artk

স্টাফ রিপোর্টার

রোববার, ডিসেম্বার ৮, ২০১৯ ৫:২০

খালেদার জামিন নিয়ে সরকার ‘জঘন্য নাটক’ করছে: ফখরুল

media

ফাইল ফটো

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে সরকার ‘জঘন্য নাটক’ করছে বলে অভিযোগ করেছেন দলের মহসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে সরকার ‘জঘন্য নাটক’ করছে বলে অভিযোগ করেছেন দলের মহসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক যৌথসভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘দেশে এখন আইনের শাসন নেই। তারা (সরকার) এখন দেশ প্রেমিক ও সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে জঘন্য নাটক করছে। দয়া করে নাটক বাদ দিয়ে দেশনেত্রীকে জামিন নিয়ে বেঁচে থাকার ব্যবস্থা করুন।’

খালেদার খারাপ কিছু হলে দেশের মানুষ কখনই সরকারকে ক্ষমা করবে না বলে সতর্ক করে দিয়ে বিএনপি নেতা বলেন, ‘খালেদা জিয়ার অবস্থা নিয়ে দেশের মানুষ এখন অবগত রয়েছে।’

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগ জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদার জামিন আবেদনের শুনানি পিছিয়ে ১২ ডিসেম্বর ধার্য করে। সেই সাথে তার চিকিৎসায় নিয়োজিত বিএসএমএমইউর মেডিকেল বোর্ড ২৮ নভেম্বরের আদেশ অনুযায়ী খালেদার শারীরিক অবস্থার প্রতিবেদন বৃহস্পতিবার জমা দিতে না পারায় তাদের এ প্রতিবেদন ১২ ডিসেম্বর জমা দিতে বলে আদালত।

ওই দিন আদালত চত্বরে বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীদের হট্টগোলের পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের সমালোচনা জবাবে ফখরুল ২০০৬ সালের ৩০ নভেম্বরের কথা মনে করিয়ে দেন।

তিনি বলেন, ‘জামিন শুনানির সময় আমাদের নেত্রী খালেদার পক্ষে দাঁড়ানোয় জঘন্য অপরাধ হয়েছে বলে সরকারের মন্ত্রীরা আমাদের আইনজীবীদের সমালোচনা করছে। কিন্তু এ ধরনের মন্তব্যের আগে একটু পিছনে ফিরে তাকান। আমাদের আইনজীবীরা খারাপ কিছু করেনি। তারা নিজেদের স্থানে থেকেই ন্যায়বিচারের দাবি জানিয়েছে।’

সাংবাদিকদের কিছু ছবি দেখিয়ে বিএনপি নেতা বলেন, ‘২০০৬ সালের ৩০ নভেম্বর আওয়ামী লীগের আইনজীবীরা আদালত চত্বরে লাঠি নিয়ে মিছিল করেছে এবং প্রধান বিচারপতির চেম্বার লণ্ডভণ্ড করেছে।’

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা আদালত চত্বরে পার্ক করে রাখা আইন প্রতিমন্ত্রী শাহজাহান ওমরের গাড়িতে আগুন দিয়েছিল।

তিনি বলেন, ‘যারা এ ধরনের ক্রিয়াকলাপে লিপ্ত ছিল তাদের অনেককে পরে বিচারক হিসাবে নিয়োগ দেয়া হয়েছিল, কিন্তু এখন আপনি হুমকি দিচ্ছেন এবং বলছেন যে আমাদের আইনজীবীদের আচরণটি ক্ষমাযোগ্য নয়। তাই, অতীতে সুপ্রিম কোর্টে আপনি কী করেছিলেন তা আপনাকে স্মরণ করিয়ে দেয়া দরকার।

চাঁদপুরে ৪ টি ইটভাটা গুড়িয়ে ৪৪ লাখ টাকা জরিমানা আদনান সামির নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন রাজা মুরাদের স্কাউটরাই জাতির পিতার স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে নেতৃত্ব দেবে: রাষ্ট্রপতি চীনে ভাইরাস: শাহজালাল বিমানবন্দরে বিশেষ সতর্কতা বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম মানব ‘নিওন’ খান টোবকোর সত্বাধিকারী সহ ২ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট বাবার সাথে অভিমান কিশোরীর আত্মহত্যা ওয়েট অ্যান্ড সি: সাঈদ খোকনের ব্যাপারে দুদক চেয়ারম্যান আগামীতে আইসিসির সব আয়োজনে বিড করবে বাংলাদেশ: পাপন যশোরে ৯৪টি সোনার বারসহ ৩ যুবক আটক ১৯ সদস্যের প্রাথমিক টেস্ট দল ঘোষণা পাকিস্তানের পুঁজিবাজারে সূচক উত্থান ৯ মাসে যানজট নিরসন করতে দেখিনি, ৩ মাসে কি করবেন: আতিকুলকে তাবিথ নির্বাচনকে বিএনপি তাদের নেত্রীকে মুক্ত করার আন্দোলন মনে করছে: তাপস ইনিংস ব্যবধানে হারের আগে মহারাজের লড়াই দলের প্রয়োজনে জ্বলে উঠতে প্রস্তুত শান্ত সিঙ্গেল ডিজিটে সুদের ঋণ হলে বিনিয়োগ বাড়বে: ডিসিসিআই সভাপতি যুব বিশ্বকাপ: অচেনা স্কটল্যান্ডকেও হারাতে মরিয়া যুবটাইগাররা ব্রিজে ছবি তুলতে গিয়ে ধসে পড়ে নিহত ৯ আচরণবিধি বিধি লঙ্ঘন ঠেকানো না হলে জনগণের আস্থার সঙ্কট হবে: মাহবুব ইনজামাম-ধোনিকে টপকে গেলেন কোহলি লিফট দুর্ঘটনায় করণীয় দেশে ভোটার ১০ কোটি ৯৬ লাখ ৬ হাজার ১৮৭ খুলনায় যুবককে হত্যার দায়ে ৬ জনের যাবজ্জীবন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করবে: মার্কিন রাষ্ট্রদূত আরও ১৪ জেলার শিক্ষক নিয়োগ হাইকোর্টে স্থগিত বিজেপির নতুন সভাপতি হলেন জেপি নাড্ডা শেখ হাসিনার জনসভায় গণহত্যার মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড বাংলাদেশি অর্থ পাচারকারীদের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের মানববন্ধন রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারকে সহায়তা দিবে চীন