artk
৩ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

ইউডায় ‘উন্নয়নের জন্য যোগাযোগ’ বিষয়ে সেমিনার

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৯৩১ ঘণ্টা, সোমবার ১৪ মে ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১৯৪৬ ঘণ্টা, সোমবার ১৪ মে ২০১৮


ইউডায় ‘উন্নয়নের জন্য যোগাযোগ’ বিষয়ে সেমিনার - শিক্ষাঙ্গন

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভের (ইউডা) যোগাযোগ ও গণমাধ্যম শিক্ষা বিভাগে ‘উন্নয়নের জন্য যোগাযোগ’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ ও গণমাধ্যম শিক্ষা বিভাগ অডিটোরিয়ামে এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ এবং মহিলা ও শিশু সংগঠনের পরিচালক ড. কামরুল হাসান।

প্রভাষক মাহাদী হাসানের সঞ্চালনায় সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়টির ভিসি ড. রফিকুল ইসলাম শরিফ, প্রো-ভিসি অধ্যাপক আহমেদউল্লাহ্‌ মিয়া, রেজিস্টার ড. ইফাত চৌধুরী, যোগাযোগ ও গণমাধ্যম শিক্ষা বিভাগের চেয়ারম্যান এম মাহবুব আলম এবং সহকারী অধ্যাপক মো. ইমরান হাসান।

এছাড়া অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- যোগাযোগ ও গণমাধ্যম শিক্ষা বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

সেমিনারে বক্তাদের বক্তব্যে যোগাযোগের বিভিন্ন দিক উঠে আসে। প্রধান অতিথি ড. কামরুল হাসান বলেন, “কমিউনিকেশন ছাড়া আমরা থাকতে পারি না। আমরা যখন একা থাকি তখনও কমিউনিকেশনের মধ্যেই থাকি।”

এসময় তিনি একটি পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মধ্যে যোগাযোগের নানা প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন।

কৃষককে দেশের প্রাণ উল্লেখ করে তিনি গ্রামীণ জনপদের সঙ্গে যোগাযোগের প্রতি গুরুত্ব দেন। দেশের দক্ষিণাঞ্চলে কৃষকের জন্য কমিউনিটি রেডিও স্থাপনের প্রশংসা করে এটিকে আরও সম্প্রসারণের প্রতি আলোকপাত করেন এই যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ।

বিশ্ববিদ্যালয়য়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক আহমেদউল্লাহ্‌ মিয়া তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন, “যে কমিউনিকেশন আমাদের এনে দিতে পারে উন্নয়ন, সেই কমিউনিকেশন আমাদের এনে দিতে পারে ধ্বংস। তাই নৈতিকতার বিষয়টা বাঁচিয়ে রাখতে হবে।”

সহকারী অধ্যাপক মো. ইমরান হাসানের একটি প্রেজেন্টেশনে মধ্য দিয়ে শেষ হয় শীর্ষক সেমিনারটি।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসজে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য