artk
সোমবার, অক্টোবার ২৬, ২০১৫ ৩:১৮

পাবনায় এক ডজন বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা আবাসন সংকটে

media

পাবনা: পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পাবিপ্রবি), মেডিকেল কলেজ ও টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজসহ পাবনার প্রায় ১২টি বড় ও গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৪০ হাজার শিক্ষার্থী আবাসন সংকটে রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে রয়েছে মোট প্রায় ৫০ হাজার শিক্ষার্থী।

আবাসন ব্যবস্থা না থাকায় বাধ্য হয়ে অধিকাংশ শিক্ষার্থী মেসে থাকছে। খরচ বাঁচাতে তারা অস্বাস্থ্যকর মেসে গাদাগাদি করে থাকে। এসব মেসের বেশিরভাগে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই। খাবারের মান যেমন নিম্নমানের তেমনি রয়েছে বিশুদ্ধ পানির অভাব।

শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা জানায়, পাবনার সবগুলো প্রতিষ্ঠানে সবমিলিয়ে আড়াই থেকে তিন হাজার শিক্ষার্থীর আবাসন ব্যবস্থা আছে। এছাড়া পাঁচ থেকে সাত হাজার শিক্ষার্থী নিজের বাড়ি থেকে পড়াশোনা করে। বাদবাকি ৪০ হাজার শিক্ষার্থীকে ভাড়া বাসায় বা মেসে থেকে পড়াশোনা করতে হচ্ছে।

জেলা এ শহরে বড় ও গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে, সরকারি শহিদ বুলবুল কলেজ, শহিদ এম মনসুর আলী কলেজ, পাবনা কলেজ, সিটি কলেজ ও আদর্শ মহিলা কলেজ। কিন্তু এসব প্রতিষ্ঠানে কোনো আবাসন ব্যবস্থা নেই। পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা মেডিকেল কলেজ, সরকারি অ্যাডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, পাবনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, পাবনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ও পাবনা সরকারি মহিলা কলেজে কিছু আবাসন ব্যবস্থা থাকলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম।

এসব মেসের বেশিরভাগেরই নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই। গত বছরের ৩০ আগষ্ট রাতে অ্যাওয়ার্ড কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের অনার্স শেষ বর্ষের ছাত্র মাসুদ তার মেসের ভিতরে সন্ত্রাসীদের রিভলভারের গুলিতে খুন হন।

এবছর ২৬ মে সকালে দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র লুৎফর রহমান রাহী মেডিকেল কলেজের অরক্ষিত হোস্টেল চত্বর থেকে অপহৃত হন। অপহরণকারীরা তাকে ঢাকা নিয়ে গিয়ে পুলিশি তৎপরতার কারণে চার-পাঁচদিন পর ছেড়ে দেয়।

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (পাবিপ্রবি) ১৩টি বিভাগে বর্তমানে প্রায় সাড়ে তিন হাজার শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছেন। এদের মধ্যে আবাসন সুবিধা পেয়েছেন মাত্র পাঁচশো জন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী জানিয়েছেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ভাড়া বাড়িতে আবাসনের ব্যবস্থা করলেও সেখানে গাদাগাদি করে থাকতে হয়। অনেক সময় রান্নাঘর ও খাবার ঘরেও থাকতে হয় শিক্ষার্থীদের।

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ বিভাগের সহকারী পরিচালক ফারুক হোসেন চৌধুরী নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “নতুন বিশ্ববিদ্যালয় হওয়ায় শিক্ষার্থীদের কিছুটা আবাসনের সমস্যা আছে। তবে মেয়েদের জন্য ভাড়া করা ভবনে আবাসন ব্যবস্থা করা হয়েছে। আরো পাঁচশো শিক্ষার্থীর জন্য নতুন দুটি আবাসিক হলের নির্মাণ কাজ চলছে।”

জেলার সবচেয়ে বড় ও প্রাচীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি অ্যাডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ১৭টি বিষয়ে বর্তমানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ২৫ হাজার। কলেজে ছাত্রাবাস আছে তিনটি এবং ছাত্রীনিবাস দুটি। এতে আবাসন সুবিধা পাচ্ছে মাত্র ৭৫০ জন। কলেজের চারটি বাসে জেলার সুজানগর, কাশীনাথপুর, ঈশ্বরদী ও চাটমোহর এলাকা থেকে গাদাগাদি করে আনা-নেওয়া করা হয় ৩৫০ থেকে ৪০০ শিক্ষার্থীকে। বাকি সবাই কলেজের আশপাশে বিভিন্ন মেসে থাকে।

কলেজের প্রধান সহকারী বাবুল আক্তার নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “দুটি নতুন হল ও দুটি বাসের জন্য বহুবার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখনো কোনো বরাদ্দ আসেনি।”

পাবনা মেডিকেল কলেজে মানসিক হাসপাতালের দুটি পরিত্যক্ত কটেজে ছাত্রদের দুটি হোস্টেল করা হয়েছে। বেশ আগে বিত্তবান পরিবারের মানসিক রোগীদের পরিবারের লোকদের থাকার জন্য মানসিক হাসপাতাল চত্বরে এ কটেজগুলো করা হয়। পরিত্যক্ত অবস্থায় থাকা এ কটেজ দুটি নামেমাত্র মেরামত করে ছাত্রদের আবাসনের ব্যাবস্থা করা হয়েছে। ছাত্রীদের আবাসনের ব্যাবস্থা চারটি পরিত্যক্ত ভবনে।

দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র জ্যাকি বলেন, “জায়গা সংকটের কারণে প্রথম বর্ষের ছাত্র-ছাত্রীদের মেঝেতেও থাকতে হয়। হোস্টেলের দেয়াল ও ছাদ থেকে চুন-সুরকি খসে পড়ে। টয়টেল ও বাথরুমের অবস্থাও বেহাল। আরও বড় সমস্যা নিরাপত্তার অভাব। হুটহাট করে লোক ঢুকে পড়ে। মাদকাসক্তরা প্রায়ই হোস্টেলে ঢুকে এটা-ওটা নিয়ে যায়।”

পাবনা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. রিয়াজুল হক রেজা নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “নতুন কলেজে কিছু সমস্যা থাকেই। তবে হোস্টেল নির্মাণ কাজ চলছে। কিছুদিনের মধ্যে সংকট সমাধান হবে।”

সরকারি মহিলা কলেজে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় দুই হাজার। একটি ছাত্রীনিবাসে আবাসন ব্যাবস্থা রয়েছে মাত্র ৮৫ জনের। অন্যরা থাকছেন আত্মীয়-স্বজনেরর বাড়ি ও মেসে।

সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ফজলুল হক নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “একটি আবাসিক হল নির্মাণ করার জন্য বরাদ্দ চেয়ে দীর্ঘদিন ধরে আমরা আবেদন করে আসছি। কলেজের পর্যাপ্ত জমিও আছে, কিন্তু বরাদ্দ পাওয়া যাচ্ছে না।”

সরকারি শহিদ বুলবুল কলেজে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় সাড়ে চার হাজার। বেশির ভাগ শিক্ষার্থী জেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে এসে এখানে পড়ালেখা করে। কিন্তু দীর্ঘদিনেও কলেজটিতে কোনো আবাসনের ব্যবস্থা করা হয়নি।”

পাবনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় এক হাজার। এখানে ৫০ আসনের একটি ছাত্রীনিবাস এবং ২০৫ আসনের একটি ছাত্রাবাস আছে। দীর্ঘদিনের পুরনো হওয়ায় ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে ভবনগুলো। বেশির ভাগ ভবনে বড় বড় ফাটল দেখা দিয়েছে।

ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ মো. মুরাদ হোসেন মোল্লা নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “আবাসনসংকটে ছেলেরা পরিত্যক্ত ভবনেই ঝুঁকি নিয়ে থাকছে। আমরা বহুবার নতুন হল চেয়ে আবেদন করেছি।”

পাবনা মেডিকেল কলেজের মনোরোগ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জুবায়ের মিয়া নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “পাবনা শহরের বিভিন্ন মেসে শিক্ষার্থীরা অস্বাস্থ্যকরভাবে একই কক্ষে গাদাগাদি করে থাকে। একই স্থানে বহু মানুষ গোসল করে এবং একই শৌচাগার ব্যবহার করে। ফলে বিভিন্ন ধরনের চর্ম, যৌন ও পানিবাহিত রোগের আশঙ্কা থাকে।”

তিনি আরো বলেন, “এছাড়া মেসের খাবার কম পুষ্টিকর হয়। ফলে শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুষ্টিহীনতাও রয়েছে। সুস্থ বিনোদনের অভাবে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উদ্বিগ্নতা, বিষন্নতা ও উচ্ছৃঙ্খলতা দেখা দেয়। এতে তাদের মাদকাসক্তি ও অসামাজিক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকে।”

নিউজবাংলাদেশ.কম/এটিএস

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা