artk
২ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বুধবার ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ৮:২৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম

খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে ছলচাতুরী করছে সরকার: মওদুদ

জেলা সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৭৫৮ ঘণ্টা, সোমবার ১১ জুন ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১১৪১ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১২ জুন ২০১৮


খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে ছলচাতুরী করছে সরকার: মওদুদ - রাজনীতি

সরকার খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে ছলচাতুরী করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ।

সোমবার দুপুরে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের মানিকপুরে তার গ্রামের বাড়িতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

গত দুদিন কোম্পানীগঞ্জ ও কবিরহাট উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে ইফতার ও ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করতে গিয়ে পুলিশি বাধার সম্মুখীন হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই সংবাদ সম্মেলন ডাকেন মওদুদ আহমদ।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল হাই সেলিম, সাধারণ নুরুল আলম সিকদার, কবিরহাট উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবদুর রহিম, সাধারণ সম্পাদক লিটন চৌধুরী, বসুরহাট পৌর বিএনপির সভাপতি কামাল উদ্দিন চৌধুরী, কবিরহাট পৌর বিএনপির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।

মওদুদ বলেন, “আওয়ামী লীগ সরকার দেশে ন্যূনতম গণতান্ত্রিক পরিবেশ সৃষ্টি করতে চায় না। তারা মনে করে, জনগণকে যদি একবার এই সুযোগ দেওয়া হয় তাহলে তারা আওয়ামী লীগকে প্রত্যাখ্যান করবে। আমি নোয়াখালী-৫ (কোম্পানীগঞ্জ-কবিরহাট) আসন থেকে পাঁচবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য। কিন্তু আজ আমাকে আমার এলাকায় সভা-সমাবেশ, গণসংযোগ করতে দেওয়া হয় না। থানার ওসিরা আমার সহকারীদের ফোন করে সভা-সমাবেশ করতে নিষেধ করেন। আমার বাড়ির চারপাশে পুলিশ দিয়ে ঘেরাও করে রাখা হয়েছে।”

এসব পুলিশরা তার প্রতিবেশীদের নানাভাবে হয়রানি করছে অভিযোগ করে এর তীব্র প্রতিবাদ জানান মওদুদ।

তিনি অভিযোগ করেন, “এলাকায় এসে সমাবেশ ও তৃণমূল নেতা-কর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করব, তা-ও পাচ্ছি না। এমনকি ইফতার পর্যন্তও করতে পারছি না। গতকাল রোববার রামপুর ইউনিয়নের ইফতারের আয়োজন করা হয় দলীয়ভাবে। আমার উপস্থিতিতে সেটা হওয়ার কথা ছিল। আমি যাওয়ার আগেই সকালে পুলিশ শামিয়ানা নামিয়ে ফেলে। চুলা ভেঙে ফেলে এবং সব আয়োজন বন্ধ করে দেয়। তারপরও আমি বিকেলে দেখতে গিয়েছিলাম। পুলিশ তাতেও বাধা দেয়।”

নিউজবাংলাদেশ.কম/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত