artk
৬ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শনিবার ২১ জুলাই ২০১৮, ৭:৫৬ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

বিশ্বকাপ ফুটবলের সমাপনীতে যা থাকছে

স্পোর্টস ডেস্ক | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ০৮৩৯ ঘণ্টা, বুধবার ১১ জুলাই ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৮৫৭ ঘণ্টা, বুধবার ১১ জুলাই ২০১৮


বিশ্বকাপ ফুটবলের সমাপনীতে যা থাকছে - খেলা

খেলাধুলার বড় বড় আসরের উদ্বোধন আর সমাপনী অনুষ্ঠান নিয়ে থাকে নানা ধাঁধা। অনুষ্ঠানে কী কী থাকবে তা ঢেকে রাখা হয় রহস্যের ঝাঁপিতে। তারপরও জমকালো অনুষ্ঠানের নানা তথ্য ফাঁস হয়ে যায়। মানুষ আগেই টের পায় কী আয়োজন থাকছে অনুষ্ঠানে।

১৪ জুন রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বর্ণিল উদ্বোধন হওয়া বিশ্বকাপ দেখতে দেখতে শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে। মঙ্গলবার সেন্ট পিটার্সবার্গে এবং বুধবার মস্কোতে সেমিফাইনাল দুটো হয়ে গেলে মানুষের সব আকর্ষণ থাকবে ফাইনাল ও সমাপনী।

তো কী হবে ১৫ জুলাই বিশ্বকাপের সমাপনী অনুষ্ঠানে? সবকিছুই রহস্যের ঝাঁপিতে ঢাকা। বিশ্বের সবচেয়ে বড় এ দেশের ১১ শহরের ১২ স্টেডিয়ামে দৌড়ঝাপের ছোট হয়ে এসেছে বিশ্বকাপ। এখন শেষ দৃশ্য দেখার অপেক্ষা। সেমিফাইনাল, তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ও ফাইনাল- এই চার ম্যাচেই এখন জমে আছে সব আকর্ষণ। সবচেয়ে বড় প্রশ্ন কে হবে এবারের চ্যাম্পিয়ন।

ফাইনালের আগে লুঝনিকি স্টেডিয়ামে একটি ম্যাচ, বুধবার ইংল্যান্ড-ক্রোয়েশিয়া সেমিফাইনাল। তারপর ফাইনালের প্রস্তুতি। বিশ্বকাপের প্রধান ভেন্যুটি ইতোমধ্যেই শেষটা উপহার দেয়ার প্রস্তুতি শুরু করেছে। দেখে দেখে নতুন করে ঘঁষামাজা, কোথাও আবার রংয়ের প্রলেপ।

সমাপনী অনুষ্ঠানে কী থাকবে তার একটা ধারণা দেবেন আয়োজকরা ফাইনালের ঠিক দুইদিন আগে। ১৩ জুলাই সমাপনী নিয়ে একটা মিডিয়া ব্রিফিং করবে আয়োজক কমিটি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেভাবে রাশিয়ার ইতিহাস-ঐতিহ্য ফুটিয়ে তোলা হয়েছিল অনেকটা সে আদলেই সাজানো হচ্ছে সমাপনী অনুষ্ঠান। আধুনিক প্রযুক্তি এবং রাশিয়ার সমাজ, সংস্কৃতি ও রূপকথার সমাহার থাকবে সমাপনীতে।

আলোর ঝলাকানির সঙ্গে সুরের মূর্ছনা না থাকলে কি চলে? পারফরমারদের মনোমুগ্ধকর শারীরিক কসরত, রঙিন আলোর ঢেউয়ের সঙ্গে তাই সুরে গগন কাঁপানো বিশ্বের কয়েকজন বিখ্যাত গায়ক। বিশ্বকাপের থিমসং ‘লিভ ইট আপ’ নিয়ে বিশেষভাবে তৈরি মঞ্চে আসবেন উইল স্মিথ, এরা ইস্ত্রেফিয়া ও নিকি জ্যামরা। ২৫ থেকে ৩০ মিনিটের বর্ণাঢ্য সমাপনী অনুষ্ঠানেরই প্রস্তুতি নিচ্ছে আয়োজকরা।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এমএস

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য