artk

জেলা সংবাদদাতা

মঙ্গলবার, নভেম্বার ১২, ২০১৯ ৭:৪১

রেফারিকে এসপি হারুনের মারধরের ভিডিও ভাইরাল

media

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জে পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদানের পর সামাজিক গঠনমূলক কিছু কাজ করে প্রথম অবস্থায় বেশ প্রশংসিত হয়েছিলেন এস পি হারুন অর রশিদ।

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জে পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদানের পর সামাজিক গঠনমূলক কিছু কাজ করে প্রথম অবস্থায় বেশ প্রশংসিত হয়েছিলেন এস পি হারুন অর রশিদ।

সাধারণ মানুষের আস্থাও অর্জন করেছিলেন তিনি। তবে, ছয়মাস পার হতে না হতেই বিতর্কিত কর্মকাণ্ডসহ নানা ইস্যুতে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচিত হতে থাকেন তিনি। 

তার বিদায় নেয়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

এই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে- মাঠ ভরা দর্শকের উপস্থিতিতে এসপি হারুনসহ পুলিশের সদস্যরা জার্সি পড়ে একজন ফুটবল রেফারিকে মারধর করছেন। আর ওই রেফারি মারধর থেকে বাঁচতে দৌড়ে মাঠ ছেড়ে যাচ্ছেন। তবে সে সময় পুলিশের পোশাকে থাকা সদস্যরা এসপি হারুনকে ঘিরে সেখান থেকে নিয়ে আসছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি গত ২৯ জুন মাসে নারায়ণগঞ্জে সোনারগাঁয়ের একটি মাঠে ফুটবল খেলার সময় রেফারিকে মারধরের দৃশ্য।

 

জানা গেছে, ২৯ জুন মাদক ও জঙ্গিবিরোধী ওই প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করা হয়। যেখানে এসপি হারুনের নেতৃত্বে পুলিশ প্রশাসনের দল ছিল লাল জার্সিতে। আর নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) আসনের এমপি লিয়াকত হোসেন খোকার নেতৃত্বে আকাশী জার্সিতে ছিল সোনারগাঁও ফুটবল দল। সোনারগাঁ উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার তত্ত্বাবধানে বিকেল সাড়ে ৪টায় এ প্রীতি ফুটবল ম্যাচটি শুরু হয় সোনারগাঁও যাদুঘরের পাশে শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে। এ খেলায় এসপি একাদশের কাছে ২-০ গোলে পরাজিত হয় এমপি একাদশ।

এ ফুটবল খেলা উপলক্ষে জেলা জুড়েই ছিল উত্তেজনা। সেজন্য উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা আন্তর্জাতিক সকল নিয়ম কানুন অনুসরণ করে খেলার আয়োজন করে। উপজেলা জুড়ে দর্শকদের উপস্থিত হওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়ে মাইকিংও করা হয়। প্রীতি এ ফুটবল খেলায় ফিফার তালিকাভুক্ত রেফারিকে ম্যাচ পরিচালনা করেন।

সেদিন বিকেলে খেলোয়াড়র উপস্থিতি হওয়ার আগেই কানায় কানায় মাঠ ভরে উঠে। চারদিক থেকে দর্শকের ভীড়। মাঠও সাজানো হয় রঙ বেরঙের পতাকা দিয়ে। মাঠের এক পাশে করা হয় উপস্থাপনার মঞ্চ। ছিল ট্রফি, মেডেল, ক্রেস্ট ও শুভেচ্ছার ফুল।

ম্যাচের প্রথমার্ধের খেলা ভালোই শেষ হয়। দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে খেলা চলার এক পর্যায়ে এসপি হারুন অর রশীদ এমপি একাদশকে অফসাইড থেকে গোল দেন। আর সেটা রেফারির চোখে পড়লে তিনি অফসাইডের পতাকা ও বাঁশি বাজান। একই সঙ্গে গোল বাতিল ঘোষণা করেন। সঙ্গে সঙ্গে রেগে যান এসপি হারুন। গোল বাতিল করার ক্ষোভে দৌড়ে এসে রেফারিকে লাথি মারেন এসপি হারুন। আর সঙ্গে সঙ্গে চারদিক থেকে এসপি একাদশের অন্য খেলোয়াররা  রেফারীকে ঘিরে ফেলে মারধর শুরু করে। কিন্তু নিরাপত্তায় থাকা অন্য পোশাক পরা পুলিশ সদস্যরা রেফারিকে না রক্ষা করে উল্টো এসপি হারুনকে রক্ষা করে মাঠ থেকে নিয়ে যান। আর অন্য দিকে মারধর থেকে বাঁচতে রেফারী দৌড়ে মাঠ ছেড়ে পালিয়ে যান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উপস্থিত দর্শকেরা মাঠে নেমে প্রতিবাদ জানাতে শুরু করে। এ নিয়ে পুলিশের সঙ্গে দর্শকদেরও বাকবিতণ্ডা হয়।

ঘটনার এখানেই শেষ নয়! এসব পরিস্থিতির সময় মাঠেই উপস্থিত ছিলেন এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অঞ্জন কুমার সরকার, সোনারগাঁও থানার ওসি মনিরুজ্জামান সহ উর্ধ্বতন প্রশাসনের কর্মকর্তারা। পরে তাদের সকালের সহযোগিতায় পরিস্থিতি শান্ত হয়ে আবারও খেলা শুরু হয়। ওই ঘটনার পর খেলা চলাকালীন এমপি একাদশের এক খেলোয়ার খুব ভালোভাবে খেলছিলেন। একের পর এক এসপি একাদশের গোল পোস্টকে লক্ষ্য করে আক্রমণ করে যাচ্ছিলেন। যখন উভয় পক্ষই ছিল গোল শূন্য। তখন এসপি একাদশের এক সদস্য পিস্তল দেখিয়ে ভয় দেখায় যাতে সে ভালো না খেলে। অন্যথায় তাকে দেখে নেওয়ার হুমকিও দেয়। এতে ভয় পেয়ে মাঠ ছেড়ে পালিয়ে যায় ওই খেলোয়ার। পরে দশজনের দলের সঙ্গে এসপি একাদশের খেলোয়ার দুই গোল দেন। তবে ততক্ষণে দর্শকেরাও মাঠের খেলা ছেড়ে চলে যান।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, যে রেফারিকে মারধর করে এসপি একদশের সদস্যরা সে রেফারি হলেন আন্তর্জাতিক ফুটবল ফেডারেশনের নিয়োগভুক্ত রেফারি। ফলে বিষয়টি চাপা দিতে তোড়জোড় শুরু করেছিলেন স্থানীয় এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা।

সে সময় উপস্থিত দর্শকদের হুমকি দেওয়া হয় এসব ঘটনা প্রকাশ করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে। গণমাধ্যমের কর্মীদেরও ভিডিও দৃশ্য ধারণের মেমোরি কার্ড রেখে দেয়া হয়। যার ফলে বিষয়টি ধামাচাপা পড়ে যায়।

গত ৩ নভেম্বর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদকে পুলিশ হেড কোয়ার্টারে বদলি করা হয়। আর গত ৭ নভেম্বর জেলা পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিদায় জানানো হয়। এরপর থেকে থেকে এসপি হারুনের কর্মকাণ্ড নিয়ে পক্ষে বিপক্ষে আলোচনা সমালোচনা শুরু হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ১ নভেম্বর রাতে পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান এমএ হাশেমের ছেলে শওকত আজিজ রাসেলের স্ত্রী ফারা রাসেল ও ছেলে আনাব আজিজকে বাসা থেকে তুলে আনার অভিযোগ ওঠে এসিপ হারুন ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিমের বিরুদ্ধে। আর এই অভিযোগসহ একাধিক অভিযোগের কারণে তাকে বদলি করা হয়েছে।

ঘটনার পরেই ইউএনও অঞ্জন কুমার সরকার জানান, বিষয়টি ভুল বোঝাবুঝির মধ্যে হয়েছি। সে সময় তাৎক্ষণিক সেটা সমাধান করে পুনরায় খেলা শুরু হয়।

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা