artk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বুধবার, অক্টোবার ৯, ২০১৯ ১০:২৯

সিরিয়ায় ঢুকে হামলা শুরু করেছে তুরস্কের সেনারা

media

সিরিয়ায় পশ্চিমা সমর্থিত কুর্দি মিলিশিয়াদের শক্তি খর্ব করতে এবং তাদেরকে সীমান্ত এলাকা থেকে তাড়াতে সামরিক অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক।

প্রথম ঘণ্টায় উত্তর-পূর্ব সিরিয়ায় কুর্দি মিলিশিয়া গোষ্ঠী এসডিএফের অবস্থানে বিমান হামলা চালানো হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি। 

রাতভর সীমান্তে বিপুল সংখ্যায় সৈন্য সমাবেশ এবং সাঁজোয়া যান জড়ো করে তুরস্ক।

তুরস্কের সৈন্যদের সাথে জড় হয় তাদের সমর্থিত সিরিয়ান আরবদের বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর জোট সিরিয়ান ন্যাশনাল আর্মির কয়েক হাজার মিলিশিয়া।

বুধবার দুপুরের পরপরই প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান 'অপারেশন পিস স্প্রিং' নামে সেনা অভিযান শুরুর ঘোষণা দেন।

টুইটারে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেন, "আমাদের দক্ষিণ সীমান্তে সন্ত্রাসের একটি করিডোর যাতে তৈরি না হয় তা নিশ্চিত করা এবং সেখানে শান্তি প্রতিষ্ঠাই তুরস্কের এই অভিযানের উদ্দেশ্য।"

মার্কিন সবুজ সংকেত পেয়েই সিরিয়ায় অভিযান চালানোর ঘোষণা দেন প্রসিডেন্ট এরদোয়ান। এরপর সিরিয়ার কিছু এলাকা থেকে মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহার করা হয়। 

উত্তর-পূর্ব সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত কুর্দি মিলিশিয়া গোষ্ঠী এসডিএফকে তুরস্ক একটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসাবে বিবেচনা করে। তুরস্কের ভয়, এসডিএফ তুরস্কের অভ্যন্তরে তৎপর কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের উস্কানি দিচ্ছে।

তুরস্ক ৪৮০ কিলোমিটার সীমান্ত জুড়ে সিরিয়ার অভ্যন্তরে ৩২ কিলোমিটার পর্যন্ত একটি 'সেফ জোন' বা নিরাপদ এলাকা তৈরির পরিকল্পনা করেছে।

কুর্দি মিলিশিয়াদের তাড়িয়ে এই 'সেফ জোনে' তুরস্কে আশ্রয় নেওয়া ৩৫ লাখের মত সিরিয় শরণার্থীকে পুনর্বাসন করতে চান প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান।

এ অবস্থায় কুর্দি বিদ্রোহীরা প্রতিরোধের ডাক দিলেও তাদের পাশ থেকে সরে গেছে মার্কিন সেনারা। অর্থাৎ যেসব এলাকায় তুরস্কের সেনাবাহিনী অভিযান চালাচ্ছে, সেইসব এলাকা থেকেই সরে গেছে মার্কিন সেনারা।  এতে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হয়েছে কুর্র্দি মিলিশিয়া গোষ্ঠী এসডিএফ। 

তারা বলেছে, আইএসকে পরাজিত করতে এতদিন কুর্দিদের ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্র এখন তাদের 'পিঠে ছুরি মেরেছে'।

গান নয় এবার চলচ্চিত্র নিয়ে ঢাকায় অঞ্জন দত্ত শিরোপার লড়াই: খুলনাকে ১৭১ রানের লক্ষ্য দিলো রাজশাহী ডিজিটাল মেলায় মোবাইল ডায়ালারে সাড়া ফেলেছে আম্বার আইটি স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায় ব্রকলি বিএনপি একটি উদারপন্থী দল: ফখরুল দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে ইসির প্রতি ভিসির আহ্বান বরগুনা-২ আসনের এমপিসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা ফাইনালে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে খুলনা নিষিদ্ধ হলেন কাগিসো রাবাদা সন্ধ্যায় ফাইনাল বিপিএলের নতুন চ্যাম্পিয়নের কে আমিই একমাত্র ঢাকার উন্নয়নে সুনির্দিষ্ট রূপরেখা দিয়েছি: তাপস বিএনপি নির্বাচনকে বিতর্কিত করতে নির্বাচনে অংশ নেয়: শিক্ষামন্ত্রী ইউক্রেনের প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ নির্বাচন পেছানোর দাবির অনশনে ঢাবির দশ শিক্ষার্থী অসুস্থ পুলিশ কন্ট্রোল রুম ভবন থেকে লাফিয়ে কনস্টেবলের আত্মহত্যা উত্তরায় বেপরোয়া গতির বাস কেড়ে নিলো ২ জনের প্রাণ পুরান ঢাকার ঐতিহ্য পুনরুজ্জীবিত করার অঙ্গীকার তাপসের ধর্মীয় উৎসবের সম্মানে ইসি আলোচনা করে সমাধান করতে পারে: কাদের সৌদি থেকে ১৬ দিনে দেড় হাজার বাংলাদেশি ফেরত ইরানে ৮ বছর পর দোয়ায় নেতৃত্ব দেবেন খামেনি চট্টগ্রামে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ দ্বিতীয় বিয়ে করতে ইচ্ছুকদের জন্য অভিনব অফার খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ মুক্তি পেল অভিনেত্রী স্পর্শিয়ার ‘কাঠবিড়ালী’ ট্রাম্পের অভিশংসন বিচারের আনুষ্ঠানিকতা শুরু ইজতেমায় ৩ মুস‌ল্লির মৃত্যু লাখ টাকায় বিক্রি হলো ১টি মাছ! মানুষ কেন ভয় পায়? শীতে নাক বন্ধ হলে যা করণীয় মেঘনায় দুই লঞ্চের সংঘর্ষ, আহত ৫