artk
২ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বুধবার ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ৮:২৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম

বাগেরহাট-৩ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হচ্ছেন খালেকের স্ত্রী

বাগেরহাট সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৮২০ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ২৪ মে ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১২২৯ ঘণ্টা, শুক্রবার ২৫ মে ২০১৮


বাগেরহাট-৩ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হচ্ছেন খালেকের স্ত্রী - জাতীয়

বাগেরহাট-৩ (মোংলা-রামপাল) আসনের উপনির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিনে শুধু একটি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে। এর আগে দুজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও বৃহস্পতিবার শুধু আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হাবিবুন নাহার তার মনোনয়নপত্র জমা দেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বাগেরহাট জেলা নির্বাচন কার্যালয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও ফরিদপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নূরুজ্জামান তালুকদারের কাছে মনোয়নয়পত্র জমা দেন হাবিবুন নাহার।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা শাকিল খান দুই দিন আগেই ঘোষণা দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। ফলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও এই এলাকারই সাবেক সাংসদ হাবিবুন নাহার।

মনোনয়নপত্র জমাদানকালে হাবিবুন নাহারের সঙ্গে ছিলেন তার স্বামী খুলনা সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আলহাজ তালুকদার আবদুল খালেক, বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাংসদ ডা. মোজ্জাম্মেল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ কামরুজ্জামান টুকু, সাংসদ মীর শওকাত আলী বাদশা, বাগেরহাট পৌরসভার মেয়র খান হাবিবুর রহমান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ, কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের নেত্রী তালুকদার রিনা সুলতানাসহ জেলা আওয়ামী লীগ ও মোংলা-রামপালের আওয়ামী লীগের নেতারা।

খুলনা সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আলহাজ তালুকদার আবদুল খালেক এর আগেও একবার সিটি মেয়র ছিলেন। তাছাড়া ১৯৯১ সাল থেকে মোংলা-রামপাল আসনে ধারাবাহিকভাবেই সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে আসছিলেন তিনি। এর ফাঁকে যে দুইবার তিনি খুলনায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন সে সময় তার স্ত্রী হাবিবুন নাহার ছেড়ে যাওয়া সংসদীয় আসনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন এবং সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এর আগের বার বিপুল ভোটে হাবিবুন নাহার নির্বাচিত হলেও এবার হয়তো আর ভোটের প্রয়োজন হবে না।

মেয়র পদে নির্বাচন করার জন্য আলহাজ তালুকদার আবদুল খালেক গত ১০ এপ্রিল সংসদ সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন। এর ফলে এ আসনটি শূন্য হয়। সেই শূন্য হওয়া আসনে তারই সহধর্মিনী হাবিবুন নাহারকে উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ।

মোংলা-রামপাল আসনের উপনির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিন ছিল আজ। আগামী ২৭ মে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ও ৩ জুন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন রয়েছে। এ ছাড়া ২৬ জুন ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা।

তবে একমাত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ায় ভোটগ্রহণ ছাড়াই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে রয়েছেন হাবিবুন নাহার।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসজে/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত