artk

স্টাফ রিপোর্টার

রোববার, ডিসেম্বার ৮, ২০১৯ ১:২৭

রুম্পার বন্ধু সৈকতকে রিমান্ডে চায় পুলিশ

media

স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির ছাত্রী পুলিশকন্যা রুবাইয়াত শারমিন রুম্পার মৃত্যুর ঘটনায় তার বন্ধু আব্দুর রহমান সৈকতকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে চাইছে পুলিশ।

রুম্পার মৃত্যুর তিন দিন পর শনিবার সন্ধ্যায় আটক করা সৈকতকে রোববার হত্যামামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে ঢাকার আদালতে পাঠানো হচ্ছে। 

গোয়েন্দা পুলিশের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিভাগের উপ-কমিশনার রাজিব আল মাসুদ বলেন, “সৈকতকে সাতদিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হবে।”

বুধবার রাতে ঢাকার সিদ্ধেশ্বরীর একটি গলিতে রুম্পার লাশ পাওয়ার পর তার মৃত্যু রহস্যজনক মনে হওয়ায় রমনা থানার এসআই আবুল খায়ের অজ্ঞাতপরিচয় আসামিদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

তখনও রুম্পার পরিচয় জানা যায়নি। পরদিন শনাক্ত হয় যে রুম্পা হবিগঞ্জে কর্মরত পুলিশ পরিদর্শক রোকনউদ্দিনের মেয়ে, তিনি পড়তেন স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে, থাকতেন মা-ভাইসহ মালিবাগে।

রুম্পার লাশ শনাক্ত হওয়ার পর স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা একে হত্যাকাণ্ড দাবি করে তার বিচারের দাবিতে সড়কে নামে। তাদের মুখে আসে সৈকতের নাম। রুম্পার এক বান্ধবী বলেন, “আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজের বিবিএর ছাত্র সৈকত রুম্পার সাবেক প্রেমিক।”

তারপর শনিবার সন্ধ্যার পর খিলগাঁও এলাকা থেকে সৈকতকে আটক করে পুলিশ।

তবে রুম্পার মৃত্যুর বিষয়টি এখনও রহস্যময় গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের কাছে।

লাশ পাওয়ার পর ধারণা করা হচ্ছিল, আশপাশের উঁচু কোনো ভবন থেকে পড়ে রুম্পার মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনেও সেই ইঙ্গিতই রয়েছে। কিন্তু আশপাশের ভবনগুলোর বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে প্রামাণ্য কিছু পায়নি পুলিশ। 

তদন্তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, “যে তিনটি ভবনের মাঝে রুম্পার মৃতদেহ পাওয়া গেছে, সেখানকার একটি ভবনের প্রবেশমুখে ৬ টা ২৭ মিনিটে রুম্পার শারীরিক গঠনের মতো একজনকে ঢুকতে দেখা গেছে। কিছুটা অস্পষ্ট ওই ছবি, ফলে সেটা রুম্পা কি না, তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।”

সৈকতকে হেফাজতে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে কিছু তথ্য পাওয়া যাবে বলে মনে করেন এই গোয়েন্দা কর্মকর্তা।

চাঁদপুরে ৪ টি ইটভাটা গুড়িয়ে ৪৪ লাখ টাকা জরিমানা আদনান সামির নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন রাজা মুরাদের স্কাউটরাই জাতির পিতার স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে নেতৃত্ব দেবে: রাষ্ট্রপতি চীনে ভাইরাস: শাহজালাল বিমানবন্দরে বিশেষ সতর্কতা বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম মানব ‘নিওন’ খান টোবকোর সত্বাধিকারী সহ ২ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট বাবার সাথে অভিমান কিশোরীর আত্মহত্যা ওয়েট অ্যান্ড সি: সাঈদ খোকনের ব্যাপারে দুদক চেয়ারম্যান আগামীতে আইসিসির সব আয়োজনে বিড করবে বাংলাদেশ: পাপন যশোরে ৯৪টি সোনার বারসহ ৩ যুবক আটক ১৯ সদস্যের প্রাথমিক টেস্ট দল ঘোষণা পাকিস্তানের পুঁজিবাজারে সূচক উত্থান ৯ মাসে যানজট নিরসন করতে দেখিনি, ৩ মাসে কি করবেন: আতিকুলকে তাবিথ নির্বাচনকে বিএনপি তাদের নেত্রীকে মুক্ত করার আন্দোলন মনে করছে: তাপস ইনিংস ব্যবধানে হারের আগে মহারাজের লড়াই দলের প্রয়োজনে জ্বলে উঠতে প্রস্তুত শান্ত সিঙ্গেল ডিজিটে সুদের ঋণ হলে বিনিয়োগ বাড়বে: ডিসিসিআই সভাপতি যুব বিশ্বকাপ: অচেনা স্কটল্যান্ডকেও হারাতে মরিয়া যুবটাইগাররা ব্রিজে ছবি তুলতে গিয়ে ধসে পড়ে নিহত ৯ আচরণবিধি বিধি লঙ্ঘন ঠেকানো না হলে জনগণের আস্থার সঙ্কট হবে: মাহবুব ইনজামাম-ধোনিকে টপকে গেলেন কোহলি লিফট দুর্ঘটনায় করণীয় দেশে ভোটার ১০ কোটি ৯৬ লাখ ৬ হাজার ১৮৭ খুলনায় যুবককে হত্যার দায়ে ৬ জনের যাবজ্জীবন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করবে: মার্কিন রাষ্ট্রদূত আরও ১৪ জেলার শিক্ষক নিয়োগ হাইকোর্টে স্থগিত বিজেপির নতুন সভাপতি হলেন জেপি নাড্ডা শেখ হাসিনার জনসভায় গণহত্যার মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড বাংলাদেশি অর্থ পাচারকারীদের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের মানববন্ধন রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারকে সহায়তা দিবে চীন