artk
শুক্রবার, অক্টোবার ১৮, ২০১৯ ১১:৫৩   |  ৩,কার্তিক ১৪২৬

ধর্ম ডেস্ক

মঙ্গলবার, অক্টোবার ৮, ২০১৯ ৮:৫৮

কারাগারেই ১৫ মাসে পুরো কুরআনে হাফেজ মাদক পাচারকারী!

media

মাদক পাচারের অপরাধে কারাগারে বন্দি আব্দুল কাদের গিলানি। কারাদণ্ড শেষ হওয়ার আগেই তিনি মাত্র ১৫ মাসে পুরো কুরআনুল কারিম মুখস্থ করার সৌভাগ্য অর্জন করেন।

মাদক পাচারের অপরাধে কারাগারে বন্দি আব্দুল কাদের গিলানি। কারাদণ্ড শেষ হওয়ার আগেই তিনি মাত্র ১৫ মাসে পুরো কুরআনুল কারিম মুখস্থ করার সৌভাগ্য অর্জন করেন।

তুর্কি গণমাধ্যম ‘ইয়েনি শাফাক’-এর তথ্য মতে, মাদক পাচারের অপরাধে ১৮ মাসের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন আব্দুল কাদের গিলানি। দেড় বছর সাজা হওয়ার পর তিনি সিদ্ধান্ত নেন যে, পুরো কুরআনুল কারিম মুখস্থ করবেন। মাদকের অন্ধকার জগত থেকে আলোর পথে ফিরবেন।

তুরস্কের এ বন্দি দৃঢ় প্রতিজ্ঞা ও অধ্যাবসায়ের মাধ্যমে মাত্র ১৫ মাসে কারাগারে বসেই সম্পূর্ণ কুরআন মুখস্থ করতে সক্ষম হয়েছেন।

তুরস্কের কোনিয়া কারাগারে বন্দি আব্দুল কাদের গিলানি নিজে কুরআন মুখস্থ করেই থেমে থাকেন নি। তিনি কারাগারে বন্দি আরও ১৩ জন কয়েদিকে কুরআন হেফজ করার পদ্ধতি সম্পর্কে বিশেষ প্রশিক্ষণ দিয়েছন। যাতে কারাগারে কুরআন হেফজের এ পদ্ধতি চালু থাকে। তারাও পবিত্র কুরআন মুখস্ত করতে সক্ষম হয়েছেন।

আব্দুল কাদের গিলানির ভাষায়, ‘আমাকে ১৮ মাসের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। সাজা পাওয়ার পর আমার বিশ্বাস জন্মে যে, এ সাজার মধ্যে কল্যাণ নিহিত রয়েছে। তবে আমি কখনোই চিন্তা করেনি যে, একদিন আমি পুরো কুরআন হেফজ করতে সক্ষম হবো।’

‘আদালতে যেদিন আমার অপরাধের রায় ঘোষণা হয়, সেদিনই আমি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি যে, কুরআন মুখস্থ করবো। এ সিদ্ধান্তকে সফল করতেই আমি কারাগারের ব্যবস্থাপনা দায়িত্বশীলদের সঙ্গে যোগাযোগ করি। তারা আমাকে পবিত্র কুরআনুল কারিম হেফজ করতে পুরোপুরি সহযোগিতা করেন। তাদের সহযোগিতা ও আমার ঐকান্তি ইচ্ছায় পুরো কুরআন হেফজ করার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে বলেও জানান তিনি।

জেলখানায় কয়েদিদের মাঝে কুরআন মুখস্তের এ ধারা অব্যাহত রাখতেই আব্দুল কাদের গিলানি ১৩ জন কয়েদিকে কুরআন মুখস্ত করার কৌশল ও পদ্ধতির প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। তারাও কুরআন হেফজ করতে সক্ষম হয়েছেন।

বিশ্বের প্রতিটি জেলখানায় এ ধারা অব্যাহত থাকলে নিঃসন্দেহে অপরাধ প্রবণতা কমে আসবে। কুরআনের আলোকিত জীবনের সন্ধান পাবে মানুষ।

জবির বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ গণভবনে কেন ডাকা হয়নি ওমর ফারুককে পঞ্চগড়ে রাস্তার ধারে ফুটফুটে শিশু ছাত্র রাজনীতি সূর্যের আলো ঠিকরে পড়ে প্রবালে জয়পুরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১ টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা নিহত কম বয়সে মেনোপজে বাড়ে হৃদরোগের সম্ভাবনা ময়মনসিংহে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক ব্যক্তি নিহত স্বনির্ভর হতে লেগেছে ৬৯ বছর, এরপর বিয়ে মানসিক প্রতিবন্ধী ছেলেকে মারধরের নালিশ দেয়ায় কৃষককে পিটিয়ে হত্যা হাব সভাপতিকে ‘ধমক’ দিলেন ধর্ম সচিব স্পর্শকাতর জায়গা থেকে মোবাইল টাওয়ার সরানোর নির্দেশ ব্রেক্সিট চুক্তিকে ‘ক্ষতিকর’ বললেন টিউলিপ নতুন ব্রেক্সিট চুক্তি চূড়ান্ত: জনসন ছেঁড়া জিন্স পরে ট্রোলের শিকার সারা ইমরান খানের বিরুদ্ধে সাবেক স্ত্রী রেহাম খানের অভিযোগ যে কোনো মূল্যে পার্বত্য অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্যাসিনো বাণিজ্য: কাউন্সিলর সাঈদকে অপসারণ পদ্মায় বিজিবি-বিএসএফ গোলাগুলি, বিএসএফ জওয়ান নিহত! জাতীয় লিগে লেগ স্পিনার না খেলানোয় দুই কোচকে বিসিবিতে তলব দুধের চেয়েও বেশি ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম সজিনা পাতায় ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যানসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা ভারত সফরের জন্য টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা আবাসিক হলে গাঁজা সেবন: ২ ছাত্রলীগ নেতা আটক বিদেশি শিল্পীর বিজ্ঞাপনে অতিরিক্ত কর দিতে হবে: তথ্যমন্ত্রী গ্রামীণফোনের ১২ হাজার কোটি টাকা আদায়ে নিষেধাজ্ঞা ২৪ ঘণ্টায় ২৪৮ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি পুঁজিবাজারের পতন রোধে বিক্ষোভে বিনিয়োগকারীরা আমি তো আসলে মরেই গিয়েছিলাম: ওবায়দুল কাদের