artk

বিদেশ ডেস্ক

বুধবার, ডিসেম্বার ১১, ২০১৯ ৩:৪৫

রাখাইন বিষয়ে অসম্পূর্ণ-বিভ্রান্তিকর চিত্র তুলে ধরেছে গাম্বিয়া: সু চি

media

গাম্বিয়া রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতির অসম্পূর্ণ এবং বিভ্রান্তিকর বাস্তব চিত্র তুলে ধরেছে বলে জাতিসংঘের শীর্ষ আদালতে মন্তব্য করেছেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি।

গাম্বিয়া রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতির অসম্পূর্ণ এবং বিভ্রান্তিকর বাস্তব চিত্র তুলে ধরেছে বলে জাতিসংঘের শীর্ষ আদালতে মন্তব্য করেছেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি।

মিয়ানমারের রাখাইনে গণহত্যার দায়ে দায়েরকৃত মামলার দ্বিতীয় দিনের শুনানি শুরু হয়েছে। বুধবার নেদারল্যান্ডসের রাজধানী দ্য হেগে এ শুনানি শুরু হয়। গাম্বিয়ার দায়েরকৃত মামলার শুনানির জবাবে অংশ নিয়ে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি এ মন্তব্য করেন। 

বক্তব্যের শুরুতে সু চি আর্ন্তজাতিক আইন ও সনদসমূহের বাধ্যবাধকতার বিষয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, গণহত্যার উদ্দেশে অভিযান পরিচালনার অভিযোগে বিচার শুরু হয়েছে। রাখাইনে মানবাধিকার লঙ্ঘন কোনোভাবেই মেনে নেবে না আমাদের সরকার। যখন দেশের বিচার ব্যবস্থা ব্যর্থ হবে, শুধু তখনই আন্তর্জাতিক বিচার আদালত এর বিচার করতে পারবে।

তিনি বলেন, যেসব সেনার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ প্রমাণিত হবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। যদি মিয়ানমার সামরিক বাহিনী এমন কোনো কাজ করে থাকে; যেখানে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে। তাহলে দেশের সংবিধান অনুযায়ী তাদের বিচার হবে।

রাখাইন পরিস্থিতি জটিল এবং রোহিঙ্গারা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন বলে স্বীকার করেছেন সু চি।

মঙ্গলবার নেদারল্যান্ডসের রাজধানী দ্য হেগে জাতিসংঘের শীর্ষ এই আদালতে সাবেক গণতন্ত্রের প্রতীক সু চিকে রোহিঙ্গা গণহত্যা বন্ধের আহ্বান জানায় মামলার বাদী আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া। মিয়ানমারের সামরিক জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে টানা আন্দোলন করে বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত হয়েছিলেন সু চি; কিন্তু এখন সেই সেনাবাহিনীর পক্ষ নিয়েই গণহত্যার দায় এড়াতে আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড়ালেন।

২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইনে রক্তাক্ত এক সামরিক অভিযান চালিয়ে ৭ লাখ ৪০ হাজারের বেশি মানুষকে দেশ ত্যাগে বাধ্য করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। রক্তাক্ত এই অভিযানে ধর্ষণ, গণধর্ষণ, হত্যা, জ্বালাও-পোড়াও চালানো হয়। প্রাণে বাঁচতে সেই সময় রোহিঙ্গাদের ঢল নামে প্রতিবেশী বাংলাদেশে।

পশ্চিম আফ্রিকার ক্ষুদে মুসলিম দেশ গাম্বিয়া ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) সদস্যদের উৎসাহে গণহত্যার দায়ে মামলা করে মিয়ানমারকে আন্তর্জাতিক আদালতে তোলে।

সকালের যেসব অভ্যাস আপনাকে সজিব রাখবে যশোরে গৃহবধু ধর্ষণ: খায়রুলের সম্পৃক্ততা পায়নি পিবিআই নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসছে শাসকগোষ্ঠীর সন্ত্রাসীরা তত হিংস্র হচ্ছে: ফখরুল ৩২৯টি কারিগরি স্কুল স্থাপনে ২০৫২৫কোটি টাকার প্রকল্পের অনুমোদন দুর্নীতির তথ্য পেলে ছাড় নয়: ক‌মিশনার আমিনুল দীর্ঘ মেয়াদে অধিনায়কত্ব চান মাহামুদউল্লাহ রিয়াদ ডিবিএর সভাপতি শরীফ আনোয়ার সহ-সভাপতি আলী ও রোজারিও ঢাকা ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তাসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট স্কটল্যান্ডকে ৭ উইকেটে হারিয়ে সুপার লিগে বাংলাদেশ পুঁজিবাজারে সূচক পতন বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কার্যক্রম শুরু বুধবার পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিততে চায় টাইগাররা শেষ বলে নাটকীয় জয়ে ফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা মুশফিকের না যাওয়াকে পূর্ণ সমর্থন মাহমুদউল্লাহর ইবিতে দু’পক্ষের সংঘর্ষ: ছাত্রলীগ সম্পাদকসহ আহত ১৬ যার যতই ক্ষমতা থাকুক, কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়: আইনমন্ত্রী রিফাত হত্যা: মিন্নির আবেদন খারিজ ঢাবির হলগুলোতে ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ উদ্বোধন ২৩ জানুয়ারি রকিবুলের হ্যাটট্রিকে ৮৯ রানে অলআউট স্কটল্যান্ড পাকিস্তান সফরের আগে পাঞ্জাবে তিন সন্ত্রাসী আটক পুঁইশাকে ভাগ্য বদল কালীগঞ্জের জাহাঙ্গীরের শিল্প-কারখানার বর্জ্য ব্যবস্থাপনা শক্তিশালী করার নির্দেশ ব্যালটে ভোট চায় বিএনপি রাজধানীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে কারখানার মালিকের মৃত্যু মানুষের মাধ্যমেই ছড়াচ্ছে চীনের রহস্যজনক ভাইরাস মৌলভীবাজারে যুবককে কুপিয়ে হত্যা সাবেক প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক আর নেই আবরার হত্যার চার্জ গঠন শুনানি ৩০ জানুয়ারি তাবিথের প্রচারণায় হামলা শ্রীলংকায় গৃহযুদ্ধে নিখোঁজ সবাই নিহত: প্রেসিডেন্ট