artk
বুধবার, নভেম্বার ২০, ২০১৯ ৮:৩৮   |  ৬,অগ্রহায়ণ ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

বৃহস্পতিবার, অক্টোবার ২৪, ২০১৯ ৫:৪৬

আপিলের জন্য সাত দিন সময় পাবেন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা

media

ফেনীর সোনাগাজীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলার ১৬ আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করা হয়েছে। এখন নিয়ম অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ডের রায় (ডেথ রেফারেন্স) হাই কোর্টে আসার কথা রয়েছে।

ফেনীর সোনাগাজীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলার ১৬ আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করা হয়েছে। এখন নিয়ম অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ডের রায় (ডেথ রেফারেন্স) হাই কোর্টে আসার কথা রয়েছে।

রায়ের শেষাংশে বলা হয়েছে, রায়ের বিরুদ্ধে আসামিরা চাইলে বা ইচ্ছা করলে সাত কার্যদিবসের মধ্যে হাই কোর্টে আপিল আবেদন করতে পারবেন। সে অনুযায়ী দণ্ডপ্রাপ্তরা রায় প্রকাশের সময় থেকে সাতদিন সময় পাবেন আপিল করার জন।

এরপর আসামিদের মধ্যে যারা রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে ইচ্ছুক তদের আপিল দায়েরের পর পেপারবুক তৈরি করে শুনানির প্রস্তুতি নেবেন আইনজীবীরা।

রায়ে বলা হয়, ফৌজদারি কার্যবিধির ৩৭৪ ধারায় ‘মৃত্যুদণ্ড অনুমোদনের’ জন্য মহামান্য হাইকোর্টে পাঠানোর জন্য নির্দেশ দেয়া হলো। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রায়ের অনুলিপি চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেল সুপার ফেনী বরাবর পাঠানোর জন্য রায়ে বলা হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ জজ মামুনুর রশিদ সব আসামির মৃত্যুদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেন। রায়ে সোনাগাজী ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজসহ ১৬ জনের ফাঁসির আদেশ দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া রায়ে সব আসামিকে পৃথকভাবে এক লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড করা হয়েছে। নুসরাতকে হত্যার পর প্রায় সাত মাসের মধ্যে বিচারকাজ শেষ হলো।

রায়ের পর নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যা মামলার রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘এমনই হওয়া উচিত। গুরুত্বপূর্ণ মামলাগুলোর স্বল্প সময়ে রায় হওয়া উচিত।’

দেশব্যাপী আলোচিত এ হত্যা মামলার রায়ে সংক্ষুব্ধ পক্ষ হাইকোর্টে আপিল করবেন আইনের বিধান অনুযায়ী। বিচারিক আদালতের রায়ের কপি হাইকোর্টে আসতে ফৌজদারি কার্যবিধির কয়েকটি ধারা অনুসরণ করা হবে।

ফাঁসির রায় কার্যকর করতে হাইকোর্টের অনুমোদন প্রয়োজন হয়। এজন্য ফাঁসির সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথ রেফারেন্সের (মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিতকরণের) নথিপত্র হাইকোর্টে আসবে রায় ঘোষণার সাতদিনের মধ্যে। তামাদি আইনের ১৫০ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, মৃত্যুদণ্ডের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে হবে সাতদিনের মধ্যে। এরপর যথযাথ নিয়ম অনুযায়ী ডেথ রেফারেন্স শুনানির জন্য তৈরি করা হবে পেপারবুক (মামলার বৃত্তান্ত)।

হাইকোর্ট ডেথ রেফারেন্স শুনানি করে মৃত্যুদণ্ডের সাজা বহাল রাখতে বা কমাতে পারেন। আইন অনুযায়ী আসামিরাও সাজা থেকে খালাসের জন্য আপিল করতে পারবেন। তামাদি আইনের ১৫০ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ডের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে হয়। আপিল করলেই বিচারিক আদালতের সাজা স্থগিত হয়ে যাবে। এটি আইনের বিধান। ডেথ রেফারেন্স শুনানি শেষে রায় ঘোষণা করবেন হাই কোর্ট। এরপর এ মামলার কোনো পক্ষ সংক্ষুব্ধ হলে আপিল করতে পারবেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে। এখানে আপিল আবেদন করার সুযোগ রয়েছে। এরপরই চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করা হবে।

ফৌজদারি কার্যবিধির কতিপয় ক্ষেত্রে সংবিধানের ১০৩ অনুচ্ছেদে হাইকোর্ট বিভাগ থেকে সুপ্রিম কোর্টে আপিলের বিধান করা হয়েছে। আপিল বিভাগে যাওয়ার আগে প্রয়োজন হতে পারে লিভ টু আপিলের (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন)। লিভ টু আপিল গ্রহণ করা হলে আপিল করতে পারবেন সংক্ষুব্ধ আসামি বা বাদীপক্ষ। ফৌজদারি কার্যবিধির ৪৪২ (ক) ধারা অনুযায়ী আপিল নিষ্পত্তি করতে হবে। আপিল দায়েরের পর ৯০ দিনের মধ্যে সেটি নিষ্পত্তি করতে হয়। আপিলে মৃত্যুদণ্ড বহাল থাকলে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন করতে পারবেন আসামিরা। দণ্ডবিধির ৫৫ (ক) ধারা অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি আসামিকে ক্ষমা করে প্রাণভিক্ষাও দিতে পারেন।

 

রাজধানী সুপার মার্কেটের আগুন নিয়ন্ত্রণে ময়মনসিংহে এক বাড়িতেই ৭ হাজার কেজি লবণ ট্রান্সফাররেবল এলসির সঠিক ব্যবহারে বায়িং হাউজের দক্ষতা বাড়ানো জরুরী জনগণকে শাস্তি দেবেন না প্লিজ: কাদের কাউন্সিলর সাঈদের বিরুদ্ধে মামলা সৈয়দ নূরুল আলমের ‘আমার জীবন ও উন্নয়নের ৪৪ বছর’ টিকাটুলিতে রাজধানী সুপার মার্কেটে ভয়াবহ আগুন শিগগিরই ২২১ বন্ড লেনদেনযোগ্য হবে দেশের মানুষ এখন খোলা জেলে বন্দী: মির্জা আব্বাস ধর্মঘটের প্রভাব চালের বাজারে পড়বে না: খাদ্যমন্ত্রী বায়ুদূষণে শীর্ষে ঢাকা, ২৫ নভেম্বর আন্তমন্ত্রণালয় সভা চট্টগ্রামে পাহাড়ে অস্ত্র তৈরির কারখানা: ২০ অস্ত্রসহ ‘ডাকাত সর্দার’ গ্রেপ্তার ঢাকা-চট্টগ্রাম-সিলেট মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক বাস নেই, ভোগান্তি মাথায় নিয়ে হাঁটছে মানুষ ভুঁড়িওয়ালা পুরুষের কদর বেশি কেন নারীর কাছে ? সায়েদাবাদ থেকে দূরপাল্লার বাস বন্ধ শিক্ষকের থাপ্পড়ে কান ফাটলো ছাত্রের রাজধানীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত আমার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চালালে অনেক এমপি-মন্ত্রীর যাবজ্জীবন হবে: নাজমুল আইনের লাগাম ছেড়ার ধর্মঘটে সারাদেশে অচলাবস্থা দিনাজপুরে ট্রাকচাপায় ২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত কাউন্সিলর রাজিবের তিন গাড়ি জব্দ সেফুদার সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ লবণ নিয়ে গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা: সরকার রাজস্ব আদায় ২ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে বুধবার থেকে বাস চলবে খুলনায় ৩৯তম বিসিএসে ৪ হাজার ৪৪৩ চিকিৎসক নিয়োগ অধ্যক্ষকে পুকুরে ফেলার ঘটনায় ছাত্রলীগের ৫ কর্মী গ্রেপ্তার খালেদা জিয়া দাঁড়াতে-বসতে বা হাতে তুলে খেতে পারেন না: রিজভী দুই সিটির ভোটবিরোধী ৩৬ কাউন্সিলর