artk
মঙ্গলবার, মে ২৬, ২০১৫ ৮:৫৪

সংকটে অসুস্থ ঢাবি গ্রন্থাগার

media

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারে পড়াশোনার সুষ্ঠু পরিবেশ নেই বলে শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে অভিযোগ উঠেছে। বহিরাগতদের আগমন, কর্তৃপক্ষের তদারকির অভাব, অপর্যাপ্ত আসন ইত্যাদি করণে প্রকৃত শিক্ষার্থীরা সব সময়ই সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন। গ্রন্থাগারে বসার জায়গা পাওয়ার জন্য সকাল থেকেই তাদের লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ভর্তি অফিসের তথ্য মতে, ২০১৪-১৫ সেশন পর্যন্ত বর্তমানে ১৩টি অনুষদের আওতাভূক্ত ৭০টি বিভাগে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৩৬ হাজারেরও বেশি। শিক্ষার্থীর সংখ্যাগত দিক দিয়ে এশিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান ২৩তম। এত বিশাল সংখ্যক শিক্ষার্থীর থাকার জন্য রয়েছে ২৩টি হল। কিন্তু পড়াশোনার জন্য রয়েছে মাত্র একটি গ্রন্থাগার।

৩৬ হাজার শিক্ষার্থীর বিপরীতে এই গ্রন্থাগারের আসন সংখ্যা মাত্র ৬৬০টি! এই সীমিত আসনের অনেক আসনই আবার ব্যবহারের অনুপযুক্ত। অপর্যাপ্ত আসন, অনেক সময় বহিরাগতদের আগমন, কর্তৃপক্ষের তদারকি না করাসহ বিভিন্ন কারণেই শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার সুষ্ঠ পরিবেশ হারিয়ে গেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিদিন গ্রন্থাগার খোলার অনেক আগেই শিক্ষার্থীরা মাঠে নিজেদের ব্যাগ দিয়ে লাইন দিয়ে রাখেন।

শিক্ষার্থীরা জানান, কোন কোন সময় এই লাইন লাইব্রেরির গেট থেকে প্রায় ২৫০ গজ দূরের ডাকসু ক্যাফেটেরিয়ার গেট পর্যন্তও দীর্ঘস্থায়ী হয়। এত সংগ্রাম করে আসন পাওয়ার পরও থাকতে হয় দুশ্চিন্তায়। জরুরি প্রয়োজনে আসন থেকে উঠলেই তা দখল হয়ে যায়। অনেকে আবার বন্ধুর জন্য আসন দখল করে রাখেন, যা বৈধ নয়।

আবদুল্লাহ আল মামুন নামে দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী বলেন, “সামনে পরীক্ষা। পড়াশোনা করতে তাই খুব সকালে লাইব্রেরিতে আসি। কিন্তু লাইব্রেরিতে আসন কই? আগের দিনই যে নিয়মিত লাইব্রেরিতে আসা শিক্ষার্থীরা তাদের ব্যাগ, বই রেখে জায়গা দখল করে রেখেছে।”

আসনের তুলনায় অধিক সংখ্যক শিক্ষার্থী এক জায়গায় পড়াশোনা করায় লাইব্রেরিতে পড়াশোনার পরিবেশ কেমন জানতে চাইলে মাস্টার্সের শিক্ষার্থী বেলাল আহমেদ বলেন, “লাইব্রেরিতে পড়াশোনার জন্য পরিবেশটা মোটেও সুষ্ঠু না। অনেককেই দেখা যায় দল বেঁধে লাইব্রেরিতে আসেন কিন্তু পড়াশোনার চেয়ে গল্প চলে বেশি। আনেকে আবার লাইব্রেরিকে বানিয়ে ফেলেন ডেটিং প্লেস। অন্যদিকে পাশের রাস্তার যানবাহনের আওয়াজ তো আছেই।”

লাইব্রেরির ভেতরের পরিবেশ স্বাভাবিক রাখতে, অবৈধ এবং বহিরাগতদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে যথাযথ কর্তৃপক্ষ থাকলেও তাদের অভিযোগ, লাইব্রেরিতে আসা শিক্ষার্থীদের কোন কিছুতে তারা নজরদারি করতে পারেন না। কোন সময় করতে গেলে তাদেরকেই উল্টো বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়।

এদিকে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের সাথে কথা বললে সামগ্রিক সমস্যগুলো স্বীকার করে তিনি বলেন, “আমাদের বর্তমানে যে সংখ্যক শিক্ষার্থী রয়েছে সে তুলনায় আসলে লাইব্রেরিতে আসন দেওয়া সম্ভব নয়। বাজেট না থাকায় নতুন করে লাইব্রেরিও স্থাপন করা যাচ্ছে না।”

উপাচার্য বলেন, “লাইব্রেরি মূলত চলমান শিক্ষার্থীদের অধ্যয়নের জায়গা। বিসিএস কিংবা অন্য কোন পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য লাইব্রেরি নয়। তাই পরীক্ষার প্রস্তুতি হল গ্রন্থাগারেই নেওয়া উচিত।”

আসন সমস্যার সমাধান ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে তিনি বলেন, “যেহেতু গ্রন্থাগারে আর আসন বাড়ানো সম্ভব নয়, তাই আমরা চেষ্টা করছি ইন্টারনেট লাইব্রেরি চালু করার। যার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা ঘরে বসেই লাইব্রেরির বইগুলো পড়তে পারবে।”

হল গ্রন্থাগারেও আসন সংকট:
বিসিএসসহ যে কোন পরীক্ষার প্রস্তুতিমূলক পড়াশোনার জন্য ঢাবি উপাচার্য শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানিয়েছেন তাদের নিজস্ব হল গ্রন্থাগার ব্যবহার করতে। কিন্তু কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের মত আসন সংকট রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল গ্রন্থাগার গুলোতেও। এরই মধ্যে হল গ্রন্থাগারে পর্যাপ্ত আসন না থাকায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে মেসের জন্য বরাদ্দ দেওয়া কক্ষেই পড়াশোনা করতে শুরু করেছে হলের শিক্ষার্থীরা।

বিভিন্ন হলের কয়েকজন শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলে জানা যায়, হলের এক রুমে আসনের তুলনায় অধিক শিক্ষার্থী বসবাস করায় রুমে পড়াশোনার পরিবেশ নেই বললেই চলে। যার কারণে তারা কেন্দ্রীয় ও হল গ্রন্থাগার অভিমুখী হন। কিন্তু পর্যাপ্ত আসন না থাকায় প্রতিনিয়ত তাদের পড়াশোনার ব্যাঘাত ঘটেই চলছে।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এজে

যুক্তরাষ্ট্রকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল হুয়াওয়ে ‘ভারত বুঝুক, হারের পর সামনে এসে উল্লাস করলে কেমন লাগে’ মৎস্য কর্মকর্তা লাঞ্ছিত, উপজেলা চেয়ারম্যান বরখাস্ত নারায়ণগঞ্জে শিশুসহ একই পরিবারের দগ্ধ ৮ নায়ক মান্না চলে যাওয়ার ১ যুগ করোনায় মৃত্যুর মিছিলে আরও ১০০ জন বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ২ মেডিক্যাল শিক্ষার্থী নিহত ইঁদুরেই খেয়েছে ১ লাখ মেট্রিক টন ফসল করোনাভাইরাস আতঙ্কে সিঙ্গাপুরফেরত স্বামীকে রেখে পালালেন স্ত্রী ঘুষের অভিযোগ থেকে সিনহাকে অব্যাহতি কোভিড ১৯: এবার তাইওয়ানে প্রথম মৃত্যু ভোটাররা দেরিতে ঘুম থেকে উঠায় ভোট হবে ৯টায়: ইসি সচিব এই সেলফি তোলার পরেই ট্রেনের ধাক্কায় স্কুলছাত্রের মৃত্যু করোনাভাইরাস: প্রযুক্তিই চীনের শেষ ভরসা সঞ্চয়পত্রে নয়, সুদ কমেছে ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের: অর্থ মন্ত্রণালয় বিশ্বকাপজয়ী ৬ ক্রিকেটার নিয়ে বিসিবি একাদশ ঘোষণা সিরাজগঞ্জে বাস খাদে পড়ে নিহত ৩ চট্টগ্রাম, বগুড়া ও যশোর সিটিতে ভোট ২৯ মার্চ করোনাভাইরাস শনাক্তে বাংলাদেশকে উন্নত কিটস দেবে চীন একত্রে কাজ করবে ডিএসই ও সিএসই বিশ্রামে রিয়াদ, ফিরলেন তাসকিন-মোস্তাফিজ করের বকেয়া অর্থ না দেয়াও দুর্নীতি: দুদক চেয়ারম্যান দক্ষদের নিয়োগ দিচ্ছে টেসলা, ডিগ্রি না হলেও চলবে খালেদা জিয়ার প্যারোল আবেদন সরকার পায়নি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চিকেন পক্স হলে কী খাবেন বাংলা তারিখ ব্যবহারে নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট কারিগরি শিক্ষার্থীদের বেশি গুরুত্ব দেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ডিএসইএক্সের সেরা দ্বিতীয় উত্থান মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তৃতীয় মেয়াদে শপথ নিলেন কেজরিওয়াল ফিটনেস ও নিবন্ধনহীন গাড়ি বন্ধে সব জেলায় টাস্কফোর্স গঠনের নির্দেশ