artk
সোমবার, জানুয়ারি ২১, ২০১৯ ১১:৫৯   |  ৮,মাঘ ১৪২৫
মঙ্গলবার, জানুয়ারি ৮, ২০১৯ ৮:১১

কুমিল্লাকে ৯ উইকেটে হারালো মাশরাফির রংপুর

স্পোর্টস রিপোর্টার
media

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএলের ষষ্ঠ ম্যাচে শক্তিশালী কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে গুড়িয়ে দিয়েছে মাশরাফির রংপুর রাইডার্স। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মাশরাফির আগুন ঝরা বোলিংয়ে মাত্র ৬৩ রানে গুটিয়ে যায় কুমিল্লা। জবাবে ১২ ওভারে ১ উইকেটে ৬৭ রান তুলে ৯ উইকেটের বড় জয় পায় বিপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দলটি। অসাধারণ বোলিং করে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএলের ষষ্ঠ ম্যাচে শক্তিশালী কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে গুড়িয়ে দিয়েছে মাশরাফির রংপুর রাইডার্স। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মাশরাফির আগুন ঝরা বোলিংয়ে মাত্র ৬৩ রানে গুটিয়ে যায় কুমিল্লা। জবাবে ১২ ওভারে ১ উইকেটে ৬৭ রান তুলে ৯ উইকেটের বড় জয় পায় বিপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দলটি। অসাধারণ বোলিং করে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা।

৬৪ রানের সহজ জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে দলীয় ১৪ রানের মাথায় ক্রিস গেইলকে হারায় রংপুর। টি-টোয়েন্টির এই ব্যাটিং দানব ৫ বলে মাত্র ১ রান করে আবু হায়দারের বলে ক্যাচ আউট হন। এরপর আর কোন উইকেটে হারায়নি তারা। ওপেনার মেহেদী মারুফ ও রাইলি রুশোর ব্যাটেই জয় তুলে নেয় তারা। মারুল ৩৯ বলে ৩৬ ও রুশো ২০ রান করে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে মিরপুর শেরে-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বল হাতে মাশরাফি একাই গুটিয়ে দিয়েছে কুমিল্লার ব্যাটিং লাইনআপ। মাশরাফির ভয়ঙ্কর বোলিংয়ে ১৬.২ ওভারে ৬৩ রানে অলআউট কুমিল্লা। টানা চার ওভার বল করে একটি মেডেন ও ১১ রান দিয়ে একাই কুমিল্লা টপঅর্ডারের চার উইকেট নেন মাশরাফি। দলীয় ১৮ রানের মধেই টপঅর্ডারের ৫ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পরে তারা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে দলীয় ১০ রানের মাথায় ৪ রান করা তামিমকে ফেরান মাশরাফি। 

নিজের তৃতীয় ওভারে কুমিল্লার শিবিরে মাশরাফিরে জোড়া আঘাত। ৪.২ ওভারে দলীয় ১৬ রানের মাথায় ইমরুল কায়েস ২ রান করে মাশরাফির বলে বোপারার তালুবন্দি হন। মাশরাফির ঐ ওভারের পঞ্চম বলে ইভেন লুইস ৮ রান করে নাজমুলের তালুবন্দি। পরের ওভারে পেসার শফিউল ইসলামের বলে এলবিডাব্লিউর শিকার হয়ে শুন্য রানে বিদায় নেন পাকিস্তান ব্যাটস্যান শোয়েব মালিক। 

এরপর মাশরাফি নিজের চতুর্থ ওভারে কুমিল্লার অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ শুন্য রানে ফেরান তিনি। দলীয় ২৭ রানের মাথায় বিজয় ২ রান করে ফিরিয়ে যায়। বিজয়ের পর সাইফউদ্দিন ৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন। ১০ ওভারে ৩৭ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পরে কুমিল্লার দলটি। আফ্রিদি কিছুটা প্রতিরোধের চেষ্টা করেও বেশিক্ষণ টিকতে পারেনি। ১৮ বলে তিন বাউন্ডারি ও একটি ছক্কায় দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৫ রান করে নাজমুল ইসলামের স্পিনে ঘায়েল হন তিনি। ৮ উইকেটে কুমিল্লার দলীয় রান তখন ৫৫। শেষ দিকে মেহেদীস হাসান ৬ ও আবু হায়দার রনি করেন ৫ রান। 

বল হাতে ৪ ওভারে ১১ রানে মাশরাফি চারটি। নাজমুল ইসলাম অপু ৩.২ ওভারে ২০ রানে তিনটি ও শফিউল ইসলাম নেন দুটি উইকেট। এর আগে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রংপুরের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসএস/ডি