artk
বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৩, ২০১৫ ৮:৩৭

শিক্ষক লাঞ্ছনায় তীব্র ক্ষোভ, ২৬ এপ্রিল কর্মবিরতি

media

ঢাকা: সহকারী কমিশনারের হাতে সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপকের লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় অস্থিরতা ও তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশের সরকারি কলেজ ও শিক্ষা প্রশাসনে।

এ ঘটনার সাথে জড়িত ২৯ ব্যাচের কর্মকর্তা সহকারী কমিশনার মো. আশ্রাফুল ইসলাম, ভান্ডারিয়ার ইউএনও মোহাম্মদ মনির হোসেন হাওলাদার ও ভান্ডারিয়া কলেজের অধ্যক্ষকে প্রত্যাহারসহ এদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

সমিতি আগামী ২৬ এপ্রিল সারাদেশের সরকারি কলেজ ও শিক্ষা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক কার্যালয়গুলোতে মানববন্ধন, প্রতিবাদ সভা ও কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছে। ১ মের মধ্যে জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না নিলে এদিন সমিতি জরুরি বৈঠকেরও আহবান করেছে। ওই বৈঠকের মাধ্যমে আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে সমিতি সূত্রে জানা গেছে।

জানা যায়, শিক্ষককে পা ধরিয়ে ক্ষমা চাওয়ানোর মতো ঘটনার জন্য ম্যাজিস্ট্রেটের কঠোর শাস্তির দাবিতে আগামী রোববার দেশের সকল সরকারি কলেজে ধর্মঘট আহ্বান করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর  ইডেন কলেজে অধ্যক্ষ হোসনে আরা বেগমের সভাপতিত্বে এক প্রতিবাদ সভা আয়োজন করা হয়। সভায় এসি ল্যান্ডের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করা হয়।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালক অধ্যাপক ফাহিমা খাতুন পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক ও বরিশালের বিভাগীয় কমিশনারের কাছে কৈফিয়ৎ চেয়েছেন। পাশাপাশি ম্যাজিস্ট্রেটের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে শিক্ষা সচিবকে চিঠি দিয়েছেন বলেও জানা যায়।

শিক্ষক নেতারা অভিযোগ তুলে বলছেন, শিক্ষক লাঞ্ছনাকারী এসি ল্যান্ড এখনও বুনিয়াদি/ফাউন্ডেশন ট্রেনিং করেননি। সে ২৯ ব্যাচের একজন কর্মকর্তা। যাকে লাঞ্ছিত করেছেন, তিনি ২৪ ব্যাচের একজন কর্মকর্তা। বিধিবিধান না জানা একজন জুনিয়র কর্মকর্তাকে কেনো ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্ব দেওয়া হলো।


শিক্ষা ক্যাডারের কেন্দ্রীয় নেতারা মঙ্গলবার পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া সরকারি কলেজে প্রতিবাদ-সমাবেশ ও মানববন্ধন করেন। বুধবার ঢাকা কলেজ, ঠাকুরগাঁও কলেজ, রাজশাহী অঞ্চলের সরকারি কলেজগুলোর সমন্বয়ে রাজশাহী কলেজ, সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ ও নড়াইল সরকারি কলেজসহ অনেক কলেজে হয় প্রতিবাদ সভা।

এদিকে, মাউশি কর্তৃপক্ষ এসি ল্যান্ডের হাতে শিক্ষা ক্যাডারের সহকারী অধ্যাপক লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনা খতিয়ে দেখতে প্রশিক্ষণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক সামছুল হুদাকে প্রধান করে তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। এর সদস্যরা হলেন-পরিকল্পনা শাখার উপপরিচালক ওসমান ভূঞা ও প্রশিক্ষণ শাখার সহকারী পরিচালক হেমায়েত উদ্দিন হাওলাদার।

এছাড়া বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক শাহ আলমগীরকে প্রধান করে পৃথক একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

অধ্যাপক সামছুল হুদা জানান, তদন্তকাজ শুরু করতে তিনি শুক্রবার পিরোজপুর যাবেন।

শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ মঙ্গলবার শিক্ষক লাঞ্ছিত হওয়ার বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূঁইঞার সঙ্গে কথা বলেছেন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া ও এর সম্মানজনক সমাধানের বিষয়ে মন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেছেন বলে জানা গেছে।

এর আগে কলেজের একটি সূত্র ঘটনার বর্ণনা দিয়ে জানায়, গত ৯ এপ্রিল এইচএসসি ইংরেজি প্রথমপত্র পরীক্ষা চলাকালে পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া সরকারি কলেজ কেন্দ্রে প্রধান প্রত্যবেক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন সহকারী অধ্যাপক মোনতাজ উদ্দিন। একপর্যায়ে সেলফোনে কথা বলতে বলতে কেন্দ্রে প্রবেশ করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ আশ্রাফুল ইসলাম। নিজের পরিচয় না দিয়ে কক্ষের দায়িত্বে থাকা শিক্ষককে এসি ল্যান্ড বলেন, এক বেঞ্চে দুই ছাত্রী পাশাপাশি বসছে কেনো? তাদের সরিয়ে দিন। এ অবস্থায় সহকারী অধ্যাপক মোনতাজ উদ্দিন তার পরিচয় জানতে চাইলে ক্ষেপে যান আশ্রাফুল। এমনকি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনির হোসেন হাওলাদার ও পুলিশকে তাৎক্ষণিক ডেকে এনে তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা করেন।

তারা বলেন, শিক্ষককে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শাস্তি দেওয়ার হুমকি দেন ম্যাজিস্ট্রেট। প্রকাশ্যে মোনতাজ উদ্দিনকে ম্যাজিস্ট্রেটের পা ধরে ক্ষমা চাইতেও বাধ্য করেন। যে ছবি গত কদিন ধরে ব্যাপকভাবে প্রচারিত হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এরপর থেকে প্রতিদিনই বিভিন্ন সরকারি কলেজে চলছে প্রতিবাদ সমাবেশ, মানববন্ধন।

এ ব্যাপারে সহকারী অধ্যাপক মোনতাজ উদ্দীনকে ফোন করা হলে তিনি বলেন, “ঘটনার পর থেকে ভাবছিলাম, এখন আমি কী করবো? সবকিছু অন্ধকার লাগছিল। মনে হচ্ছিল, সুইসাইড করব। কিন্তু আমার কলিগরা আমার পাশে দাঁড়ানোর পর আমার অপমানের কষ্ট কিছুটা হলেও কমেছে। শিক্ষা ক্যাডারের কর্মকর্তারা প্রায়ই এভাবে লাঞ্ছনার শিকার হন। আমাদের কিছুই করার থাকে না।”

এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে সহকারী কমিশনার আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, “আমি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্ব নিয়ে ওখানে যাই। একটা কক্ষ পরিদর্শন করে ওই কক্ষে গেলে দেখি দুটো মেয়ে কথা বলছে। তাদের খাতা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষককে অনুরোধ করি। তিনি আমার কথায় প্রচণ্ড ক্ষেপে যান। মনে হয়, তারা ইনফিরিয়রিটি কমপ্লেক্সে ভোগেন। একটু হলেই তারা ব্যাচ জিজ্ঞেস করে। যাই হোক, আমার কথা না শুনে শিক্ষক আমাকে ধাক্কা দেয়। আমার নাজির আমার পাশে ছিল। আমি অবাক হয়ে যাই। পরে আমি ঘটনা আমার ইউএনও স্যারকে জানাই। এরপর তারা সেখানে আসেন। আমি ওনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ফাইল ওপেন করি। একটা পর্যায়ে ধাক্কা দেওয়ার জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ব্যবস্থা নিতে পারি বলে জানাই। এ নিয়ে অধ্যক্ষের কক্ষে গেলে অধ্যক্ষ ওনাকে বলেন, আপনি অন্যায় করেছেন। আপনার বিরুদ্ধে ফৌজদারি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি ওনাকে আমার কাছে মাপ চাইতে বলেন। উনি ওনার দোষ স্বীকারও করেন।”

আশ্রাফুল বলেন, “আমি তাকে বলি, আমার কাছে মাপ চেয়ে লাভ কী। ছাত্রদের সামনে ঘটনা ঘটেছে। তাদের কাছে গিয়ে মাপ চান। পরে উনি সেখানে গিয়েও ক্ষমা চান। ওখানে দুজন সাংবাদিক ছিল। তারা স্থানীয় পত্রিকায় নিউজ করে দেয়। অধ্যক্ষ অবশ্য সাংবাদিকদের নিষেধ করেছিলেন। তারা তা শুনেননি।”

আশ্রাফুল আরও বলেন, “আমার মনে হয়, ঘটনাটি পরিকল্পিত। ৯ তারিখের ঘটনা। স্থানীয় পত্রিকাগুলো সত্য ঘটনা লিখেছে। কিন্তু এরপর হঠাৎ করে ২০/২২ তারিখের দিকে জাতীয় পত্রিকাগুলো নিউজ করে দেয়।”

এ ব্যাপারে ভান্ডারিয়ার ইউএনও মনির হাওলাদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
 
বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির মহাসচিব আইকে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার বলেন, “এ ধরনের ঘটনায় শুধু সরকারি কর্মকর্তাদের শৃঙ্খলাকে অবজ্ঞা করা হয়নি, সমগ্র শিক্ষক সমাজকে অপমান করা হয়েছে। আমরা এই ম্যাজিস্ট্রেটের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থার দাবি জানিয়েছি।”

তিনি বলেন, “শুধু ভান্ডারিয়া কলেজে নয়, লক্ষ্মীপুর সরকারি মহিলা কলেজের দুজন প্রত্যবেক্ষককেও ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক চরমভাবে লাঞ্ছনার শিকার হতে হয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “আগামী ২৬ তারিখ সারাদেশের সরকারি কলেজ ও এর সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা ক্যাডার কর্মবিরতি পালন করবে। ১ মে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির জরুরি সাধারণ সভা আহ্বান করা হয়েছে। সেখানে ওই বিষয়ে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।”

নিউজবাংলাদেশ.কম/কেজেএইচ

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা