artk
সোমবার, মার্চ ৩০, ২০১৫ ১২:০৭

‘এমপি হয়ে ফতুল্লাকে ডুবিয়েছেন কবরী’

media

বিগত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনটি ছিল শুধু ফতুল্লা থানা এলাকা নিয়ে। ওই সংসদের পুরো ৫ বছরেই নারায়ণগঞ্জে নানা কারণে আলোচিত-সমালোচিত ছিলেন এক সময়ের বাংলা চলচ্চিত্রের মিষ্টি মেয়ে খ্যাত অভিনেত্রী কবরী।

ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সেক্রেটারিকে জেল খাটানো, ফটো সাংবাদিককে চপেটাঘাত, সদর উপজেলার নারী ভাইস চেয়ারম্যানকে লাঞ্ছিত করা, এলজিইডিতে বসে থেকে টেন্ডার নিয়ন্ত্রণ, কাবিখার টাকা আত্মসাতের ঘটনায় বারবার সংবাদে আসা কবরী এবার ঢাকা উত্তরে সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য রোববার মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। যদিও এ করপোরেশনে আওয়ামী লীগ ইতোমধ্যেই ব্যবসায়ী নেতা আনিসুল হককে সমর্থন দিয়েছে। তবে নির্বাচনে অংশ নেওয়া বিষয়ে নিউজবাংলাদেশ.কমে ছাপা হওয়া কবরীর সাক্ষাৎকার ‘আনিসুল হককে চিনি না’ তার সাবেক নির্বাচনী এলাকা ফতুল্লা ও নারায়ণঞ্জ জেলায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে।

এ প্রসঙ্গে ফতুল্লার আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, কবরী ফতুল্লাকে ডুবিয়ে দলকে ধংস করার চেষ্টা করেছেন। তিনি এখন ঢাকা দক্ষিণকেও ডোবাতে মাঠে নেমেছেন।

মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পর অবশ্য কবরী বলেছেন, “মুক্তিযুদ্ধ করেছি। দেশ স্বাধীনের পরে দল থেকে কিছু পাইনি। অনেক কষ্টে একবার সংসদ সদস্য হয়েছি। আশা ছিলো পরে মন্ত্রী হব। অবশ্য প্রধানমন্ত্রী চাইলে আমাকে মন্ত্রী বানাতে পারতেন। এখন মানুষের জন্য কিছু করার ইচ্ছা থেকে মেয়র হতে চাই।”

তবে কবরীর এ বক্তব্যের সঙ্গে একেবারেই দ্বিমত পোষণ করেন তার এলাকা ফতুল্লার আওয়ামী লীগ নেতারা। থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফউল্লাহ বাদল বলেছেন, “এমপি হতে কবরীকে কোনও কষ্ট করতে হয়নি। আমরাই শামীম ওসমানের নির্দেশে কবরীর পক্ষে কাজ করেছিলাম। আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা দিনরাত খেয়ে না কাজ করেছেন। কবরীকে এমপি বানানোর পর তিনি সেটা ভুলে গিয়ে অকৃতজ্ঞের মতো বহিরাগত সন্ত্রাসীদের নিজের পক্ষে নিয়ে ফতুল্লাকে কলুষিত করেছেন।”

কবরী নিজেকে ‘পরীক্ষিত’ দাবি করেন। এ প্রসঙ্গে সাইফউল্লাহ বাদল বলেন, “কবরী এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর থানা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের কাউকে মূল্যায়ন করেননি। বিভিন্ন সেক্টর হতে তিনি ১শ টাকা পর্যন্ত বখরা খেয়েছেন। তার কোনও ধরনের যোগ্যতাই ছিল না। শুধুমাত্র ‘এমপি’ নির্বাচিত হওয়ায় তিনি ফায়দা লুটেছেন।”

এ প্রসঙ্গে বক্তব্য দিতে গিয়ে অতীত কষ্টের স্মৃতি রোমন্থন করে থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলী বলেন, “আমি নিজেও কবরীর পক্ষে নির্বাচনে খেটেছিলাম। কিন্তু কবরী পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার করে আমাকে গ্রেফতার করিয়ে কারাভোগ করিয়েছেন। তিনি সংগঠনকে এলোমেলো করে দিয়েছেন।”

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নারী ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা মনির বলেন, “কবরী ফতুল্লা এলাকাতে কোনও উন্নয়নই করেননি। আমি নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান হয়ে একসঙ্গে কাজ করার চেষ্টা করলেও কবরী উল্টো আমাকে লাঞ্ছিত করেছিলেন।”

কবরীর বিরুদ্ধে ফতুল্লার কয়েকটি স্থানে জোর করে জমি দখলের চেষ্টারও অভিযোগ রয়েছে। এ নিয়ে ফাতেমা মনির ছাড়াও পাগলার শ্রমিক লীগ নেতা ও কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহমেদ পলাশের সঙ্গেও বিরোধ দেখা দেয় কবরীর। ভুক্তভোগীরা জানান, এ নিয়ে কবরীর পিএস খ্যাত শ্যামপুরের সন্ত্রাসী সিরাজুল সেন্টু প্রকাশ্যে গুলিও করেছিলেন।

এ প্রসঙ্গে কাউসার আহমেদ পলাশ বলেন, “কবরী নেতাকর্মীদের অপমান ও চরমভাবে লাঞ্ছিত করেছিলেন। তার সময়ে কোনও চেইন অব কমান্ড ছিল না। সন্ত্রাসীকে পিএস বানিয়ে এমপিগিরি করতে গিয়ে ফতুল্লার উন্নয়ন কাজে চরমভাবে ব্যাঘাত ঘটিয়েছেন। সুতরাং কবরী নিজেকে ‘পরীক্ষিতি কিংবা নিবেদিত’ যাই বলুন সেটা বাস্তবতার সঙ্গে আকাশ পাতাল পার্থক্য যা হাস্যকরও বটে।”

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কবরী যখন এমপি ছিলেন তখন তার হস্তক্ষেপে নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রকাশিত দৈনিক শীতলক্ষ্যা পত্রিকার প্রকাশনা কিছুদিন বন্ধ ছিল। ওই পত্রিকার এক ফটো সাংবাদিককে তিনি চপেটাঘাত করেছিলেন। গার্মেন্ট মালিকদের সংগঠন বিকেএমইএ এর নারায়ণগঞ্জস্থ প্রধান কার্যালয়ে গিয়ে সভাপতিসহ অন্যদের সঙ্গে বৈঠক করে গার্মেন্টের ‘ঝুট’ নিজের অনুগামীদের দেওয়ারও আহবান জানিয়েছিলেন। অভিযোগকারী স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, ফতুল্লার পাগলার আলোচিত সোহেল ওরফে শুটার সোহেল হত্যা মামলার আসামিদের নিজের সঙ্গে রেখেই প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াতেন কবরী। শামীম ওসমানের এক জনসভায় নাহিদ নামের এক কর্মী আসায় তাকে গুলি করেছিল সন্ত্রাসী খেলাফত বাহিনীর লোকজন। ওই সন্ত্রাসীদের তখন সর্বদাই কবরীর গাড়ি বহরে দেখা যেতো বলেও দাবি করেন অভিযোগকারী নেতাকর্মীরা।

তারা বলেন, ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল আলীর নেতৃত্বে ফতুল্লার দাপায় বালুরঘাট ব্যবসার কর্তৃত্ব দখল নিয়ে হামলাও হয়েছিল। এতে মদদ দিয়েছিলেন এমপি কবরী। পরে কেন্দ্রীয় কমিটি সোহেলকে শোকজ করে। তখন সোহেল ‘নেতা’ বদল করে আবারো শামীম ওসমান বলয়ে চলে যান।

তার আমলের ৫ বছরে নারায়ণগঞ্জের অন্যসব এলাকায় যথেষ্ট উন্নয়ন কাজ হলেও কবরীর এলাকায় তেমন কোনও উন্নয়ন না হওয়ারও অভিযোগ আছে সাধারণ মানুষের। অভিযোগ রয়েছে, অনেক প্রকল্প থেকে বেশি মাত্রায় কমিশন চাওয়ায় কাজ বন্ধ করে দিতে বাধ্য হত সংশ্লিষ্টরা। কবরীর সময়ে সবচেয়ে কষ্টে ছিলেন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানগণ। কাবিখা, টিআর প্রকল্পে কবরীর নির্ধারিত ১০ পার্সেন্ট না রাখলে সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যানদের ‘খবর’ হয়ে যেতো। ভিজিডি, ভিজিএ স্লিপেও তার নিয়ন্ত্রণ ছিল। সেন্টুর ক্যাডার বাহিনীর সদস্যরা তখন এসব নিয়ন্ত্রন করতো।

এসব অভিযোগের কথা জানিয়ে কবরীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি নিউজবাংলাদেশ.কমকে বলেন, “এগুলো সব মিথ্যা এবং ষড়যন্ত্রমূলক কথা। আমি নারায়ণগঞ্জে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়েছি। এখন তারাই আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। আমি ১৬ কোটি মানুষের প্রিয়। সিনেমায় আমার ৫০ বছর পূর্তি হয়েছে। মানুষ আমাকে ভালোবাসে বলেই আমি এতবছর চলচ্চিত্র দিয়ে সবাইকে মাতিয়ে রেখেছি।”

তিনি আরও বলেন, “ফতুল্লাকে আমি যেভাবে আধুনিক করে তুলেছি, সন্ত্রাসমুক্ত করেছি সেভাবে আমি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনকেও আধুনিক ঢাকা হিসেবে গড়ে ‍তুলতে পারবো। আমি প্রধানমন্ত্রীর আশীর্বাদ নিয়েই নির্বাচনে লড়ছি।

‘তবে প্রধানমন্ত্রী তো আনিসুল হককে সমর্থন করেছেন’ উল্লেখ করতেই তিনি বলেন, “আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছি। তিনি আমাকে সরে দাঁড়াতে বলেননি। এতেই বোঝা যায় এটা তার আশীর্বাদ।”
নিউজবাংলাদেশ.কম/একে

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা