artk
বৃহস্পতিবার, জুন ২৭, ২০১৯ ৬:৩৯   |  ১৩,আষাঢ় ১৪২৬
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ১৭, ২০১৯ ১:৪০

শরিকরা বিরোধী আসনে বসলে সরকারের জন্য ভালো, তাদের জন্যও ভালো: কাদের

media

ফাইল ফটো

জোটগতভাবে এক প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নিলেও ১৪ দলের শরিকদের জাতীয় সংসদে বিরোধী দলের আসনে বসতে বলছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।     

বিরোধী দলে নয়, সরকারে থাকতে চান শরিক দলের নেতারা- এমন সংবাদ গণমাধ্যমে আসার পর বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ মনোভাব প্রকাশ করেন তিনি।

আওয়ামী লীগ তাদের বিশাল বিজয় উদযাপনের জন্য শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মহাসমাবেশের আয়োজন করেছে। ওই বৃহস্পতিবার ওই সমাবেশস্থল পরিদর্শনে যান ওবায়দল কাদের। সেখানেই শরিকদের সম্পর্ক মনোভাব জানতে চান সাংবাদিকরা। 

৩০ ডিসেম্বরের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ১৪ দলীয় জোট ও মহাজোটে নেতৃত্ব দেয়। এ দুটি জোটের প্রায় সবাই আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রতীক নৌকা মার্কায় ভোটে লড়েন।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোট বিশাল বিজয় অর্জন করেছে। জাতীয় সংসদের ঘোষিত ফলাফলে ২৯৯ আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ একাই পেয়েছে ২৫৭টি আসন। জাতীয় পার্টি জিতেছে ২২টি। এর বাইরে ১৪ দলের ওয়ার্কার্স পার্টি দুটি, জাসদ (ইনু) দুটি, জাসদ (আম্বিয়া) একটি, তরীকত ফেডারেশন দুটি, জেপি (মঞ্জু) একটি আসনে জয়লাভ করেছে। মঞ্জু ছাড়া বাকি সবাই নৌকা প্রতীকে জিতেছেন।

এরই মধ্যে জাতীয় পার্টি বিরোধী দলের আসনে বসেছে। পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বিরোধীদলীয় নেতা হয়েছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “মহাজোট নামে যে বৃহত্তর ঐক্যজোট, সেটা কিন্তু নির্বাচনী জোট। ১৪ দলের সঙ্গে আমাদের যে সম্পর্ক সেটা হলো রাজনৈতিক জোট। রাজনৈতিক জোট আমাদের থাকবেই। ১৪ দল থাকবে।”

তিনি বলেন, “(শরিক দলের) সংসদ নেতারা বিরোধী দলের আসনে বসলে এবং দায়িত্বশীল বিরোধিতা যদি করেন, সেটা সরকারের জন্যও ভালো, তাদের জন্যও ভালো।”

“রাজনৈতিক জোটের প্রশ্ন যখন আসে, তখন তো আমরা একসঙ্গেই আছি। সেটা রাজনৈতিক জোট আমি সেটা স্মরণ করিয়ে দিতে চাই। সে জোট আমরা ভাঙিনি।” যোগ করেন কাদের।

‘জোটে কোনো টানাপড়েন নেই’ জানিয়ে আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, “এগুলো নিয়ে তাদের সঙ্গে আমাদের আলাপ-আলোচনা হচ্ছে। আরো আলাপ-আলোচনা হবে।”

আইএসপিএবি নির্বাচন: অভিজ্ঞ আর নতুন প্যানেলের লড়াই কোহলির চেয়ে এগিয়ে মুশফিক ‘রিমান্ডে দিয়ে ম্যাজিস্ট্রেটেরা সংবিধান লঙ্ঘন করছেন’ বরগুনায় স্ত্রীর সামনে স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা যে মর্মান্তিক ছবিটি কাঁপিয়ে দিল বিশ্ব প্রাণ আরএফএলের বর্জ্যে দূষিত খোয়াই নদী, দুদকের অভিযান পাকিস্তানকে ২৩৮ রানের লক্ষ্য দিল কিউইরা বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচেও আম্পায়ার আলিম দার! ঘুষ কেলেঙ্কারি: বাছিরের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা ভারতের মিনারভা ক্লাবকে হারিয়ে আবাহনীর ইতিহাস ‘কোনো মাদক ব্যবসায়ীকে ছাড় দেয়া হবে না’ ভারতকে হারানো অবম্ভব কিছু নয়: স্পিন কোচ সুনীল প্রশ্নফাঁস: ৭৭ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ‘রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে না পারলে নিরাপত্তা শঙ্কা আছে’ নাসিমের বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ গণফোরামের সশস্ত্র বাধার মুখেও সাংবাদিক হতে চান যে মেয়েটি হাসপাতাল ছাড়লেন ব্রায়ান লারা আসামে নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়ছেন আরও ১ লাখ এরশাদের শারীরিক অবস্থার অবনতি: জিএম কাদের পাকিস্তানের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নিউজিল্যান্ড শিঙাড়া বেচে বছরে আয় ১ কোটি রুপি! সুইমিং পুলে বুরকিনি পরে নিষেধাজ্ঞা ভাঙলেন নারীরা ‘পরোয়ানা থাকলে আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারবেন মিজান’ ‘ট্রেন দুর্ঘটনায় গাফিলতির প্রমাণ পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা’ বিএনপি রেল সেক্টর ধ্বংস করে দিয়েছে: রেলমন্ত্রী ‘উন্নয়ন এখন বিয়ে বাড়ির এক দিনের আলোকসজ্জার মতো’ খালে ভাসমান অবস্থায় মিললো ছাত্রলীগ নেতার ক্ষতবিক্ষত লাশ ২৮ বছর পর সচল সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলা সী পার্লের আইপিও শেয়ার বিওতে জমা দুদকের অমার্জনীয় ভাষায় তলব চিঠি প্রত্যাহারসহ ৪ দফা দাবি