artk
৪ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার ১৯ অক্টোবর ২০১৮, ৬:০৯ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

নতুন বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২০১৩ ঘণ্টা, বুধবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৯০১ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮


নতুন বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী - জাতীয়

এবার নতুন বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

বুধবার সচিবালয়ে মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন শিক্ষক সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের এই কথা বলেন।

সভায় শিক্ষক নেতারা শিক্ষকদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া তুলে ধরেন। এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এগুলো তিনি সরকারকে অবগত করবেন। সভায় বিভিন্ন শিক্ষক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

তিনি জানান, তবে কতগুলো প্রতিষ্ঠান ও কবে এমপিওভুক্ত করা হবে তা নির্ভর করছে যাচাই-বাছাইয়ের ওপর।

যেসব বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের মাসে বেতন-ভাতা বাবদ সরকারি অংশ (মূল বেতন ও কিছু ভাতা) দেওয়া হয়, সেগুলোকে এমপিওভুক্ত বলা হয়। আর যেগুলো এমপিওভুক্ত নয়, সেগুলোর শিক্ষক-কর্মচারীরা সরকার থেকে কোনো আর্থিক সুবিধা পান না।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এমপিওভুক্তির জন্য অনলাইনে ইতিমধ্যে নয় হাজার ৫৯৮টি আবেদন জমা পড়েছে। এগুলো যাচাই-বাছাই চলছে। মন্ত্রিসভা সিদ্ধান্ত দিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীও বলেছেন মাঠ পর্যায়ে শারীরিকভাবে গিয়ে যাচাই করতে হবে। যাচাই-বাছাই করে উপযুক্ত সময়ে দেয়া হবে। এ নিয়ে সন্দেহ নেই।

তখন সাংবাদিকেরা জানতে চান কতগুলো প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হতে পারে—জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। যাচাই-বাছাইয়ের পর অর্থপ্রাপ্তি-সবকিছু মিলিয়ে সরকারের সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে দেয়া হবে। কি পদ্ধতিতে দেয়া হবে সেটাও সিদ্ধান্ত হবে।

নির্বাচনের আগে দেয়া হবে কি না এমন প্রশ্নে নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, এটার সঙ্গে নির্বাচনের কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

তাহলে কত দিন লাগতে পারে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এটা অনুমান করে বলার দরকার নেই। এটা কবে হবে, কীভাবে হবে, তা যাচাই করে দেয়া হবে। যখন যাচাই-বাছাই শেষ হবে এবং প্রস্তুত হবে তখনই দেয়া হবে।

নিউজবাংলাদেশি.কম/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত