artk
সোমবার, মে ১৮, ২০১৫ ৫:৫০

‘ভাসমান অবস্থায় সিরাজগঞ্জের একাধিক যুবক থাকতে পারে’

media

সিরাজগঞ্জ: সমুদ্রে ভাসমান অবস্থায় জেলার একাধিক যুবক থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন জেলা জনশক্তি ও কর্মসংস্থান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (অতিঃ দায়িত্ব) মো. নজরুল ইসলাম। তিনি জানান, এর আগে থাইল্যান্ডের ডিটেনশন সেন্টারে থাকা যে ক’জনকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে তারা সবাই সিরাজগঞ্জের বাসিন্দা।

নিউজবাংলাদেশকে তিনি বলেন, “জেলার অনেকেই নিখোঁজ থাকার খবর শোনা যাচ্ছে। তবে সরকারি হিসাব ছাড়া আমরা কোনো মন্তব্য করতে পারি না। আর এক্ষত্রে অনেকেই অভিযোগ করে না।”

তিনি আরো বলেন, “সম্প্রতি প্রধান কার্যালয়ে এক প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে, চৌহালী, বেলকুচি, শাহজাদপুর এলাকার মানুষের মানবপাচারকারীদের খপ্পরে পড়ে সমুদ্রপথে মালয়েশিয়া যাচ্ছে। নিখোঁজ বা সমুদ্রপথে থাকা বিভিন্ন ট্রলারে জেলার একাধিক যুবক থাকতে পারে। পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ না করায় সঠিক পরিসংখ্যান বের করা কঠিন হয়ে পড়েছে।

নজরুল ইসলাম বলেন, “মালয়েশিয়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে থাইল্যান্ডের ডিটেনশন সেন্টারে থাকা ৩১ জনকে সরকারিভাবে ফেরত আনা হয়েছে। তাদের সবাই সিরাজগঞ্জের বাসিন্দা।”

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সমুদ্রপথে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে দালালদের খপ্পরে পড়ে সর্বশান্ত হচ্ছে জেলার চার হাজার জেলার চার হাজার যুবক। অনেকে আবার সময়মতো টাকা পরিশোধ করতে না পারায় নির্যাতনের স্বীকার হচ্ছে। দেশের উপকূলীয় অঞ্চলের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলার মানুষগুলোকে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। একটু স্বচ্ছলতার আশায় তাদের প্রলোভনে সাড়া দিচ্ছে মানুষজন।

সূত্র জানায়, জেলার সর্বদক্ষিণে যমুনা নদীর কূলঘেঁষা পাঁচটি উপজেলা থেকে অনেকেই থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়াতে ঢুকতে পারলেও বাকিদের অবস্থা করুণ। তাদের কেউ রয়েছে থাইল্যান্ডের জঙ্গলে, আবার কেউ রয়েছে সাগরে ভাসমান অবস্থায়। ফিরে আসার সংখ্যা অত্যন্ত কম হলেও নিখোঁজের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে।

সূত্র আরো জানায়, পাঁচটি উপজেলার প্রায় তিন-চারশো যুবক নিখোঁজ রয়েছে। দালালদের গোপন মোবাইল নাম্বার থেকে হুমকি দেয়া হচ্ছে তাদের পরিবারের লোকজনকে। আর এ কারণে অনেকে পুলিশের কাছে যেতে সাহস পাচ্ছে না।

জেলার বেলকুচি থানায় গত বছরের ৩০ নভেম্বর দেলুয়া মধ্যেপাড়া গ্রামের ডালিম বেগম সাতজনকে আসামি করে একটি মানবপাচার মামলা দায়ের করেন। এরপর কয়েক মাস পেরিয়ে গেলেও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, ডালিম বেগমের চেলে রেজাউল করিম (২৫) ২০১৪ সালের ১৫ আগস্ট বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। পরে দালালরা বাড়িতে ফোন করে জানায়, তাকে থাইল্যান্ডে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে মালয়েশিয়া পাঠানো হবে। তাই দুই লাখ টাকা দিতে হবে। না-হলে তাকে মেরে ফেলা হবে। ছেলের প্রাণ বাঁচাতে দুই দফাতে এক লাখ টাকা দেন ডালিম বেগম। এর ৪০ দিন পর থাইল্যান্ডের জঙ্গল থেকে দেশে ফেরে রেজাউল।

একইভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে ধরা পড়ে থাইল্যান্ডে ছয় মাস জেল খেটে দেশে ফেরেন চালা গ্রামের ওমর সানি (১৯)। নিউজবাংলাদেশকে তিনি বলেন, “১৫০ জনের ধারণক্ষমতার ট্রলারে চার শতাধিক যুবক নিয়ে রওনা হয় দালালরা। একজন পানির জন্য চিৎকার করলে গুলি করে তাকে হত্যা করা হয়। দুজন পানি ও খাবার না পেয়ে সমুদ্রে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করে।”

তিনি আরো বলেন, “দুজন অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদেরকে সমুদ্রে ফেলে দেয়া হয়। দিন-রাতে দুবেলা শুকনো খাবার দেয়া হতো। কিছু বললেই মারধর করা হতো।”

পূর্ণিমাগাতি ইউনিয়নের ঘিয়ালা গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে আব্দুল আলিম (২৭) নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “গত বছরের প্রথম সপ্তাহে আমি মালয়েশিয়ার উদ্দেশে রওনা হই। ২১ দিন পর এক দালাল বাড়িতে ফোন করে আড়াই লাখ টাকা দাবি করে। জমি ও বাড়ির একটি অংশ বিক্রি করে দালালের টাকা পরিশোধ করা হয়।”

তিনি আরো বলেন, “এরপর সরকারিভাবে দেশে ফিরে আসি। এটাই এখন আমার কাছে অনেক কিছু। অনেকেই তো ফিরছে পারছে না।”

সমুদ্রপথে মালয়েশিয়ায় গিয়ে ফেরত আসা শাহজাদপুরের রুপনাই গ্রামের মজনু মিয়া নিউজবাংলাধেশকে বলেন, “আমাকে থাইল্যান্ডের জঙ্গলের মধ্যে রাখা হয়। বেদম মারধর করে বাড়িতে ফোন করানো হয়। এক সপ্তাহ পর সেখান থেকে পাচারকারীরা আমাকে আরেকটি জঙ্গলে নিয়ে ছেড়ে দেয়। প্রায় ১৫ দিন অনাহারে থেকে জঙ্গলেই জ্ঞান হারাই। থাইল্যান্ডের পুলিশ আমাকে উদ্ধার করে। সাত মাস জেল খেটে দেশে ফিরি।”

সুবিধাবঞ্চিত মানুষের উন্নয়নে কাজ করা জেলার বেসরকারি সংস্থা ডেভেলপমেন্ট ফর ডিজঅ্যাডভানটেজড পিপল (ডিডিপি) এর তথ্যমতে, জেলার সাত উপজেলা থেকে গত বছর আট মাসে চার হাজার লোক সমুদ্রপথে মালয়েশিয়ার উদ্দেশে গেছে। এর মধ্যে ডিসেম্বর পর্যন্ত ৫০০ জনের হদিস পাওয়া যায়নি। ২৫০ জনের সন্ধান মিলেছে থাইল্যান্ডের বিভিন্ন কারাগারে। বাকি তিন হাজার ২৫০ জনের পরিবারের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা মুক্তিপণ আদায় করেছে পাচারকারীরা।

ডিডিপির নির্বাহী পরিচালক কাজী সোহেল রানা নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “সিরাজগঞ্জ নদী ভাঙন কবলিত। এ কারণে ভিটেমাটিহারা অশিক্ষিত যুবকেরা সহজেই দালালদের খপ্পরে পড়ছে।”

বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আনিছুর রহমান নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “এরই মধ্যে মানবপাচারের সাথে জড়িত কালু গাজি নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বেলকুচি, এনায়েতপুর ও কক্সবাজার থানায় মামলা আছে।”

এনায়েতপুর থানার ওসি মনিরুল ইসলাম নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “আবুল কালাম নামে এক মানবপাচারকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধীরে ধীরে সবাইকে গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।”

জেলা পুলিশ সুপার এস এম এমরান হোসেন নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “দালালেরা কিছু মানুষের সঙ্গে সখ্য তৈরি করে মানবপাচার করছে। তবে এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে কোনো তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। সঠিক তথ্য ও অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ তার দায়িত্ব পালন করবে। এতে কোনো মানবপাচারকারীকে ছাড় দেয়ার সুযোগ নাই।”

জেলা প্রশাসক ও জেলা মানবপাচার প্রতিরোধ কমিটির চেয়ারম্যান মো. বিল্লাল হোসেন নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “এরই মধ্যে প্রত্যেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদেরকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তারা সংশ্লিষ্ট এলাকায় লিফলেট তৈরি করে মসজিদের ইমামকে দিয়ে মাইকে প্রচার করবে। একই সাথে থানা পুলিশ যেন তাদের কাছে মানবপাচার মামলার নথি তদন্ত করে দ্রুত গ্রেফতারের ব্যবস্থা নেয় সেজন্যও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।”

তিনি বলেন, “জনশক্তি কর্মসংস্থান ব্যুরোকে উপজেলায় জনসচেতনতা সৃষ্টিতে বিশেষ প্রচারণার ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।”

নিউজবাংলাদেশ/এটিএস

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা