artk
শনিবার, ডিসেম্বার ৭, ২০১৯ ২:২০   |  ২২,অগ্রহায়ণ ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

বৃহস্পতিবার, নভেম্বার ৭, ২০১৯ ৫:৫২

বিতর্কিত এসপি হারুনের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

media

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, এসপি হারুনকে বিভিন্ন অভিযোগের কারণে সরিয়ে আনা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের তদন্ত শিগগিরই শুরু হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, এসপি হারুনকে বিভিন্ন অভিযোগের কারণে সরিয়ে আনা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের তদন্ত শিগগিরই শুরু হবে।

বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে এসপি হারুনের চাঁদাবাজি ও পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ হাশেমের ছেলে ও আম্বার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শওকত আজিজ রাসেলের স্ত্রী ফারাহ রাসেল (৪০) ও তার ছেলে আনাব আজিজকে (১৭) বাসা থেকে তুলে নেয়ার বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এদিকে অভিযোগের মুখে এসপি হারুনকে প্রত্যাহারের কথা বলা হলেও এখনো কাউকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দেননি তিনি। নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপারের জন্য বরাদ্দ করা সরকারি গাড়ি এবং মোবাইলফোনও তিনি ব্যবহার করছেন বলে জেলা পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন।

পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ হাশেমের ছেলে ও আম্বার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শওকত আজিজ রাসেলের ব্যবহৃত গাড়িটি চালকসহ ঢাকা ক্লাব থেকে নিয়ে যাওয়া হয় ৩১ অক্টোবর রাতে। পরদিন ১ নভেম্বর মধ্যরাতে গুলশানের বাসা থেকে রাসেলের স্ত্রী ফারাহ রাসেল (৪০) ও তার ছেলে আনাব আজিজকে (১৭) বাসা থেকে তুলে নেয় নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ। পৃথক জায়গা থেকে গাড়ি, এর চালক ও রাসেলের পরিবারের সদস্যদের পুলিশ নিয়ে গেলেও ২ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জের তদানীন্তন এসপি মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ সংবাদ সম্মেলন করে জানান, পুলিশ গাড়িটি আটকের পর এর ভেতর থেকে মাদক ও গুলি উদ্ধার করেছে। তখন গাড়িটিতেই ছিলেন রাসেলের স্ত্রী ও সন্তান। তবে দুইয়ে দুইয়ে চার এখানে মেলাতে পারেননি নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার। তার গল্পের মাঝে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় শওকত আজিজ রাসেলের বাসার সিসিটিভি ফুটেজ। তাতেই বিতর্কিত হয়ে পড়েন পুলিশের এই কর্মকর্তা। এরপর ৩ নভেম্বরই নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রত্যাহার করে এসপি হারুনকে ঢাকায় পুলিশ সদর দফতরের টিআর শাখায় বদলি করা হয়।

২ নভেম্বর (শনিবার) নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে হারুন অর রশীদ জানিয়েছিলেন, আগের দিন শুক্রবার (১ নভেম্বর) দিনগত রাত ৩টায় নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় চৌরঙ্গি ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে একটি গাড়ি জব্দ করা হয়। এর আগে গাড়িটি তল্লাশি করে একটি প্যাকেটে থাকা ২৮ রাউন্ড গুলি, ১২শ’ পিস ইয়াবা, ২৪ বোতল বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বিদেশি মদ, ৪৮ ক্যান বিয়ার ও নগদ ২২ হাজার ৩শ’ টাকা উদ্ধার করা হয়। তখন গাড়িতে শওকত আজিজ রাসেলের স্ত্রী ফারাহ রাসেল ও তার ছেলে আনাব আজিজ ছিলেন। রাতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়। পরবর্তীতে স্ত্রী ও সন্তানকে ছেড়ে দেওয়া হলেও শওকত আজিজ রাসেল ও তার গাড়িচালক সুমনকে আসামি করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ও অস্ত্র আইনে দুটি মামলা হয়েছে। পলাতক শওকত আজিজ রাসেলকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান এসপি মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ।

পরে নারায়ণগঞ্জ পুলিশের দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করা হয়, শুক্রবার (১ নভেম্বর) রাত ১টার দিকে এসপি মোহাম্মদ হারুন অর রশিদকে তার ঢাকার বাসায় নামিয়ে দিয়ে গাড়িচালক কনস্টেবল জুয়েল ও দেহরক্ষী নাজমুল হোসেন গাড়ি নিয়ে নারায়ণগঞ্জে ফেরার পথে রাজধানী তেজগাঁও সাত রাস্তায় মগবাজার ফ্লাইওভারের সামনে যানজটে আটকে পড়ে। এ সময় গাড়িচালক জুয়েল মিয়া হর্ন দিলে সামনে থাকা জিপ থেকে একজন লোক নেমে এসে গাড়ির বামপাশের কাচে সজোরে আঘাত করে গালিগালাজ করতে থাকে। এ সময় ওই লোক গাড়ির দরজা খোলার জন্য বলে। তখন এসপির গাড়িচালক গ্লাস খুলে প্রতিবাদ করলে ওই ব্যক্তি তার মাথায় পিস্তল তাক করে। ওই ব্যক্তিটি মূলত শওকত আজিজ রাসেল; যিনি পরে জুয়েল ও নাজমুল হোসেনকে পুলিশের লোক বলে বুঝতে পারেন এবং দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন। এরপর পুলিশ সুপারের গাড়িটি রাসেলের গাড়িটি অনুসরণ করতে শুরু করে। একপর্যায়ে রাসেলের গাড়িটি নারায়ণগঞ্জের দিকে আসতে থাকলে এসপির দেহরক্ষী কনস্টেবল নাজমুল ইসলাম ঘটনাটি ডিবি পুলিশের এসআই আবদুল জলিলকে অবহিত করেন। আবদুল জলিল ফোর্স নিয়ে নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় অবস্থান নিয়ে গাড়িটির গতিরোধ ও তল্লাশি করে। ওই সময় গাড়ির ভেতর থেকে ওই মাদক ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

এদিকে এসপি হারুনের ওই সংবাদ সম্মেলনের পরপরই শওকত আজিজ রাসেলের বাসার সিসিটিভি ফুটেজ চলে আসে গণমাধ্যমকর্মীদের হাতে। সেখানে দেখা যায়, পহেলা নভেম্বর রাত সাড়ে ১২টার পর বাসায় প্রবেশ করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ ও ডিবির সদস্যরা। রাত ১টার দিকে রাসেলের স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে বাসা থেকে বের হয় তারা। অনুসন্ধান করে গণমাধ্যমকর্মীরা জানতে পারেন, তাদের নিয়ে যাওয়া হয় নারায়ণগঞ্জ জেলা ডিবি কার্যালয়ে।

বাংলাদেশের ১৭ জেলেকে ফেরত দিয়েছে মিয়ানমার বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে গণস্বাক্ষর শনিবার বাঁশখালীতে জেলের জালে বিশাল হোয়েল শার্ক! সিলেট আ.লীগের নেতৃত্ব হারালেন কামরান পৃথিবীর অনেক দেশের তুলনায় আমরা মেধাবী: তথ্যমন্ত্রী ধর্মঘটে অচল অবস্থা বিরাজ করছে ফ্রান্সে চট্টগ্রামে এবার থানায় বিক্রি হবে পেঁয়াজ ভারতের অবদান ছাড়া মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস অসম্পূর্ণ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী শিকাগোর অফিস-আদালতে বাংলা ভাষা! খালেদার স্বাস্থ্য বিষয়ে নিরপেক্ষ প্রতিবেদন নিয়ে ফখরুলের সংশয় ১৭ জেলেকে আটক করেছে মিয়ানমার উল্টোপথের বাসের চাকায় পিষ্ট পথচারী অবশেষে বিয়ের পিঁড়িতে মিথিলা-সৃজিত রুম্পার মৃত্যুর ধোঁয়াশা কাটেনি ১ জন ছাড়া অন্য যেকোনো পদে পরিবর্তন: কাদের আপিল বিভাগে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার: মন্ত্রী বীরত্বে পদক পাচ্ছেন ডিজিসহ বিজিবির ৬০ সদস্য আইএস এর সেই টুপি খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ নামাজ পড়লে সুস্থ থাকা যায়: মার্কিন গবেষণা মৌলভীবাজারে ৪শ একর জমিতে কমলার চাষ ২০১৯ সালের সেরা অ্যাপ কল অফ ডিউটি আ.লীগে এখন কর্মীর চেয়ে নেতার সংখ্যা বেশি: কাদের প্রকৌশল শিক্ষায়ও সৃজনশীলতার প্রচুর সুযোগ রয়েছে: রাষ্ট্রপতি ‘সুদের হার কমেনি, ১১ মাস কী করলেন অর্থমন্ত্রী’ ৬ রানে অলআউট মালদ্বীপ পিরোজপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ২ জনের মৃত্যু পুঁজিবাজারে সূচকের পতন, লেনদেনও মন্দা রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়দের কর্মসংস্থানের সুযোগ কমছে: টিআইবি বিএনপির আইনজীবীদের বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করা উচিত: নাসিম আপিল বিভাগে এমন অবস্থা আগে কখনো দেখিনি: প্রধান বিচারপতি