artk

নিজস্ব প্রতিবেদক

শনিবার, সেপ্টেম্বার ২১, ২০১৯ ৯:০৫

এমপিওভুক্ত হচ্ছেন সহস্রাধিক কলেজ শিক্ষক

media

দিনের পর দিন বিনাবেতনে চাকরি করেছেন অনেক কলেজ শিক্ষক। এবার তাদের মধ্যে অনেকেরই কপাল খুলতে যাচ্ছে। সারাদেশের সহস্রাধিক কলেজ শিক্ষক এমপিওভুক্তির সুযোগ পাচ্ছেন।

দিনের পর দিন বিনাবেতনে চাকরি করেছেন অনেক কলেজ শিক্ষক। এবার তাদের মধ্যে অনেকেরই কপাল খুলতে যাচ্ছে। সারাদেশের সহস্রাধিক কলেজ শিক্ষক এমপিওভুক্তির সুযোগ পাচ্ছেন।

দেশের বেসরকারি কলেজে তৃতীয় শিক্ষক হিসেবে পরিচিত অনেকে বিনাবেতনে অথবা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে দেয়া সামান্য অর্থ পাচ্ছিলেন। এবার এসব তৃতীয় শিক্ষক এমপিওভুক্তির আওতায় আসছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

এর আগে এক একটি বিষয়ে দুইজন করে শিক্ষক এমপিওভুক্ত হওয়ায় এই শিক্ষকরা (তৃতীয় শিক্ষক হিসেবে পরিচিত) সরকারি সুবিধা পাচ্ছিলেন না।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী, কোনো বেসরকারি কলেজে কোনো বিষয়ে ডিগ্রি পড়াতে গেলে অন্তত তিনজন শিক্ষক থাকতে হবে। অনার্স পড়াতে গেলে চারজন শিক্ষক লাগে। অথচ মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের নিয়ম অনুসারে একটি বিষয়ে মাত্র দুজন শিক্ষক এমপিওভুক্ত হতে পারেন।

এই দুজনের বেতন সরকার থেকে দেয়া হয়। একই বিষয়ের তৃতীয় শিক্ষকের বেতন-ভাতা কলেজ তহবিল থেকে পরিশোধ করতে হয়।

সরকারি এ নিয়মের কারণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে দেশের সব ডিগ্রি কলেজে বিষয়ভিত্তিক তৃতীয় শিক্ষকরা এতদিন এমপিও সুবিধা থেকে বঞ্চিত ছিলেন। এবার তারাও পাবেন এই সুবিধা।

জানা গেছে, গত মে মাসে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির কাছে তৃতীয় শিক্ষকদের এমপিওভুক্ত করার আবেদন করেন বাংলাদেশ ডিগ্রি (তৃতীয়) শিক্ষক পরিষদের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক ও সাধারণ সম্পাদক রুমানা পারভীন।

এই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ সম্প্রতি মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা (মাউশি) অধিদফতরের মহাপরিচালকের কাছে তৃতীয় শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির বিষয়ে সুস্পষ্ট মতামত জানতে চায়।

মাউশির মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক মন্ত্রণালয়ে তার মতামত পাঠিয়ে দেন। তাতে তিনি বলেন, এমপিওভুক্তি ডিগ্রি কলেজের জনবল কাঠামো-২০১০ নীতিমালা প্রকাশের পরে সারাদেশে ৮৪১ জন তৃতীয় শিক্ষক নিয়োগ পেয়েছেন। তাদের এমপিওভুক্ত করা হলে বছরে সরকারের ২৫ কোটি টাকা ব্যয় হবে।

মন্ত্রণালয়ের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, শিগগিরই শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভায় এসব বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।

জানা গেছে, তৃতীয় শিক্ষকদের মধ্যে তিন ধরনের শিক্ষক রয়েছেন। ২০১৩ সালের এমপিওভুক্তির নীতিমালায় শর্ত দেয়া হয়েছিল এই শিক্ষকদের বেতনভাতা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকেই বহন করতে হবে। এই ধরনের শিক্ষকের সংখ্যা ৪৫০ জন।

আরেকভাগে রয়েছেন ৬৭০ জন শিক্ষক। তারা ২০১৫ সালের ২২ অক্টোবরের আগেই নিয়োগ পেয়েছিলেন।

অপর ভাগে রয়েছেন প্রায় ২০০ তৃতীয় শিক্ষক। তারা ২০১৭ সালে কেন্দ্রীয়ভাবে শিক্ষক নিয়োগ চালু হওয়া সত্ত্বেও নিজ প্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডির মাধ্যমে নিয়োগ পেয়েছিলেন। এ শিক্ষকদের নিয়োগকে অবৈধ মনে করছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ফলে তাদের এমপিওভুক্ত করতে রাজি নয় মন্ত্রণালয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক সিদ্ধান্তে বলা হয়েছিল, যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ২০১৫ সালের ২২ অক্টোবরের আগে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল, তারা ২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত নিয়োগ সম্পন্ন করতে পারবেন। এই ৬৭০ জন শিক্ষক ওই সময়ে নিয়োগ পেয়েছিলেন।

মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, তবে ২০১৫ সালের ২২ অক্টোবরের পর 'বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের' (এনটিআরসিএ) মাধ্যমে নিয়োগ পাওয়া তৃতীয় শিক্ষকরা এমপিওভুক্তির জন্য বিবেচিত হবেন। তিন ক্যাটাগরি মিলিয়ে বর্তমানে প্রায় এক হাজারের বেশি তৃতীয় শিক্ষক এমপিওভুক্তির আশায় আছেন।

ইদলিবে সরকার বিরোধী হামলায় সিরিয়ার ৪০ সেনা নিহত খালি পেটে যেসব খাবার খাওয়া ঠিক নয় হোয়াটসঅ্যাপে যুক্ত হল ডার্ক মোড পাবনায় আওয়ামী নেতার বিরুদ্ধে বাবার জিডি ৬৪ জেলায় ৪৯ হাজার নদী দখলদার: নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্র ঢাবির বিশেষ সমাবর্তন ৫ সেপ্টেম্বর আমরা দেশকে জঙ্গিবাদের হাত থেকে মুক্ত করতে চাই: প্রধানমন্ত্রী চীনাদের সাপ খাওয়ার অভ্যাস থেকেই ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস! পলিন কাউসারের ‘আমি তো পাইনি মেঘের দেখা’ আইসিজের রায় বিশ্বের মানবাধিকারকর্মীদের জন্য মাইলফলক: পররাষ্ট্রমন্ত্রী হারপিক খেয়ে খুলনায় এমপি নারায়ণ চন্দ্র চন্দের পুত্রের আত্মহত্যা মার্কেন্টাইল ব্যাংকের চেয়ারম্যানসহ তিন জনের বিরুদ্ধে মামলার অনুমোদন নগরবাসী নিয়ে বিএনপির কোনো পরিকল্পনা নেই: তাপস জিরো টলারেন্স জনপ্রিয় হওয়ার একটি স্লোগান: এনবিআর চেয়ারম্যান আইপিও আসার আগে প্রতিবেদন করুন: সাংবাদিকদের ডিএসই পরিচালক অস্ট্রেলিয়ায় এয়ার ট্যাঙ্ক বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ৩ বাংলা একাডেমি পুরস্কার পেলেন ১০ সাহিত্যিক ‘ছাত্রলীগকে দিয়ে দুঃশাসনের বিরুদ্ধে গণজাগরণ দাবিয়ে রাখা যাবে না’ তাবিথের বিরুদ্ধে সম্পদ গোপনের অভিযোগ ইসিতে নতুন শিক্ষাবর্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে ৪ বাংলাদেশি নিহত রাখাইনে সহিংসতা বন্ধে জরুরি ব্যবস্থা নেওয়ার আদেশ আইসিজের সৌদি আরব থেকে ফিরলেন আরও ২১৭ বাংলাদেশি রোহিঙ্গা ইস্যু আন্তর্জাতিকীকরণে প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে: জাতিসংঘ রাষ্ট্রদূত ভিপি নূরকে কেন পাসপোর্ট দেয়া হবে না: হাইকোর্ট ভোটের নিরপেক্ষ পরিবেশ নেই: ফখরুল রক্তকোষের সাহায্যে সারিয়ে তোলা যাবে ক্যান্সার চবিতে ছাত্রলীগের অবরোধ এক ধাপ উন্নতিতেও দুর্নীতি কমেনি: টিআইবি ফেনীর পৌর মেয়রকে দুদকে তলব