artk
৩ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৪৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম

ঘূর্ণিঝড় তিতলি: সারাদেশে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৭২১ ঘণ্টা, বুধবার ১০ অক্টোবর ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১২২৬ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ১১ অক্টোবর ২০১৮


ঘূর্ণিঝড় তিতলি: সারাদেশে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ - জাতীয়

বৈরী আবহাওয়ার কারণে বরিশালসহ সারাদেশে সবধরনের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বুধবার দুপুর পৌনে ৩টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিআইডব্লিউটিএ বরিশালের নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের উপ-পরিচালক আজমল হুদা মিঠু সরকার।

তিনি এক ক্ষুদে বার্তায় জানান, বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষের এ নিষেধাজ্ঞা পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

এদিকে, বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ উত্তর-উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরো ঘনীভূত হয়ে অগ্রসর হতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা এবং পায়রা বন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় সর্তকর্তা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আগামী বৃহস্পতিবার ভোরে ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে প্রবল বর্ষণেরও আশঙ্কা রয়েছে। এজন্য ভারতের দুটি রাজ্যে ইতোমধ্যেই রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। বন্যার আশঙ্কাও করা হচ্ছে।

পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে ঘূর্ণিঝড়টি। বুধবার ভোরে আবহাওয়া অফিসের এক বুলেটিনে জানানো হয়েছে, সকাল ৬টায় ঘূর্ণিঝড়টি চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর থেকে ৯৪৫ কি.মি দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার থেকে ৯০০ কি.মি দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্র বন্দর থেকে ৮১৫ কি.মি দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৮১৫ কি.মি দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল।

ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৬৪ কি.মি এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৯০ কি.মি.। যা দমকা বা ঝড়ো হাওয়া আকারে ১১০ কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই বিক্ষ্বুদ্ধ রয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র হুমকিতে ভারতের উড়িষ্যা, অন্ধ্রপ্রদেশে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসজে/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত