artk
রোববার, মে ২৪, ২০১৫ ১০:৪৩
ভয়াল ২৫ মে

আইলার ৬ বছর, কাটেনি মানুষের দুর্ভোগ

media

খুলনা: ভয়াল ২৫ মে ২০০৯ সাল। এই দিনে খুলনার দক্ষিণে দাকোপ ও কয়রাসহ বিস্তৃর্ণ এলাকায় ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়। আইলার তাণ্ডবে  ছিন্ন-ভিন্ন হয় এ অঞ্চলের মানুষের ঘরবাড়ি, সম্পদ। জীবনহানি হয় মহিলা শিশুসহ  অনেক মানুষের। আইলায় বিছিন্ন এ জনপথের শেষ ঠিকানা হয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের  বেড়িবাঁধ। আইলার তাণ্ডবের ছয় বছর কেটে গেছে। কিন্তু আজও ভুলতে পারেনি দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ সেই ভয়াল দিনগুলোর স্মৃতি।

কয়রার মঠবাটি গ্রামের  কৃষ্ণপদ সরকারের মেয়ে জয়ালতা সরকার হতাশার সুরে বলেন, “আমার পিতার ১৫ বিঘা জমিতে যে ধান হত, তাতে যৌথ পরিবারে সারা বছরের খাবার নিয়ে চিন্তা থাকত না। সারা বছর পুকুরের মাছ আর ক্ষেতে সবজি চাষ করেই চলে যেত। ২ বিঘা জমির ওপর বসতভিটায় বিভিন্ন ধরনের ফলজ গাছে বারোমাস ফল-ফলাদিতে ভরে থাকত। কখনও কলা, আম, জাম, কাঁঠাল ইত্যাদি কিনতে হত না। আইলার আঘাতের পর সব নষ্ট হয়ে গেছে। গত ছয় বছরে জমি যা ছিল, তা বিক্রি করে সংসারের খরচ চলেছে। এখন কিছুই নেই বললে চলে। বাবার আয়ের অন্য কোনো উপায় নেই। আমাদের মতো মধ্যবিত্ত কৃষি নির্ভর জনগণ পড়েছে উভয় সংকটে। না পারছে অন্যের বাড়িতে কামলা (মজুরি) খাটতে, না পারছে অন্য কোনো কাজ করতে।”

আইলা আক্রান্তরা জানান, দুর্গতরা সরকারি-বেসরকারি সহযোগিতা তেমন পায়নি। যখন তালিকা হয়, তখন সবাই বলে তারা গৃহস্থ লোক। প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বিশেষ বরাদ্দটিও তারা পাননি।

জয়ালতা বরিশাল বিএম কলেজে অনার্স পাস করে বর্তমানে খুলনা শহরে একটি মেসে বসবাস করছেন। খেয়ে পরে বেঁচে থাকার জন্য খুঁজছেন চাকরি। তিনি বলেন, এখন বাড়ি আসলে দুদন্ড থাকতে ইচ্ছা করে না।
 
দক্ষিণ বেদকাশি গ্রামের কালীপদ বৈদ্যের স্ত্রী বিথীকা বৈদ্য জানান, আইলার পর প্রায় তিনবছর উঁচু  ভিটার ওপর স্বামী ও  দুই মেয়েকে নিয়ে বসবাস করতাম। অনেক রোদ-বৃষ্টি-শীত কাটিয়েছি সেখানে। বর্তমানে বেসরকারি একটি সংস্থা আমাদের থাকবার জন্য একটি ঘর করে দিয়েছেন। এখন থাকার একটা ব্যবস্থা হয়েছে। কিন্তু জীবিকার কোনো উপায় নেই।

কালীপদ রায় বলেন, “এলাকায় এখন নোনা পানি আটকে আছে। জমির মালিকেরা চিংড়ি ঘের করেছে। ধান আবাদ করা সম্ভব হচ্ছে না। তাই কাজ নেই। কাজের সন্ধানে গোপালগঞ্জ, ফরিদপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় থাকতে হয়।”
 
সূত্রমতে,  ২০০৯ সালের ২৫ মে ঘূর্ণিঝড় আইলা আঘাত হানে। এতে খুলনা ও সাতক্ষীরা জেলাসহ উপকূলবর্তী বিস্তীর্ণ এলাকার বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় খুলনার দাকোপ উপজেলার কামারখোলা ও সুতারখালী ইউনিয়ন; কয়রা উপজেলার উত্তর বেদকাশী, দক্ষিণ বেদকাশী, কয়রা সদর ও মহারাজপুর ইউনিয়ন এবং সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ও পদ্মপুকুর ইউনিয়ন। অনেক মানুষ তাঁদের ভিটে-মাটি ছেড়ে শহরে চলে এসেছেন এবং উপায়হীন অনেকেই রাস্তার ওপর বসবাস করছেন। আইলার আঘাতে এ অঞ্চলের ৩৮টি পোল্ডারের প্রায় সবটুকু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল, ১৬৫১ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের মধ্যে ৬৮৪ কিলোমিটারই পুরোপুরি বা আংশিকভাবে বিধ্বংস হয়েছিল, নষ্ট ও অকেজো হয়েছিল ৬৩৯টি স্লুইচ গেটের মধ্যে ১০৯টি।  

নিউজবাংলাদেশ.কম/কেজেএইচ

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা