artk
৬ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সোমবার ২২ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে ২১ আগস্ট মামলার রায়

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৭০৩ ঘণ্টা, বুধবার ১০ অক্টোবর ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১৭৩৬ ঘণ্টা, বুধবার ১০ অক্টোবর ২০১৮


আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে ২১ আগস্ট মামলার রায় - জাতীয়

বর্বরোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায়ে ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এতে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ও বিএনপি নেতা আবদুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড এবং বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান (বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান) তারেক রহমানসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে স্থাপিত ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন এ রায় ঘোষণা করেন।

বাংলাদেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এ মামলার রায়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ রায় নিয়ে তাদের অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ করেছে। বিবিসির এ সংবাদের শিরোনাম করা হয়েছে, ‘২০০৪ সালের সমাবেশে প্রাণঘাতী আক্রমণের জন্য বাংলাদেশে ১৯ জনের ফাঁসি।’ খবরে বলা হয়েছে, রাজধানী ঢাকায় ২০০৪ সালে রাজনৈতিক সমাবেশে প্রাণঘাতী গ্রেনেড হামলার জন্য বাংলাদেশের একটি আদালত ১৯ জনকে ফাঁসির রায় দিয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছেন বিএনপির সাবেক একজন প্রতিমন্ত্রী। এছাড়াও দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

লন্ডনভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্স এ মামলার রায় নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে। রয়টার্সের শিরোনাম ছিল ‘২০০৪ সালের বিস্ফোরণকে কেন্দ্র করে বিরোধী দলের ভারপ্রাপ্ত প্রধানের যাবজ্জীবন দিয়েছেন বাংলাদেশের আদালত।’

এছাড়াও কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরাও এ ঘটনায় সংবাদ প্রকাশ করেছে। তাদের সংবাদ শিরোনাম ছিল ‘২০০৪ সালের আক্রমণকে কেন্দ্র করে ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন বাংলাদেশের আদালত।’

খবরে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর ২০০৪ সালে আক্রমণের জন্য ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন ঢাকার একটি আদালত।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট ২০০৪ সালের ঘটনায় সংবাদ প্রকাশ করেছে। তাদের সংবাদ শিরোনাম ছিল ‘রাজনৈতিক সমাবেশে আক্রমণের জন্য বাংলাদেশে ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসজে/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত