artk
৩০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, মঙ্গলবার ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ২:৫৮ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

৬ দিন শিক্ষার্থী, ১ দিন পরিচ্ছন্নতাকর্মী

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২০৫১ ঘণ্টা, শুক্রবার ২৭ জুলাই ২০১৮


৬ দিন শিক্ষার্থী, ১ দিন পরিচ্ছন্নতাকর্মী - জাতীয়

মুখে মাস্ক, হাতে গ্লাভস। কারও হাতে ঝাড়ু, কারও হাতে ঝুড়ি। সড়কের পাশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা ময়লা সাফ করছেন তাড়াতাড়ি। দূর থেকে মনে হবে তাদের পরিচ্ছন্নতাকর্মী। তবে তারা পেশাদার পরিচ্ছন্নতাকর্মী নয়। নগরের বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী। ৬ দিন অ্যাকাডেমিক পড়ালেখার পাশাপাশি একদিন তারা ‘পরিচ্ছন্নতাকর্মী’।

শুক্রবার (২৭ জুলাই) বিকেল তিনটা। নগরের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের আশপাশ। সড়ক কিংবা আইল্যান্ডের কোণায় জমে থাকা ময়লা ঝাড়ু দিয়ে পরিষ্কার করছেন ৬ জন শিক্ষার্থী। বাকি ৬ জন সেই ময়লা ঝুড়িতে ভরে নির্দিষ্ট স্থানে ফেলে দিয়ে আসছেন।

উচ্চবিত্ত কিংবা মধ্যবিত্ত পরিবারের এসব শিক্ষার্থী ‘বিডি-ক্লিন চট্টগ্রাম’ নামে একটি গ্রুপের সদস্য। প্রতি শুক্রবার তারা শহরের বিভিন্ন জায়গায় ভাগ হয়ে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানে নামেন। পরিষ্কার করেন পুরোটা দিন। তাদের লক্ষ্য ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত রাখা।

বিডি-ক্লিন চট্টগ্রাম বিভাগের সমন্বয়ক আদিল আহমেদ কবির জানান, বিডি-ক্লিন চট্টগ্রামে কার্যক্রম শুরু করে ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। সেই থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ১২০০ কর্মী সদস্য যুক্ত হয়েছেন এ গ্রুপে। যারা চট্টগ্রাম সরকারি কলেজ, হাজী মুহ‍ম্মদ মহসিন কলেজ, চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটসহ বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী। তারা সপ্তাহের ৬ দিন অ্যাকাডেমিক পড়াশুনা করার পাশাপাশি শুক্রবার একদিন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান নামেন।

পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে ‘বিডি-ক্লিন চট্টগ্রাম’র সদস্যরাএসব শিক্ষার্থীরা অনেকেই এর আগে কখনো ঝাড়ু হাতে নেয়নি। সড়কে পরিষ্কার করতে তাদের উৎসাহের কোনো কমতি ছিল না। এই কাজ করতে পেরে তারা আনন্দিত। পরিচ্ছন্নতা অভিযানের পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা মানুষদের মধ্যে বিভিন্ন সচেতনামূলক প্রচারণাও চালান।

চট্টগ্রাম মহিলা কলেজের ডিগ্রির শিক্ষার্থী তাহুরা সোলতানা রেখা বলেন, একটু হাত বাড়ালে শুধু চট্টগ্রাম নয়, পুরো দেশটাকেই পাল্টে দেওয়া সম্ভব। আসলে যেকোনো কাজই ছোট নয়। সব কাজই নিজের এবং দেশের। তাই পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানে কাজ করতে পারি আমি নিজেকে অনেক ধন্য মনে করছি।’

বিডি-ক্লিন চট্টগ্রাম শুধু পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান করে তা নয়, তারা বিভিন্ন সময় বনভোজন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও আয়োজন করেন। যেসব অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সময় সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনসহ নগরের গণমান্য ব্যক্তিরা অংশগ্রহণ করেন।

চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শেষ সেমিস্টারের ছাত্র মহিম মিজান বলেন, সদস্যদের কাজের দক্ষতা ও মন প্রফুল্ল রাখতে আমরা বিভিন্ন সময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করি।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসডি

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত