artk
শুক্রবার, মে ১৫, ২০১৫ ৫:৫৯

‘গরমে ওষ্ঠাগত মানুষ, তাই নিজের দরকারে হাতপাখা বানাই’

media

গাইবান্ধা: সাদুল্যাপুর উপজেলার প্রত্যন্ত পল্লীর দুই গ্রামের নারী-পুরুষ এখন ব্যস্ত সুতা দিয়ে রং-বেরঙের হাতপাখা তৈরিতে। দুই গ্রামের প্রায় তিন শতাধিক পরিবারের লোকজন এ পেশায় নিয়োজিত। তাদের তৈরি হাতপাখা এরই মধ্যে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

পাখার গ্রাম নামে পরিচিত দুই গ্রাম হচ্ছে, উপজেলা শহর থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত রসুলপুর ইউনিয়নের আরাজি ছান্দিয়াপুর ও জামালপুর ইউনিয়নের বুজরুক রসুলপুর গ্রাম। এ দুই গ্রামের বাসিন্দারা দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে হাতপাখা তৈরি করে আসছে। দুই গ্রামের সমন্নয়ে এলাকার মানুষ গ্রামটির নাম দিয়েছে পাখার গ্রাম।

পাখার গ্রামের জলোমাই (৮০) নামের এক বৃদ্ধ নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “অসহনীয় গরমে মানুষ যখন ওষ্ঠাগত ঠিক তখন নিজের দরকারে সুতা দিয়ে আমরা হাতপাখা বানাই।”

এই বৃদ্ধের কাছ থেকে আরো জানা যায়, তিনি যখন হাতপাখা তৈরি করতেন তখন মহিলারা এসে তা দেখত। এরপর তারাও বাড়িতে গিয়ে বানাতে বসে যেত। এভাবে এ এলাকায় হাতপাখা তৈরির শিল্প গড়ে ওঠে।

শুরুর দিকে সাংসারিক কাজের ফাঁকে ফাঁকে দুদিনেই মহিলারা একটি পাখা তৈরি করত। এক সপ্তাহ শ্রম দিয়ে তিন-চারটি পাখা তারা বানিয়ে ফেলত। এসব পাখা তারা স্থানীয় মেলায় বিক্রি করত। এভাবে দিনদিন মহিলারা হাতপাখা তৈরিতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। প্রতিদিনের তৈরি পাখা বেচে আর্থিক লাভবান হওয়ায় গ্রামের নারী-পুরুষ অনেকেই বেছে নেয় এ কাজ।

পাখার কারিগর আব্দুল খালেক নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “আগে সুতার তৈরি প্রতিটি পাখা ১০-১২ টাকায় বিক্রি করে ৫ টাকা লাভ পেতাম। কিন্তু এখন সুতা ও বাঁশের দাম বেড়ে যাওয়ায় ২৫ টাকা দরে বিক্রি করে ৩-৪ লাভ হয়। প্রতিদিন ঘুরে ঘুরে গড়ে ৫০-৬০টি পাখা বেচতে পারি।”

পাখার গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিটি বাড়িতে আঙিনার মধ্যে পাটি ও পিঁড়া পেতে বসে স্বামী-স্ত্রী পাখা তৈরি করছে। কেউ কেউ সন্তানদেরকেও একাজে লাগিয়েছে। অনেক বাড়িতে নারী-পুরুষরা দলগতভাবে হাসি-ঠাট্টার মাধ্যমে কেউ সুতা গোছানো, কেউ বাঁশ কাটা বা চাক তৈরি করছে। কেউ আবার সুই দিয়ে সেলাই ও নকশা তৈরি করছে। গ্রামের প্রায় তিন শতাধিক পরিবারের ৮০ ভাগ মানুষ এ পেশায় জীবিকা নির্বাহ করছে।

পাখার গ্রামে প্রতিদিন এখন এক হাজার থেকে ১৩শ’ পর্যন্ত পাখা তৈরি হয়। এসব পাখা জেলার বিভিন্ন উপজেলার ব্যবসায়ীরা এসে কিনে নিয়ে যায়। বিভিন্ন প্রকারের প্রতিটি পাখা তৈরি করতে বাজার থেকে ১২ টাকার সুতা, দুই টাকার বাঁশের হাতল, দুই টাকার সুতা মোড়ানোর কাপড় ও পারিশ্রমিকসহ প্রায় ২০ টাকা খরচ করতে হয়। এরপর তা বিভিন্ন গ্রামে, বাজারে ও মেলায় ২৩-২৫ টাকায় বিক্রির করা হচ্ছে। এতে একটি পাখা বিক্রি করলে লাভ হয় তিন থেকে পাঁচ টাকা।

পাখার গ্রামের কয়েকজন মহিলা কারিগর জানায়, বছরের তিন মাস পাখা তৈরির কাজ বন্ধ থাকে। ওই সময় তারা সুতা, বাঁশ, কাপড় ও দরকারি জিনিসপত্র মজুদ করে রাখে। বছরের বাকি নয় মাস তারা পাখা তৈরি করে।

তারা আরো জানায়, এরপরও বিভিন্ন উপজেলার ব্যবসায়ীদের চাহিদা পূরণ করতে তারা বেশ হিমশিম খাচ্ছেন।

কারিগর আনোয়ারুল ইসলাম, ছালাম মিয়া ও এন্তাজ আলী নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা ও স্থানীয়ভাবে স্বল্প সুদে ক্ষুদ্র ঋণের সহযোগিতা পেলে ভবিষ্যতে এখানে বড় ধরনের পাখা তৈরির কারখানা করা সম্ভব হবে।”


নিউজবাংলাদেশ.কম/এটিএস

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা