artk
বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০১৯ ১১:৪৯   |  ১২,বৈশাখ ১৪২৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

রোববার, জানুয়ারি ২০, ২০১৯ ৮:৩৯

শাটডাউন: আপসের প্রস্তাব ট্রাম্পের

media
যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় অর্থাৎ চার সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে এই আংশিক শাটডাউন চলছে। এর ফলে প্রায় আট লাখ ফেডারেল কর্মী ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের কার্যক্রমে অচলাবস্থা বা আংশিক শাটডাউন থেকে বেরিয়ে আসতে শেষ পর্যন্ত আপস করার প্রস্তাব দিলেন।

তিনি যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন নীতির সাথে আপসের কথা বলেছেন। বিবিসি।

হোয়াইট হাউজ থেকে ট্রাম্প বলেছেন, প্রায় ১০ লাখ অভিবাসীকে বহিষ্কারের হুমকি তিনি প্রত্যাহার করে নেবেন। বৈধ কাগজপত্র ছাড়া যে তরুণরা রয়েছে, তারাও এর আওতায় পড়বে।

তিনি আরও বলেছেন, মানবিক সাহায্যের জন্য আটশ মিলিয়ন ডলার দেয়া হবে। একই সাথে সীমান্তে নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য একই পরিমাণ অর্থ দেয়া হবে। এই অর্থ সীমান্তে অতিরিক্ত ২৭৫০ জন নিরাপত্তা কর্মী নিয়োগে সহায়তা করবে।

কিন্তু ট্রাম্প মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের অবস্থান থেকে সরে আসেননি।

তিনি সেজন্য ৫৭০ মিলিয়ন ডলার যে চেয়েছিলেন, সমঝোতার প্রস্তাবেও তার সেই দাবি বহাল রয়েছে।

ট্রাম্পের প্রস্তাবকে অগ্রহণযোগ্য বলে বর্ণনা করেছে ডেমোক্র্যাটরা।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় অর্থাৎ চার সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে এই আংশিক শাটডাউন চলছে। এর ফলে প্রায় আট লাখ ফেডারেল কর্মী ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

প্রেসিডেন্ট নিজেই তার ভাষণের আগে প্রচার করেছেন যে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা দেবেন।

তিনি শুরু করেন যে, যুক্তরাষ্ট্রের বৈধ অভিবাসীদের স্বাগত জানানোর গর্বিত ইতিহাস আছে। কিন্তু অভিবাসন পদ্ধতি খুব খারাপভাবে ভেঙে ফেলা হয়েছে দীর্ঘ সময় ধরে।

ট্রাম্প আরও বলেছেন, তার নির্বাচনী প্রচারণায় তিনি অভিবাসন নীতি বা পদ্ধতি ঠিক করার অঙ্গীকার করেছিলেন।

তিনি বলেছেন, “আমার সেই প্রতিশ্রুতি পালন করার ইচ্ছা রয়েছে।”

তার বক্তব্য হচ্ছে, তিনি তার প্রস্তাবের মাধ্যমে কংগ্রেসকে সরকারের কার্যক্রমের শাট ডাউন থেকে বেরিয়ে আসার একটা উপায় করে দিলেন। কিন্তু তিনি আবারও সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন।

যদিও তিনি বলেছেন, এই দেয়াল পুরো সীমান্ত জুড়ে নয়, এটি সীমান্তের অগ্রাধিকার এলাকায় করা হবে। তবে তিনি ওই ৫৭০ মিলিয়ন ডলারের দাবির কথাই তুলে ধরেন।

ডেমোক্র্যাটরা কি বলেছে?

ট্রাম্পের বক্তব্য শেষ হওয়ার আগেই তার প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন ডেমোক্র্যাটরা।

ডেমোক্রেটিক হাউজের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি এক বিবৃতিতে বলেছেন, “দুর্ভাগ্যজনক যে, ট্রাম্পের প্রস্তাব যেগুলো অতীতে প্রত্যাখ্যাত হয়েছে, এখন সেগুলোই সংকলন করে তিনি আবার প্রস্তাব দিয়েছেন।”

তিনি আরও বলেছেন, এই প্রস্তাব অগ্রহণযোগ্য। এটি মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারবে না বলে তারা মনে করেন।”

ঘরে ঢুকে ৪ ঘুমন্ত শ্রমিকের প্রাণ কাড়লো ট্রাক টিউবওয়ে থেকে পানি নেয়ায় নারীকে রাস্তায় পেটালেন মাদ্রাসার পরিচালক স্কুলছাত্রীকে অচেতন করে অপহরণকালে যুবক আটক শ্রীলংকায় হামলা: এক হামলাকারীকে ঠেকিয়েছেন যিনি চুকুরের গুণ ১৩৭তম খুলনা দিবস ‘অনেকের সঙ্গেই পরকীয়ায় আসক্ত আমার স্বামী’ মোবাইল চুরি: সাংবাদিকদের আটকে রাখলেন শমী কায়সার অস্বাভাবিক কিছু দেখলেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে জানাবেন: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর ফুফু হামিদা খানমের ইন্তেকাল বাসা-বাড়িতে নতুন গ্যাস সংযোগ আর নয়: প্রতিমন্ত্রী ১০ জন নারীর মধ্যে সাতজনই পরকীয়ায় লিপ্ত শরবত খাওয়াতে আসা মিজানুরের ‘মানসিক সমস্যা’: ওয়াসার এমডি ডায়াবেটিস নিরাময় করতে জার্মানিতে অভিনব উদ্যোগ গেম অফ থ্রোনসের শুটিং হলো যে জাদুময় জায়গায় চাপমুক্ত থাকবে ইউনাইটেড ফাইন্যান্সের শেয়ার হোল্ডাররা শ্রীলঙ্কার পুলিশ প্রধান ও স্বরাষ্ট্র সচিবকে পদত্যাগের নির্দেশ ‘ধর্ষণ মহামারি আকার ধারণ করেছে, আইন শৃঙ্খলার অবনতি হয়েছে’ মানুষের দাড়ি কি কুকুরের পশমের চেয়েও বিপজ্জনক? ৩০ এপ্রিল শাহাবাগে ঐক্যফ্রন্টের গণজমায়েত ভোটের মেশিন থেকে বের হলো সাপ শেখ হাসিনা আমাকে প্রতিবছর মিষ্টি পাঠান: মোদি বন্ড পণ্য অবৈধভাবে বিক্রি করছে অলিম্পিক এক্সেসরিজ সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে ইভিএম ব্যবহারের বিকল্প নেই: সিইসি শেষবার জায়ানকে দেখতে শেখ সেলিমের বাসায় প্রধানমন্ত্রী সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কেডস ও কিপিং গ্লাভস দিলেন তামিম প্রক্টরের আশ্বাসে নীলক্ষেত ছাড়লেন সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা দ্বৈত কর পরিহার চুক্তিতে সম্মত বাংলাদেশ-মালদ্বীপ রণদা প্রসাদ হত্যায় অভিযুক্ত টাঙ্গাইলের মাহবুবুরের রায় যে কোনো দিন ব্যবস্থাপত্র ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি বন্ধে নির্দেশনা চেয়ে রিট