artk
বুধবার, জানুয়ারি ২৩, ২০১৯ ৯:৪১   |  ১০,মাঘ ১৪২৫
মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৫, ২০১৯ ২:০৫

আবু বকর চৌধুরী: কিছু স্মৃতি

সালাম সালেহ উদদীন
media

আবু বকর চৌধুরী

একে একে চলে গেলেন মোস্তফা মীর, মোস্তাক হোসেন, শহীদ খান, মাহমুদুল বাসার, রিশিত খান, রতনতনু ঘোষ। জানি না এরপর কার ডাক আসবে। তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।

নব্বই দশকের শুরুর কথা। সাপ্তাহিক মূলধারা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর আমি দৈনিক আজকের কাগজে যোগ দেই।

সম্পাদকীয়-উপসম্পাদকীয় পাতার দায়িত্বে। সম্পাদকীয় বিভাগে বসে আছি। দুপুরের দিকে গোফওয়ালা দীর্ঘদেহী এক ভদ্রলোক এলেন। নিজের টেবিলে বসে জরুরি কোনো কাগজ খুঁজতে লাগলেন। পরিচয় পর্বে জানতে পারলাম তিনিই আবু বকর চৌধুরী, সাপ্তাহিক খবরের কাগজের দায়িত্বে আছেন। পেশাগত জীবনে তিনি পরবর্তী সময়ে আজকের কাগজের বার্তা সম্পাদক, সহযোগী সম্পাদক, সমকালের বার্তা সম্পাদক এবং শেষে মানবকণ্ঠের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ছিলেন।

কাজ-পাগল মানুষ ছিলেন তিনি, নিজের দিকে নজন দিতেন না। তিনি আর আমি ঢাকা কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলাম। তিনি আমাকে খুব পছন্দ করতেন। একদিন সবার সামনে বলেই ফেলনে, সালাম আমাদের চোখের সামনে লেখক হয়ে গেল।

সর্বশেষ কথা হয় দিন কয়েক আগে। আমাদের সহকর্মী পাভেল অনিক অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলে ওর খবর জানতে আমাকে ফোন করেন। জানতে পারলাম পাভেলের হার্টে তিনটি ব্লক। একটিতে রিং পরানো হয়েছে, বাকি দুটো নাকি ওয়াশ করানো হয়েছে। পাভেল সুস্থ হয়ে উঠেছে, আর বকর ভাই। তিনি দূর আকাশে মিলিয়ে গেলেন। আজ মঙ্গলবার, ১৫ জানুয়ারি ভোরে তিনি হার্ট এটাকে মারা যান।

একে একে চলে গেলেন মোস্তফা মীর, মোস্তাক হোসেন, শহীদ খান, মাহমুদুল বাসার, রিশিত খান, রতনতনু ঘোষ। জানি না এরপর কার ডাক আসবে। তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।