artk
বৃহস্পতিবার, নভেম্বার ২১, ২০১৯ ১১:০৭   |  ৭,অগ্রহায়ণ ১৪২৬
রোববার, মার্চ ১৫, ২০১৫ ৭:৫৫

চিকিৎসকদের অবহেলায় সরকারি কর্মকর্তার মৃত্যুর অভিযোগ

media

ঢাকা: স্কয়ার হাসপাতালের চিকিৎসকদের অবহেলায় তথ্য অধিদপ্তরের জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা মারা গেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। তথ্য অধিদপ্তরের জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানার স্বামী  কাজী আহসান উল হাসিব এ অভিযোগ করেন।

কাজী আহসান উল হাসিব আজ রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে চিকিৎসকদের অবহেলায় সরকারি কর্মকর্তা মারা যাওয়ার ঘটনায় শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিল তানিয়া-হাসিব দম্পতির এক মাস বয়সী ছেলে কাজী আরিব আহনাফ ও ছয় বছর বয়সী ছেলে কাজী রায়েদ আরিয়ান।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, গত ১২ ফেব্রুয়ারি স্কয়ার হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে তানিয়া সুলতানার ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। তিনি স্কয়ার হাসপাতালের স্ত্রীরোগ ও প্রসূতিবিদ্যা বিশেষজ্ঞ নাসিমা শাহীনের তত্ত্বাবধানে ছিলেন। ১৬ ফেব্রুয়ারি শ্বাসকষ্টের কারণে তাঁকে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে স্থানান্তর করা হয়। এ সময় তিনি খালেদ মহসিনের তত্ত্বাবধানে ছিলেন। একদিন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রেখেই তানিয়াকে কেবিনে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। কেবিনে কোনো ‘কার্ডিয়াক মনিটর’ ছিল না। রোগী ও তাঁর স্বজন বারবার চিকিৎসক খালেদ মহসিনকে শ্বাসকষ্টের কথা জানালেও চিকিৎসক কর্ণপাত করেননি। ১৯ ফেব্রুয়ারি ভোর সাড়ে চারটার দিকে তানিয়া মারা যান। মৃত্যুর আগে তাঁকে করোনারি কেয়ার ইউনিটে নেওয়া হয়।

তিনি বলেন, তানিয়ার মৃত্যুসনদে লেখা হয়েছে, তিনি হৃদ্‌যন্ত্রের মারাত্মক সমস্যায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে সন্তান জন্মের আগে কখনো তাঁর হৃদ্‌যন্ত্রে কোনো সমস্যা আছে বলে চিকিৎসকেরা তানিয়ার পরিবারকে জানাননি।

কাজী আহসান উল হাসিব স্ত্রীর মৃত্যুর পর খালেদ মহসিনের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান। এ ছাড়া সপ্তাহ খানেক আগে হাসপাতালের চিকিৎসাবিষয়ক পরিচালক সানোয়ার হোসেনের সঙ্গে দেখা করে অভিযোগ জানালেও স্কয়ার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অভিযোগের কোনো জবাব দেয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্কয়ার হাসপাতালের চিকিৎসাবিষয়ক পরিচালক সানোয়ার হোসেন সপ্তাহ খানেক পর এ বিষয়ে কিছু জানানো সম্ভব হবে বলে জানান।

সংবাদ সম্মেলনে তানিয়ার স্বামী প্রশ্নের জবাবে বলেন, ছেলের জন্ম ও স্ত্রীর চিকিৎসায় প্রায় আড়াই লাখ টাকা খরচ হয়েছে।

তানিয়া ১৯৯৪ সালে ঢাকা বোর্ডে স্ট্যান্ড করেছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পর সরকারি চাকরিতে যোগ দেন। তানিয়ার বাবা আমানুল্লাহসহ পরিবারের বেশ কয়েকজন চিকিৎসা পেশায় আছেন।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসজে

সশস্ত্র বাহিনী দিবসে শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা তিনদিনব্যাপী ‘শালুক’-এর নিবিড় সম্মিলন শুরু শুক্রবার ভারতের সাথে ১০০ কোটি ডলারের নৌ-অস্ত্র চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসে কর্মবিরতি প্রত্যাহার মালিক-শ্রমিকদের চেকপোস্টে ডাকাতের হামলা, ৪ পুলিশ আহত মেলায় রাজস্ব আদায় ২৬১৩ কোটি টাকা রাজধানী সুপার মার্কেটের আগুন নিয়ন্ত্রণে ময়মনসিংহে এক বাড়িতেই ৭ হাজার কেজি লবণ ট্রান্সফাররেবল এলসির সঠিক ব্যবহারে বায়িং হাউজের দক্ষতা বাড়ানো জরুরী জনগণকে শাস্তি দেবেন না প্লিজ: কাদের কাউন্সিলর সাঈদের বিরুদ্ধে মামলা সৈয়দ নূরুল আলমের ‘আমার জীবন ও উন্নয়নের ৪৪ বছর’ টিকাটুলিতে রাজধানী সুপার মার্কেটে ভয়াবহ আগুন শিগগিরই ২২১ বন্ড লেনদেনযোগ্য হবে দেশের মানুষ এখন খোলা জেলে বন্দী: মির্জা আব্বাস ধর্মঘটের প্রভাব চালের বাজারে পড়বে না: খাদ্যমন্ত্রী বায়ুদূষণে শীর্ষে ঢাকা, ২৫ নভেম্বর আন্তমন্ত্রণালয় সভা চট্টগ্রামে পাহাড়ে অস্ত্র তৈরির কারখানা: ২০ অস্ত্রসহ ‘ডাকাত সর্দার’ গ্রেপ্তার ঢাকা-চট্টগ্রাম-সিলেট মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক বাস নেই, ভোগান্তি মাথায় নিয়ে হাঁটছে মানুষ ভুঁড়িওয়ালা পুরুষের কদর বেশি কেন নারীর কাছে ? সায়েদাবাদ থেকে দূরপাল্লার বাস বন্ধ শিক্ষকের থাপ্পড়ে কান ফাটলো ছাত্রের রাজধানীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত আমার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চালালে অনেক এমপি-মন্ত্রীর যাবজ্জীবন হবে: নাজমুল আইনের লাগাম ছেড়ার ধর্মঘটে সারাদেশে অচলাবস্থা দিনাজপুরে ট্রাকচাপায় ২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত কাউন্সিলর রাজিবের তিন গাড়ি জব্দ সেফুদার সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ লবণ নিয়ে গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা: সরকার