artk
৫ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬:০৫ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

সিরিজ বোমা হামলার ১৩ বছর
এখনো বিচারের অপেক্ষায় ৫৫ মামলা

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১১০১ ঘণ্টা, শুক্রবার ১৭ আগস্ট ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১৫৫১ ঘণ্টা, শুক্রবার ১৭ আগস্ট ২০১৮


এখনো বিচারের অপেক্ষায় ৫৫ মামলা - বিশেষ সংবাদ

সারাদেশে সিরিজ বোমা হামলার ১৩ বছর হলো। এই দীর্ঘ সময়েও শেষ হয়নি এ সংক্রান্ত মামলার বিচার। এখনো তিন ভাগের এক ভাগেরও বেশি মামলা বিচারের অপেক্ষায় রয়েছে।

পুলিশ সদর দফতর সূত্রে জানা গেছে, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় সারাদেশে ১৫৯টি মামলা দায়ের করা হয়। এর মধ্যে ৯৪টি মামলার বিচার সম্পন্ন হয়েছে। এই মামলা গুলোতে ৩৩৪ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করা হয়েছে। এখন ৫৫টি মামলা বিচারের অপেক্ষায় রয়েছে, যেগুলোতে আসামি সংখ্যা ৩৮৬ জন।

এই সিরিজ বোমা হামলার রায় প্রদান করা মামলাগুলোতে ৩৪৯ জনকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। আসামিদের মধ্যে ২৭ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে আট জনের ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে।

আগামী জানুয়ারির মধ্যে সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় দায়ের করা পাঁচটি মামলার বিচার কাজ শেষ হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী শাহ আলম তালুকদার।

২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআ’তুল মুজাহেদীন বাংলাদেশ (জেএমবি) সারাদেশে বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে দুই জন নিহত ও অন্তত ৫০ জন আহত হয়। একমাত্র মুন্সিগঞ্জ জেলায় বোমার বিস্ফোরণ ঘটেনি।

শাহ আলম তালুকদার জানান, সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় রাজধানীর বিভিন্ন থানায় মোট ১৮টি মামলা দায়ের করা হয়। এর মধ্যে দুটি মামলার রায় হয়েছে। ১১টি মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল এবং বাকি পাঁচটি মামলা বিচারের অপেক্ষায় আছে। রাজধানীর তেজগাঁও থানার একটি মামলায় ঢাকার একটি আদালত একজনকে ১০ বছরের কারাদণ্ড ও আরেকজনকে সাত বছরের কারাদণ্ড প্রদান করে।

এছাড়া বিমানবন্দর থানার আরেকটি মামলার রায়ে পাঁচ জনকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয় বলে তিনি জানান।

তিনি আরো জানান, ঢাকার বিচারাধীন পাঁচটি মামলা সাক্ষ্যগ্রহণের পর্যায়ে রয়েছে। বিচারাধীন এই মামলাগুলো আগামী জানুয়ারির মধ্যে শেষ করা যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

শাহ আলম তালুকদার বলেন, “সিরিজ বোমা হামলার ১১টি মামলার তদন্ত কর্মকর্তারা আসামিদের ঠিকানা ও প্রত্যক্ষদর্শীদের হাজির করতে ব্যর্থ হওয়ায় এই ১১টি মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করা হয়।”

নিউজবাংলাদেশ.কম/এফএ

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য