artk

আহমদ সিফাত

রোববার, ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০২০ ৫:১৮

অমর একুশে থেকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

media

ভাষার জন্য ভালোবাসা, মাতৃভাষায় কথা বলার তীব্র আকুতি, অধিকার প্রতিষ্ঠার প্রবল জেদ এবং পরিশেষে ভাষার দাবিতে বাঙালির আত্মত্যাগের এক মর্মান্তিক ইতিহাস সব মিলেমিশে একাকার হয়ে আছে এই দিনটিতে।

একুশে ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সহ সমস্ত বাংলা ভাষাভাষী জনগণের গৌরবোজ্জ্বল একটি দিন। এটি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসাবেও সুপরিচিত।

ভাষার জন্য ভালোবাসা, মাতৃভাষায় কথা বলার তীব্র আকুতি, অধিকার প্রতিষ্ঠার প্রবল জেদ এবং পরিশেষে ভাষার দাবিতে বাঙালির আত্মত্যাগের এক মর্মান্তিক ইতিহাস সব মিলেমিশে একাকার হয়ে আছে এই দিনটিতে। ১৯৫২ সালের এই দিনে (৮ ফাল্গুন, ১৩৫৮) বাংলাকে পূর্ব পাকিস্তানের অন্যতম রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে আন্দোলনরত ছাত্রদের ওপর পুলিশের গুলিবর্ষণে কয়েকজন তরুণ শহীদ হন। তাদের মধ্যে অন্যতম হলো রফিক, জব্বার, শফিউল, সালাম, বরকত সহ অনেকেই। তাই এ দিনটি শহীদ দিবস হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আছে। ২০০০ সালে জাতিসংঘ কর্তৃক গৃহীত সিদ্ধান্ত মোতাবেক প্রতিবছর একুশে ফেব্রুয়ারি বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়। ২০১০ সালের ২১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৬৫তম অধিবেশনে এখন থেকে প্রতিবছর একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করবে জাতিসংঘ এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব সর্বসম্মতভাবে পাস হয়েছে। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালনের প্রস্তাবটি সাধারণ পরিষদের ৬৫তম অধিবেশনে উত্থাপন করে বাংলাদেশ। ২০১২ সালের মে মাসে ১১৩ সদস্যবিশিষ্ট জাতিসংঘের তথ্যবিষয়ক কমিটিতে প্রস্তাবটি সর্বসম্মতভাবে পাস হয়।

আমরা হয়তো এইটুকু জানি, কিন্তু অনেকেই জানিনা কাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে আমাদের মহান শহীদ দিবস আজকের আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ভাষা শহীদদের স্মরণে আমরা ঠিকই গেয়ে যাই আমরা তোমাদের ভুলবনা কিন্তু অনেক কিছুই আমরা ভুলে যাই।

১৯৫২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৪৪ ধারা ভেঙ্গে সালাম-রফিক পুলিশের গুলিতে প্রাণ দিয়ে একুশে ফেব্রুয়ারিকে অমর করেছিলেন। তার ৪৬ বছর পরে আরেক সালাম-রফিক সুদূর কানাডায় বসে শহীদ দিবসকে এনে দিলেন আন্তর্জাতিক সম্মান।

১৯৯৮ সালের ৯ই জানুয়ারী রফিকুল ইসলাম নামে এক কানাডা প্রবাসী বাংলাদেশি জাতিসংঘের তৎকালীন জেনারেল সেক্রেটারী কফি আনানকে একটি চিঠি লেখেন। সেই চিঠিতে রফিক ১৯৫২ সালে ভাষা শহীদদের অবদানের কথা উল্লেখ করে কফি আনানকে প্রস্তাব করেন ২১শে ফেব্রুয়ারিকে যেন মাতৃভাষা দিবস হিসেবে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি দেয়া হয়।

চিঠিটি সে সময় সেক্রেটারী জেনারেলের প্রধান তথ্য কর্মচারী হিসেবে কর্মরত হাসান ফেরদৌসের নজরে আসে। তিনি ১৯৯৮ সালের ২০ শে জানুয়ারী রফিককে উপদেশ দেন জাতিসংঘের অন্য কোন সদস্য রাষ্ট্রের কারো কাছ থেকে একই ধরনের প্রস্তাব আনার ব্যবস্থা করতে।

উপদেশ মোতাবেক রফিক তার সহযোদ্ধা নৌ প্রকৌশলী আব্দুস সালামকে সাথে নিয়ে এ গ্রুপ অব মাদার ল্যাংগুয়েজ অফ দ্যা ওর্য়াল্ড নামে একটি সংগঠন দাঁড় করান। এতে একজন ইংরেজীভাষী, একজন জার্মানভাষী, একজন ক্যান্টোনিজভাষী, একজন কাচ্চিভাষী সদস্য ছিলেন। তারা আবারো কফি আনানকে সংগঠনের পক্ষ থেকে একটি চিঠি লেখেন, এবং চিঠির একটি কপি ইউএনওর কানাডিয়ান এম্বাসেডর ডেভিড ফাওলারের কাছেও প্রেরণ করেন।

১৯৯৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে হাসান ফেরদৌস সাহেব রফিক এবং সালামকে ইউনেস্কোর ভাষা বিভাগের জোশেফ পডের সাথে দেখা করতে বলেন। তারা জোশেফের সাথে দেখা করার পর জোশেফ তাদের ইউনেস্কোর আনা মারিয়ার সাথে দেখা করতে বলেন।

আনা মারিয়ার সাথে দেখা করার পর তার দেয়া নির্দেশনাই মূলত রফিক-সালামের প্রচেষ্টাকে অনেক সহজ করে দেয়। আনা মারিয়া রফিক-সালামের কথা মন দিয়ে শোনেন এবং তারপর পরামর্শ দেন তাদের প্রস্তাব বাংলাদেশ সহ ৫ টি সদস্য দেশ আনতে হতে হবে।

সে সময় বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রী এম এ সাদেক এবং শিক্ষা সচিব কাজী রকিবুদ্দিন, অধ্যাপক কফিলউদ্দিন আহমেদ, মশিউর রহমান (প্রধানমন্ত্রীর সেক্রেটারিয়েটের তৎকালীন ডিরেক্টর), সৈয়দ মোজাম্মেল আলি (ফ্রান্সে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত), ইকতিয়ার চৌধুরী (কাউন্সিলর), তোজাম্মেল হক (ইউনেস্কোর সেক্রেটারি জেনেরালের শীর্ষ উপদেষ্টা) সহ অন্য অনেকেই বিষয়টিতে জড়িত হন। তারা দিন রাত ধরে পরিশ্রম করে আরো ২৯ টি দেশ থেকে প্রস্তাবটির পক্ষে সমর্থন আদায় করেন।

১৯৯৯ সালের ৯ ই সেপ্টেম্বর। ইউনেস্কোর প্রস্তাব উত্থাপনের শেষ দিন। তখনো প্রস্তাব এসে পৌঁছায়নি। রফিক সালামেরা ব্যাপারটি নিয়ে অস্থির সময় পার করছেন। প্রস্তাবটিতে প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর বাকি। পার্লামেন্টের সময়সূচীর পরে সই করতে করতে প্রস্তাব উত্থাপনের সময়সীমা পার হয়ে যাবে। সেটা আর সময় মত ইউনেস্কো পৌঁছুবে না। সব পরিশ্রম জলেই যাবে বোধ হয়।

প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করে অনুরোধ করা হলো তিনি যেন প্রস্তাবটি স্বাক্ষর করে ইউনেস্কো দপ্তরে ফ্যাক্স করে দেন। অফিসের সময়সীমা শেষ হবার মাত্র একঘণ্টা আগে ইউনেস্কোর অফিসে ফ্যাক্স পৌঁছে।

১৬ই নভেম্বর কোন এক অজ্ঞাত কারণে প্রস্তাবটি ইউনেস্কোর সভায় উত্থাপন করা হয়নি না। পর দিন ১৭ই নভেম্বর, ১৯৯৯। প্রস্তাবটি উত্থাপন করা হলো সভার প্রথমেই। ১৮৮ টি দেশ এতে সাথে সাথেই সমর্থন জানালো। কোন দেশই এর বিরোধিতা করলোনা, এমনকি খোদ পাকিস্তানও নয়। সর্বসম্মতিক্রমে একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে গৃহীত হলো ইউনেস্কোর সভায়।

পাস হওয়া প্রস্তাবটি ১৭ নভেম্বর সাধারণ সম্মেলনে রুটিন বিষয় হিসেবেই গৃহীত হয়। ৪ জানুয়ারি ২০০০ তারিখে ইউনেস্কোর মহাপরিচালক কাইচিরো মাটসুরা এক চিঠিতে ইউনেস্কোর সব সদস্য রাষ্ট্রের প্রতি তখন থেকে প্রতি বছর ২১ ফেব্রুয়ারি 'আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস' হিসেবে পালনের আহ্বান জানান।

এভাবেই একুশে ফেব্রুয়ারি একটি আন্তর্জাতিক দিনে পরিণত হলো। কিন্তু এতো কিছুর পরেও প্রচার বিমুখ মানুষ হওয়ায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের মূল উদ্যোক্তা রফিক এবং সালাম বর্তমান প্রজন্মের কাছে অচেনাই রয়ে গেলেন। তাদের ত্যাগ তিতিক্ষা আর পরিশ্রম অজ্ঞাতই থেকে গেল।

বাংলা ভাষার মর্যাদা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেয়ার অসাধারণ অবদানের জন্য ২০১৬ সালে দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার হিসাবে তাদের মাতৃভাষায় স্বাধীনতা পুরস্কার প্রদান করা হয়।

মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম কানাডার ভ্যাঙ্কুভার হাসপাতালে ২০১৩ সালে ২২ নভেম্বর স্থানীয় সময় ভোর সোয়া সাতটায় মৃত্যুবরণ করেন।

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা