artk
মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯ ১০:২৫   |  ৭,জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

বুধবার, ফেব্রুয়ারী ২০, ২০১৯ ৯:০৮

খালেদা জিয়ার মুক্তি কবে? তোপের মুখে বিএনপি নেতারা

media

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারামুক্তির দাবি কেন কোনো ধরনের কর্মসূচি নেই, এ নিয়ে নেতাকর্মীদের তোপের মুখে পড়েছেন দলটির সিনিয়র নেতারা। 

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় এ নিয়ে বারবার হট্টগোল সৃষ্টি হয়। 

রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে ওই সভায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের বক্তব্যের এক পর্যায়ে দর্শক সারি থেকে এক নেতা বলে ওঠেন- খালেদা জিয়ার মুক্তির কথা বলেন, কবে এবং কীভাবে তিনি মুক্তি পাবেন? খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি নেই কেন? আজকে হল রুম খালি কেন? 

মুহুর্তের মধ্যেই পুরো পরিস্থিতি পাল্টে যায়। উপস্থিত নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে থাকেন। এ সময় বাধ্য হয়ে বক্তব্য থামিয়ে দেন মওদুদ।  স্লোগান শেষ হলে ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, “বিএনপি চেয়ারপারসনকে আজ কোর্র্টে আনার কথা ছিল। কিন্তু অসুস্থতার কারণে তিনি আসতে পারেননি।”

আজকে তাকে দেখার সৌভাগ্যও হয়নি। এই কথাই বলতে চাচ্ছিলাম। তিনি বলেন, আপনারা স্লোগানকে বাস্তবায়ন করতে চান না? আপনারা খালেদা জিয়ার কথা শুনতে চান না। খালেদা জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ। আইনী প্রক্রিয়ায় তার মুক্তি সম্ভব না। একমাত্র আন্দোলনের মাধ্যমেই তাকে মুক্ত করা সম্ভব। সুপরিকল্পিত আন্দোলন কর্মসূচি দিতে হবে। যাতে এবার আমরা পরাজিত না হই। আর বেগম জিয়ার মুক্তি হবে আমাদের এক নাম্বার এজেন্ডা।

সভাটির সভাপতিত্ব করছিলেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার বক্তব্যের এক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ নেতারা ফের স্লোগানে স্লোগানে উত্তপ্ত করে তোলে সভাস্থল। এবারও দর্শক সারি থেকে এক নেতা মহাসচিবকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “বিএনপির কমিটি ভেঙে দেন। আজকে হল খালি কেন?” 

এ সময় নেতাকর্মীরা সমস্বরে প্রশ্ন করতে থাকেন, “খালেদা জিয়া কবে মুক্তি পাবেন? তার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি দেয়া হচ্ছে না কেন?”

জবাবে বিএনপির মহাসচিব বলেন, “হলে বসে চিৎকার করলে হবে না। কর্মসূচি দেয়া হবে ধৈর্য ধরেন। চাইলেই কর্মসূচি দেয়া যায় না। কর্মসূচি পালন করতে হবে তো। সব কিছুই হবে। ধৈর্য ধরতে হবে। এখানে হলের মধ্যে বসে চিৎকার করলে হবে না।”

তিনি বলেন, “কথা শুনুন, থামেন আপনারা। ”

এ সময় নেতাকর্মীরা বলেন, হয় কর্মসূচি দেন, না হয় কমিটি ভেঙে দেন। পরে পরিস্থিতি সামলে তিনি বলেন, “আপনারা কেন ভাবছেন, ব্যর্থ হয়েছেন। আপনারা ব্যর্থ হননি। আওয়ামী লীগ পরাজিত হয়েছে। আওয়ামী লীগ একদলীয় শাসন কায়েম করতে ১০ বছর ধরে নির্যাতন চালাচ্ছে।”

ভূমধ্যসাগরে বেঁচে যাওয়া ১৫ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন পাকিস্তানিদের ভিসা দেওয়া বন্ধ করে দিল বাংলাদেশ দীর্ঘায়ু লাভে জাপানি ডাক্তারের ৬ পরামর্শ সিডনিতে বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ ইফতারে যে কারণে ইসবগুলের ভুষির শরবত খাবেন শিগগিরই বাড়ি ফিরতে পারবেন এটিএম শামসুজ্জামান যেসব কারণে হুয়াওয়েকে নিয়ে পশ্চিমা বিশ্ব উদ্বিগ্ন ময়মনসিংহে নদী থেকে ২ শিশুর ভাসমান লাশ উদ্ধার রাজধানীতে দায়িত্ব পালনরত ট্রাফিক পুলিশের মৃত্যু নির্ধারিত সময়ের ২৪ দিন পর ১০৪০ টাকা দরে ধান কেনা শুরু খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে জেলে রাখা হয়েছে: খ. মাহবুব উৎপাদিত পণ্যে আগাম তারিখ দেয়ায় প্রিন্স ফুডকে ১২ লাখ টাকা জরিমানা নাটোরে রেলের দুই হাজার লিটার তেলসহ গ্রেপ্তার ৪ পাকিস্তানিদের ভিসা দেয়া বন্ধ করে দিল বাংলাদেশ নভেম্বরে ঢাকায় শুরু হচ্ছে ইমার্জিং এশিয়া কাপ সেতু নির্মাণে বেঁচে যাওয়া ৭৩৮ কোটি টাকা ফেরত দিলো জাপানি কোম্পানি কৃষকের কাছ থেকে ধান কেনার সুপারিশ সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কী বলে ডাকবেন জানতে চেয়ে আবেদন রাজউকের নতুন চেয়ারম্যান সুলতান আহমেদ নকল বিদেশি কসমেটিক্স বিক্রি: আলমাসসহ ৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা রাজনীতিবিদদের সম্মানে ‘৩০ টাকার’ ইফতার বিএনপির স্বপ্নের বিশ্বকাপ মিশনে ইংল্যান্ডে অনুশীলন শুরু টাইগারদের ঢাকা ব্যাংকের ২৪তম এজিএম অনুষ্ঠিত বিএনপির নেতৃত্ব খালেদা-তারেকের হাতে নেই: তথ্যমন্ত্রী মিলার বিরুদ্ধে মামলা করলেন সানজারি রূপপুরের বালিশকাণ্ড: গণপূর্তের তদন্ত রিপোর্ট চান হাইকোর্ট যা বললেন রুমিন ফারহানা মনোনয়নপত্র জমা দিলেন রুমিন ফারহানা অর্থপাচার রোধে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে জঙ্গিদের কোনো ধর্ম, দেশ ও সীমানা নেই: প্রধানমন্ত্রী