাড়ানো হয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেনের সীমা বিড়ি শিল্প টিকিয়ে রাখতে যৌক্তিক আন্দোলনের সঙ্গে আছি: রসিক মেয়র মোস্তফা ‘দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন না করা অপরাধ’ ভর্তুকি দিয়ে হলেও চাল রপ্তানি করা হবে: অর্থমন্ত্রী রূপপুরে হরিলুট: ঠিকাদারি বিল বন্ধের নির্দেশ হরিণের মাংসের অবৈধ ব্যবসা যেভাবে চলে কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়: দুদক চেয়ারম্যান নিজেকে সমকামী ঘোষণা করলেন ভারতের দ্রুততম নারী ছাত্রলীগ নেত্রী দিশাকে অপহরণের চেষ্টা ক্লাসিফাইড লোন কমিয়ে আনবে পূবালী ব্যাংক তিন মোবাইল কোম্পানিকে ১৫ কোটি টাকা জরিমানা মন্ত্রিসভায় রদবদল, ডা. মুরাদ স্বাস্থ্য থেকে তথ্যে রিপোর্টিং আর মতামত আলাদা করতে হবে: আইনমন্ত্রী এটি পুরোটাই দলীয় অর্জন: মাশরাফি মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতির ন্যূনতম বয়সের পরিপত্র হাই কোর্টে বাতিল বিশ্বকাপে ক্যারিবীয়দের রিজার্ভ স্কোয়াডে ব্রাভো-পোলার্ড সিডনিতে কুরআন ক্লাসের ইফতার অনুষ্ঠিত ওবায়দুল কাদেরের ‘দ্বিতীয় ইনিংস’ শুরু উড়ন্ত লাথির শিকার টার্মিনেটর তারকা আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ