artk
বুধবার, জানুয়ারি ২৩, ২০১৯ ৮:৪২   |  ১০,মাঘ ১৪২৫

স্টাফ রিপোর্টার

সংবাদ ডেস্ক

বুধবার, জানুয়ারি ১৬, ২০১৯ ১:৩৪

উবারের বাইকার শাহনাজের স্কুটি ছিনতাইয়ের ১২ ঘণ্টার মধ্যে উদ্ধার

media

ফাইল ফটো

শাহনাজ একজন নারী হয়েও জীবিকার তাগিদে ভাড়ায় স্কুটি চালাতেন। মিরপুরের মেয়ে শাহনাজের সংসারে দুটি মেয়ে আছে। এই স্কুটি দিয়েই সংসার চালান তিনি। স্কুটিটি তিনি কিনেছিলেন ঋণ করে।

রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান উবারের নারী বাইকার শাহনাজ আক্তার পুতুলের স্কুটি ছিনতাই হওয়ার ১২ ঘণ্টার মধ্যে উদ্ধার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। এ সময় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর খামারবাড়ি এলাকা থেকে প্রতারণার মাধ্যমে বাইকটি চুরি করে নিয়ে যান ওই যুবক। এ ঘটনায় শাহনাজ আক্তার শেরেবাংলা নগর থানায় জুবায়দুল ইসলাম জনি নামে ওই যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

বুধবার সকালে ডিএমপির পক্ষ থেকে জানানো হয়, পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের শেরে বাংলানগর থানা পুলিশ মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার সাইনবোর্ড এলাকা থেকে স্কুটিটি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয় জুবায়দুল ইসলাম জনিকে।

শাহনাজ একজন নারী হয়েও জীবিকার তাগিদে ভাড়ায় স্কুটি চালাতেন। মিরপুরের মেয়ে শাহনাজের সংসারে দুটি মেয়ে আছে। এই স্কুটি দিয়েই সংসার চালান তিনি। স্কুটিটি তিনি কিনেছিলেন ঋণ করে।

নারী হয়েও বাইকে পুরুষ যাত্রীদের বহন করায় আলোচনায় আসেন শাহনাজ।

শাহনাজের মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, কিছুদিন আগে জনির সঙ্গে তার পরিচয় হয়। জনি নিজেকে পাঠাওয়ের চালক বলে দাবি করেন। জনি একপর্যায়ে শাহনাজকে একটি স্থায়ী চাকরির প্রলোভন দেন। শাহনাজ তাকে বিশ্বাস করেন।

মঙ্গলবার দুপুরে জনি তাকে ফার্মগেটের খামারবাড়ী এলাকায় আসতে বলেন। তারপর তারা রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে পুনরায় মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে আসেন। চা পান করার একপর্যায়ে জনি স্কুটিটি নিয়ে পালিয়ে যান বলে এজাহারে উল্লেখ করেছেন শাহনাজ।