artk
৩০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, মঙ্গলবার ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ২:৫৭ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

ব্যাংকের প্রতি গ্রাহকদের সন্দেহ অশনি সঙ্কেত: ফজলে কবির

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৯০০ ঘণ্টা, শনিবার ১৪ জুলাই ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৯৫৪ ঘণ্টা, রোববার ১৫ জুলাই ২০১৮


ব্যাংকের প্রতি গ্রাহকদের সন্দেহ অশনি সঙ্কেত: ফজলে কবির - অর্থনীতি

ব্যাংকের কার্যক্রমে সাধারণ মানুষের (গ্রাহক) মাঝে এখন সন্দেহ ও অবিশ্বাস দেখা দিয়েছে। যা ব্যাংকগুলোর জন্য অশনি সঙ্কেত বলে মনে করছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির।

শনিবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে তফসিলি ব্যাংকসমূহের ব্যবস্থাপনা পরিচালক-প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের নিয়ে মানিলন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধবিষয়ক কনফারেন্সে এ কথা বলেন গভর্নর।

ফজলে কবির বলেন, ব্যাংকের প্রতি গ্রাহকদের সন্দেহ ও অবিশ্বাস সমস্যা কাটিয়ে সুশাসন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাংকগুলোকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান। একইসঙ্গে ব্যাংকগুলোকে সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য সঠিক স্থানে সঠিক লোক নিয়োগ দেয়ার পরামর্শ দেন।

গভর্নর আরও বলেন, চলতি অর্থবছরে গত ৬ মাসে অব্যাহতভাবে আমদানি বেড়েছে। অপরদিকে, বৈদেশিক লেনদেনে ভারসাম্য ফিরে আসছে। অর্থনীতির গতি ধারাতে সাধারণত আমদানি ব্যয় বাড়লে রপ্তানি আয় বাড়ে।

ওভার ইনভয়েসিংয়ের নামে বিদেশে অর্থপাচার আগের থেকে অনেকটাই কমেছে এমন উক্তি করে তিনি বলেন, দেশের বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের অন্যতম প্রধান উৎস হলো রেমিট্যান্স। কিন্তু গত অর্থবছর জুড়েই দেশে রেমিট্যান্স প্রবাহ নিম্নমুখী ধারায় ছিল। সম্প্রতি রেমিট্যান্স ইতিবাচক ধারায় ফিরেছে।

তিনি আরও বলেন, বেসরকারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহ বিশ্ব অর্থনীতিতে প্রবৃদ্ধির একটি প্রধান উৎস হতে পারে এবং দারিদ্র্য, বৈষম্য ও অবকাঠামোগত দুর্বলতা হ্রাসে ব্যাপক অবদান রাখতে পারে। এ কারণে বেসরকারি খাতের উন্নয়নে ও আপনাদের সহায়তা করার জন্য বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ ব্যাংক সর্বদা ব্যবসাবান্ধব সরকারি ও অর্থিক নীতি প্রণয়নে বন্ধ পরিকর।

বিএসআইইউর মহাব্যবস্থাপক এবিএম জহুরুল হুদার সভাপতিত্বে এ সময় আরো বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর ও বিএফআইইউর প্রধান আবু হেনা মোহা. রাজী, ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মাহবুবুর রহমান, ব্যাংক এশিয়ার উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মাদ বোরহানউদ্দিন, বিএফআইইর পরামর্শক দেবপ্রসাদ দেবনাথ প্রমুখ।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এমএজেড/এসডি

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য