artk
মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২২, ২০১৯ ৬:৩৯   |  ৯,মাঘ ১৪২৫
শনিবার, জানুয়ারি ১৯, ২০১৯ ৬:০৪

কোথাও যানজট, কোথাও গণপরিবহন সঙ্কট!

স্টাফ রিপোর্টার
media

মিরপুর রোডে সকাল থেকেই যান চলাচল স্বাভাবিক ছিল। সোহরাওয়ার্দী যাওয়ার প্রবেশ পথগুলোর আশেপাশের সড়কে ছিল যানবাহনের দীর্ঘ লাইন। ইস্কাটন থেকে বাংলামোটরের দিকে বের হতে ঘণ্টা পেরিয়ে গেছে। বাংলামোটর ফ্লাইওভারে গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা। সরেজমিন ঘুরে এমন চিত্রই পাওয়া গেছে।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিজয় সমাবেশের কারণে বেশ কিছু রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। ফলে শনিবার সকাল থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তায় যানবাহন থমকে আছে। গণপরিবহনের সংখ্যাও কম। সরকারি ছুটির দিন হলেও ভুক্তভোগীরা বলছেন, ঢাকা শহরে এ ধরনের উৎসব উদযাপনে ভোগান্তিতে তারা অভ্যস্ত হয়ে যাচ্ছেন। মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজ, বাণিজ্য মেলার কারণে যানজটে বসে থাকতে হয় রোকেয়া সরণিতে,তার ওপর আজকের এই আয়োজন।

যানবাহনের অভাবে লোকজন হেঁটে গন্তব্যের দিকে যাচ্ছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় লাভ করায় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বিজয় সমাবেশের আয়োজন করায় রাস্তায় যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত হওয়ায় এ দুর্ভোগ বলে অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা।

যানবাহনের অভাবে লোকজন হেঁটে গন্তব্যের দিকে যাচ্ছেন। কয়েকজন পথচারী জানান, ওয়ারলেস গেট থেকে এসে ইস্কাটনে আটকে আছি। যাত্রী অর্ধেক ভাড়া দিয়ে নেমে হাঁটা দিয়েছেন। এই এলাকায় এমনিতেই জ্যাম থাকে। আজকে ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে।’

যানবাহনের অভাবে লোকজন হেঁটে গন্তব্যের দিকে যাচ্ছেনসকালে ফার্মগেটে আধাঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকে একটা বিআরটিসি বাসে উঠতে পেরেছেন সাইফুল। 

কোথাও কোথাও পুলিশের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সড়কের সংযোগ সড়কগুলো ব্যারিকেড দিয়ে বন্ধ রাখতে দেখা গেছে। যে কারণে সড়কের স্থবিরতা গিয়ে ঠেকে অলিগলিতেও।

রোকেয়া সরণির জ্যাম ঠেলে কাওরান বাজারের দিকে আসছেন রহমত মিয়া। তিনি বলেন, ‘রোকেয়া সরণিতে মেট্রোরেলের কাজ আর বাণিজ্য মেলার জন্য সবসময় জ্যাম লেগে থাকে। তারওপর আজকে এরকম পরিস্থিতি। দিনশেষে যার যার জায়গায় পৌঁছানোই তো এখন মুশকিল মনে হচ্ছে।’

যানবাহনের অভাবে লোকজন হেঁটে গন্তব্যের দিকে যাচ্ছেনতিনি আরও বলেন, ‘শনিবার হওয়াতে ভোগান্তি কম, কিন্তু গণপরিবহন না থাকার বিষয়টি পূর্বঘোষণা থাকা উচিত।’  

কাওরান বাজারের সোনারগাঁও ক্রসিং থেকে যানবাহনের ডাইভারশন করে দেওয়া হয়েছে। বাংলামোটর থেকে শাহবাগ পর্যন্ত সড়ক বন্ধ রাখা হয়েছে। সড়কের দুইপাশে পথচারীরা পায়ে হেঁটে চলাচল করছে। এছাড়াও উৎসবে যোগ দিতে লোকজন মিছিল নিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের দিগে অগ্রসর হচ্ছে।                                                               

রাজধানীর রমনা, তেজগাঁও, হাতিরঝিল, মগবাজার ও ফার্মগেট এলাকায় সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, সামনে মিছিলের কারণে সড়কে আটকে থাকে যানবাহন। যে কারণে সৃষ্টি হয় তীব্র যানজট। ফলে বিপাকে পড়ে বিভিন্ন গন্তব্যের মানুষ।

বিজয় উৎসবকে ঘিরে শাহবাগ থেকে মৎস্যভবন পর্যন্ত সড়ক সর্বসাধারণের চলাচলের জন্য বন্ধ রেখেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের চারদিকের রাস্তায় যানবাহন চলাচলও রয়েছে নিয়ন্ত্রিত।

প্রধানমন্ত্রীসহ ভিআইপিদের আগমন উপলক্ষে শনিবার ভোর থেকে অনুষ্ঠান শেষ না হওয়া পর্যন্ত বাংলামোটর, হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল মোড়, শাহাবাগ, কাঁটাবন, নীলক্ষেত, পলাশী, বকশিবাজার, চাঁনখারপুল, গোলাপশাহ মাজার, জিরো পয়েন্ট, পল্টন, কাকরাইল চার্চ, অফিসার্স ক্লাব, মিন্টু রোডসহ কয়েকটি সড়ক ডাইভারশন করে দিয়েছে পুলিশ।